এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "prasant kisor"

মোদির দরাজ প্রশংসা প্রশান্ত কিশোরের, জল্পনা তুঙ্গে রাজনৈতিকমহলে, অস্বস্তিতে তৃণমূল

লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবি হওয়ার পরই তৃণমূলের রননীতিকার হিসেবে দায়িত্ব নেন ভোটগুরু প্রশান্ত কিশোর। যার পরেই প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনায় দিদিকে বলো কর্মসূচি শুরু হয় গোটা রাজ্যজুড়ে। লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে প্রবল গেরুয়া উত্থানের পরে প্রশান্ত কিশোরের দাওয়াইয়ে নতুন করে ঘুরে দাঁড়াবার অঙ্গীকার নেন শাসকদলের নেতা-কর্মীরা। কিন্তু এবার কি মধুরেণ সমাপয়েৎ হতে

বিধানসভায় শুধু জেতা নয়, অন্তত 200 আসন জেতার পরিকল্পনা তৈরি গেরুয়া শিবিরের, জানুন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনে তাদের টার্গেট ছিল বাংলার 42 টার মধ্যে 23 টা আসন দখল। কিন্তু তারা তাদের টার্গেটে পৌঁছতে না পারলেও তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে গত 2014 সালে দুটি আসন পাওয়া বিজেপি এবারে 18 টা আসন নিজেদের দখলে রেখেছে। অন্যদিকে তৃণমূলের আসন সংখ্যা কমে 22 টিতে এসে দাঁড়িয়েছে। আর লোকসভায় সাফল্য পাওয়ার

পিকের পরিকল্পনায় এবার “পিসি-ভাইপোর” উন্নয়ন ঘরে ঘরে পৌঁছাবে ঝুলনের মাধ্যমে

একসময় ছোট ছোট শিশুরা ঝুলন উপলক্ষে নিজেদের বাড়িতে কোথাও পৌরাণিক কাহিনী আবার কোথাও বা গ্রামের দৃশ্য সাজিয়ে তুলত। কিন্তু সময়ের চাকা ঘোরার সাথে সাথে এখন তা অতীত হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এবার ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোরের হাত ধরে সেই ঝুলন যাত্রা দেখতে পাবে বঙ্গবাসী। কিন্তু তা কোন গ্রামের দৃশ্য বা পৌরাণিক কাহিনী

হারানো জমি পুনরুদ্ধারে পিকে এবার তৃণমূলের সংগঠনে ঢুকিয়ে দিলেন সিপিএমের স্ট্র্যাটেজি!

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেস কিছুটা ধাক্কা খাওয়ার পরই হুশ ফেরে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সংগঠনকে এবার একটু পরিবর্তন করা দরকার, সেই ব্যাপারে সজাগ হয়ে ভোটগুরু হিসেবে প্রশান্ত কিশোরকে নিজের দলের রণনীতিকার হিসেবে নিয়োগ করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। যার পরেই সেই প্রশান্ত কিশোর এবং তার টিমের প্ল্যানে চলতে

প্রশান্ত কিশোর ও মমতাকে নিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ বিজেপি সাংসদের, শোরগোল রাজ্যে

লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফল এবং বিজেপির উত্থানের পরই আগামী বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে দলের সংগঠনকে ঢেলে সাজানোর চিন্তাভাবনা করেছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাইতো ভোটগুরু হিসেবে প্রশান্ত কিশোরকে এর জন্য দলের রণনীতিকার হিসেবে নিয়োগ করেছিলেন তিনি। আর তৃণমূলের রণনীতিকারের দায়িত্ব পেয়েই একাধিকবার সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৃণমূল

প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শ তৃণমূলকে, কি বলছে বিরোধীরা, জেনে নিন

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে ১৮টি আসন হাতছাড়া হবার পরই দলকে পুনরায় চাঙ্গা করতে নতুন স্ট্রাটেজি নিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জী। লোকসভা ভোটের ভরাডুবি থেকে শিক্ষা নিয়ে তৃণমূল বিধায়কদের কার্যত কড়া বার্তা দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনের দলীয় বৈঠকে বিধায়কদের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ বিলাসবহুল জীবনযাপন ছেড়ে জনসংযোগ বাড়াতে হবে।প্রতি সপ্তাহে বিধায়কদের নিজ নিজ

মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ মুকুল রায়ের , জেনে নিন

দলবদল নিয়ে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। লোকসভা ভোটের পর এই রাজ্যে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ঝড় উঠেছিল। রাজ্যজুড়ে নেতা কর্মীরা পদ্মশিবিরে যোগ দেওয়ার ফলে একের পর এক পুরসভা, পঞ্চায়েত বিজেপির হাতে যাচ্ছিল. এর পরেই গত সপ্তাহ থেকে পরিস্থিতি কিছুটা আলাদা হয়।পাল্টা দলবদল করে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরে আসেন কিছু নেতা,

প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শে কোন কোন আচরণবিধি জারি হলো তৃণমূলের বিধায়কদের ওপর, জেনে নিন

২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য ভোট ম্যানেজার প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শ নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।বিশেষ সূত্রে জানা গেছে মুখ্যমন্ত্রীকে আলটপকা মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন প্রশান্ত। দলের কিছু নেতাকে সামনের সারি থেকে সরিয়ে দিতেও বলেছেন। এবার প্রশান্তের পরামর্শ অনুযায়ী তৃণমূলের বিধায়কদের জন্য সুনির্দিষ্ট আচরণবিধি তৈরী করে তা বিধায়কদের

কোন পথে আসবে সাফল্য তৃণমূলকে বাতলে দিলেন স্বয়ং প্রশান্ত কিশোর, আশার আলো দেখছে শাসকদল

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের তৃণমূলের এবার খুব একটা ভালো ফলাফল হয়নি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের নেতাকর্মীদের 42 এ 42 স্লোগান তোলার ডাক দিয়েছিলেন। দিকে দিকে তৃণমূল নেতাকর্মীরা নেত্রীর সুরে সুর মিলিয়ে সেই স্লোগানও তুলেছিল। কিন্তু বাস্তবে 42 এ 42 করতে পারেনি তৃণমূল। অন্যদিকে তৃণমূলের অস্বস্তিকে দ্বিগুণভাবে বৃদ্ধি করে বিজেপি বাংলা থেকে 18

অভিষেককে পাশে নিয়ে এবার সরাসরি মাঠে নেমে পড়লেন প্রশান্ত কিশোর

লোকসভা নির্বাচনে এবার তৃণমূল 42 এ 42 এর ডাক দিয়েছিলেন। কিন্তু তার সেই স্লোগান বাস্তবে রূপায়িত হয়নি। উল্টে 22 টা আসন পেয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ঘাসফুল শিবিরকে। অন্যদিকে 18 টা আসন পেয়েই রীতিমতো তৃণমূলের ঘর ভাঙতে শুরু করেছে বিজেপি। আর এরপরই কিভাবে দলের গ্রহণযোগ্যতা মানুষের কাছে বাড়ানো যায় তা নিয়ে

Top
error: Content is protected !!