এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "pm"

মোদির সাথে বৈঠকে স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী – দলের নেতাদের বিজেপি সংস্পর্শে সো-কজ ঘিরে এবার সাবধানী তৃণমূল

দলের নেতাদের বিজেপি সংস্পর্শ ঘিরে জোর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিলো তৃণমূলের অন্দরে। জেলার তৃণমূল নেতা,জনপ্রতিনিধিরা এই নিয়ে বেজায় আশঙ্কায় ছিলেন। কখন কোন বিজেপি নেতার সাথে দেখা হয়ে যায় আর তাদেরকে সো কজের মুখে পড়তে হয়। অবশ্য এই ভয়ের কারণও আছে। তা হলো বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষের সঙ্গে মেলার অনুষ্ঠানে

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে কি বললেন মমতা! জেনে নিন

  সমগ্র দেশের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গে সংশোধিত নাগরিক আইনের বিরোধিতায় চলতে থাকা বিক্ষোভের মধ্যেই রাজভবনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে বসতে দেখা গেল পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসকে রাজনৈতিকভাবে আক্রমণ করতে শুরু করে দিয়েছে বামফ্রন্ট শিবির। বস্তুত, সমগ্র দেশে বর্তমানে ভারতীয় জনতা পার্টি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো এবং বিভিন্ন

প্রধানমন্ত্রীর বঙ্গ সফরের প্রথম দিন কি হল! জেনে নিন

  একদিকে যখন বিভিন্ন প্রকারের সরকারি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সফরে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, সেইসময় নজিরবিহীন বিক্ষোভের সাক্ষী থাকল মহানগরী। বিশেষজ্ঞদের মতে, ভূতপূর্ব সময় কোনো প্রধানমন্ত্রীর বিরোধিতায় মহানগরীতে এইরকম বিক্ষোভ চলছে কিনা, তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। বিক্ষোভের আগাম আশঙ্কায় তৎপর ছিল এসপিজি এবং কলকাতা পুলিশ সহ রাজ্য প্রশাসন।

প্রধানমন্ত্রীর কলকাতা সফর, জেনে নিন কর্মসূচি

সমগ্র দেশ জুড়ে কেন্দের সংশোধিত নাগরিক আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে। তার মধ্যে অন্যতম সংশোধিত নাগরিক আইন বিরোধী আন্দোলনের কেন্দ্র স্থলে পরিণত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। বস্তুত, বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দল সহ শিল্পী-সাহিত্যিক, বুদ্ধিজীবী থেকে শুরু করে বিভিন্ন সামাজিক সংস্থার পক্ষ থেকে বাংলা জুড়ে চলছে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি এবং সিটিজেনশিপ আমেন্ডমেন্ট অ্যাক্ট বিরোধী আন্দোলন-বিক্ষোভ,

BIG BREAKING – বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচলেন প্রধানমন্ত্রী , নরেন্দ্র মোদী

বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচলেন প্রধানমন্ত্রী , নরেন্দ্র মোদী। জানা যাচ্ছে আজ সন্ধ্যা ৭.২৫ নাগাদ তাঁর বাসভবন ৭ নম্বর লোক কল্যাণ মার্গে আগুন লাগে। কি কারণে আগুন লেগেছে তা নিয়ে শুরু জোর জল্পনা। যদিও এখনো পযন্ত হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থলে দমকলের ৯টি ইঞ্জিন পৌঁছেছে। সুরক্ষিত আছেন প্রধান মন্ত্রী। তবে এত

 এক মুখে দুই কথা, প্রথমে এনআরসির ঘোষণা, পরে এনআরসি থেকে সরে আসা! স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মন্তব্য নিয়ে তৈরি হয়েছে জল্পনা

  অনেকে বলেন, যারা রাজনীতি করেন, তাদের কথা এবং কাজের মধ্যে আকাশ-পাতাল পার্থক্য রয়েছে। তবে যখন কোনো দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশে কোনো নীতি চালু হবে, তখন নিঃসন্দেহে তা যে বাস্তব রুপ নেবে, সেই ব্যাপারে সন্দেহ থাকে না কারোরই মনে। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন লাগু হবার আগে সারাদেশে শীঘ্রই জাতীয় নাগরিকপঞ্জি চালু হবে

বাংলা থেকে এক লক্ষ চিঠি যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে, অস্বস্তিতে তৃণমূল

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন লাগু হওয়ার পর থেকেই তার চরম বিরোধিতা করে ময়দানে নেমেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলায় কোনোভাবেই এনআরসি হতে দেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। পাল্টা বিজেপির তরফে দাবি করা হচ্ছে, সারা দেশের পাশাপাশি বাংলাতেও এই এনআরসি করা হবে। যা নিয়ে তৃণমূল বনাম বিজেপির মধ্যে দড়ি টানাটানি অব্যাহত। আর এই পরিস্থিতিতে

প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে “মূর্খ ও মাথামোটা” বলে আক্রমণ হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার , জোর বিতর্ক

  বরাবরই বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে থাকতে দেখা গেছে তাকে। এবারও তার কোনরূপ ব্যতিক্রম হল না। লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে বা আগে কখনও বিরোধীদের চরম চরম ঢাক, আবার কখনো বা গুড় বাতাসা দেওয়ার কথা বলেছিলেন তিনি। আর এবার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে যখন রাস্তায় নেমেছে তৃণমূল, ঠিক তখনই প্রতিবাদের আওয়াজ

“জল রাহা হ্যায় বাঙ্গাল” – ছবি সহ স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দিল রাজ্য বিজেপি!

  সংসদে নাগরিকত্ব বিল পাস হওয়ার পরই বাংলায় বিক্ষোভের আগুন জ্বলতে শুরু করে। বিভিন্ন জায়গায় বিশেষত সংখ্যালঘু অধ্যুষিত জেলাগুলিতে বিক্ষোভকারীদের রণক্ষেত্র ভাবমূর্তি চোখে পড়ে। যেখানে কোথাও স্টেশনে আগুন ধরিয়ে দেওয়া, কোথাও বাস অবরোধ, আবার কোথাও বা টায়ার পুড়িয়ে রাস্তা অবরোধের ঘটনা ঘটে। তবে প্রথম থেকেই এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে যে

শিক্ষা দিয়েছে মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানা! এবার দ্রুত স্ট্র্যাটেজি বদলের পথে গেরুয়া শিবির?

  কথায় আছে, মানুষ ভুল থেকে শিক্ষা নেয়। বিগত দিনে একাধিক বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিশেষ করে জাতীয় স্তরের রাজনীতিতে মোদি সরকারের সফলতার উপাখ্যান করেই প্রচার করেছেন। তার সুফলও মিলেছে। তবে সম্প্রতি মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানায় নির্বাচনে দলের আশানুরূপ ফল না হওয়ায় নির্বাচনী প্রচারে স্থানীয় ইস্যুকে বেশি গুরুত্ব দিতে

Top
error: Content is protected !!