এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "poster"

“হুগলি জেলাকে কেউ কেউ বিজেপির হাতে তুলে দিতে চেয়েছেন” বিস্ফোরক তৃণমূল সাংসদ

লোকসভা নির্বাচনে এবার তৃনমূল 22 এসে দাঁড়িয়েছে। যার ফলে উত্তরবঙ্গ থেকে তারা একটি আসন না পেলেও দক্ষিণবঙ্গ থেকেই প্রায 22 টি আসন ঘাসফুল শিবিরের দখলে এসেছে। তবে এবার নির্বাচনে জয়লাভ করার পরও হুগলি জেলা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দেখা গেল শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। বস্তুত, এবারে হুগলি লোকসভা

কাটমানি নিয়ে উত্তাল তৃণমূলের পাশাপাশি বিজেপিও, মুকুল -শুভ্রাংশুর নামে পোস্টার, জোর শোরগোল রাজ্যে

লোকসভা ভোটের পর তৃণমূল নেত্রী প্রকাশ্য সভায় নেতা কর্মীদরে উদ্দেশ্যে জানিয়েছিলেন যে কাটমানি নিয়ে থাকলে ফেরত দিয়ে দাও। আর তার পরেই একের পর এক তৃণমূলের নেতা নেত্রীর বাড়িতে চড়াও হয়ে সাধারণ মানুষ কাটমানি ফেরত নিচ্ছে আবার ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে। আর তাদের মন পেতে সঙ্গ দিচ্ছে বিজেপির নেতা কর্মীরা। তারাও ক্ষোভে

ফের কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে তৃণমূল কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধে পোস্টার, জোর চাঞ্চল্য শহরে

লোকসভা নির্বাচনে 42 এ 42 এর টার্গেট পূরণ না করায় তীব্র হতাশা গ্রাস করেছিল রাজ্যের শাসকদলকে। যার পরিপ্রেক্ষিতে ফলাফল পর্যালোচনায় দুর্নীতিই প্রধান দায়ী, তা বুঝতে পেরে সেই দুর্নীতি রোধ করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত 18 ই জুন নজরুল মঞ্চে কলকাতার কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে এই ব্যাপারে

তৃণমূলের আর্থিক দুর্নীতি এখন পুরোনো, বাজার মাতিয়ে পোস্টার পড়লো বিজেপি নেতাদের নামে

লোকসভা ভোটে এবার তৃণমূলের ফলাফল খুব একটা ভাল হয়নি। 42 এ 42 এর স্লোগান দিলেও মোটে 22 টি আসন দখল করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের।অন্যদিকে বিজেপি 18 টি আসন দখল করে তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। আর এই পরিস্থিতিতে ভোটে খারাপ ফলাফলের কারণ হিসেবে দলের দুর্নীতিকেই দায়ী করেছে একাংশ। আর

Top
error: Content is protected !!