এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "pk"

2021 এর জন্য পিকে ফর্মুলা: পুরনো কর্মীদের নিয়ে নয়া ভাবনায় ভোট গুরু

  1998 সালের পয়লা জানুয়ারি তৃণমূল কংগ্রেস গঠন করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর চলেছে সুদীর্ঘ লড়াই, আন্দোলন। আর এই লড়াইয়ের পথটা কুসুমাকীর্ন ছিল না, ছিল কণ্টকাকীর্ণ। হাজরা মোড় থেকে সিঙ্গুর, নন্দীগ্রাম থেকে গড়বেতা, বিভিন্ন জায়গায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে সেই সময়ের তৃণমূলের কর্মীরা কখনও প্রাণ দিয়েছেন, আবার কখনও শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে লড়াই করে

পিকের নামে অন্য দলের সাইবার সেলের তথ্য সংগ্রহ? ঘুম উড়েছে দাপুটে তৃণমূল নেতাদের!

  লোকসভা নির্বাচনে খারাপ ফলাফলের পর তৃণমূলের রণনীতিকারের দায়িত্ব নিয়েছেন ভোটগুরু প্রশান্ত কিশোর। আর তারপরেই দিদিকে বলো কর্মসূচির মাধ্যমে গোটা তৃণমূল দলকে ময়দানে নামিয়ে দিয়েছেন তিনি। নীচুস্তর পর্যন্ত ঠিকমতো কাজ হচ্ছে কিনা, তা জানতে মাঝেমধ্যেই প্রশান্ত কিশোরের টিমের তরফ থেকে ফোন যাচ্ছে তৃণমূলের সেই সমস্ত নেতাদের কাছে। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে,

এবার তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মেটানোর দায়িত্বও টিম পিকের ঘাড়ে!

  লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের পরাজয়ের পেছনে যেমন দুর্নীতি রয়েছে, ঠিক তেমনই দলের গোষ্ঠী কোন্দলও দায়ী বলে মনে করেন একাংশ। আর উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে যাওয়ার ঘটনা খুব একটা ভালো ভাবে মেনে নিতে পারেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার পরেই দলীয় সংগঠন চাঙ্গা করতে প্রশান্ত কিশোরের মত রণনীতিকারকে নিয়োগ করেন তিনি। ইতিমধ্যেই সেই

উপনির্বাচনে ঘাসফুল ফোটাতে আসরে টিম পিকে, “ব্যতিব্যস্ত” তৃণমূলের স্থানীয় নেতারা?

  লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির পর দলকে আরও বেশি করে মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে "দিদিকে বলো" কর্মসূচি নিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। যে কর্মসূচির মূল প্ল্যানিং ছিল ভোটগুরু বলে পরিচিত প্রশান্ত কিশোরের বলে দাবি রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের। কেননা লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল 22 টি আসন পাওয়ার পরই রাজ্যজুড়ে বিজেপির ঝড় রোখবার জন্য দলের রণনীতিকার হিসেবে প্রশান্ত কিশোরকে

ক্ষমতার কত কাছে বা দূরে তৃণমূল? সরাসরি ময়দানে নেমে যাচাই করবে টীম পিকে

2019 এর লোকসভা ভোটে তৃণমূল রাজ‍্যে খুব একটা ভালো ফল করতে পারেনি। অন‍্যদিকে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি 2019 এর লোকসভা ভোটে দারুণ তাক লাগানো ফল করে। 2014 থেকে 2019 এর মধ্যে তাঁদের আসন সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় 18 তে। বিজেপির এবারের লক্ষ্য 2021 এর বিধানসভা ভোট। এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই 2019 এর

তৃণমূলকে জেতাতে এবার নয়া কর্মসূচি নিচ্ছে পি কে, জেনে নিন

লোকসভা নির্বাচনে 42 এ 42 এর ডাক দিলেও অবশেষে 22 টিতে আটকে পড়া তৃণমূল কংগ্রেস ফলাফল পর্যালোচনায় উপলব্ধি করেছে যে, তাদের জনসংযোগ ঠিকমত কার্যকর হয়নি। দলের নেতাকর্মীদের একাংশের মধ্যে সাধারণ মানুষের সঙ্গে না মেশার প্রবনতার ফলেই যে তাদের এই ফলাফলের সম্মুখীন হতে হয়েছে, তা বুঝতে পেরেই ভোটগুরু বলে পরিচিত প্রশান্ত

মমতা-পিকের যুগলবন্দিতে বিধানসভা জয়ের নীল-নকশা তৈরি, ময়দানে এখন থেকেই 600 সৈনিক

লোকসভা নির্বাচনে 42 এ 42 এর স্লোগান তুলে 22 টি আসন পাওয়ায় হতাশার সৃষ্টি হয়েছিল তৃণমূলের মধ্যে। জনসংযোগে যে ব্যাপক ত্রুটি রয়েছে এবং তার কারণেই যে এই ফলাফল, তা বুঝতে পেরে দিদিকে বলো নামে একটি কর্মসূচি চালু করে ঘাসফুল শিবির। ভোটগুরু প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনা মাফিক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই কর্মসূচি চালু

আজ তৃণমূলের কোর কমিটির বৈঠকে মমতা- পিকের দিকে তাকিয়ে ক্রমশ বাড়ছে শাসকদলের জল্পনা

পুজোর মরসুম শেষ। আর বিজয়া শেষ হওয়ার সাথে সাথেই রাজ্যের সমস্ত জেলার বিভিন্ন ব্লক, টাউন, জেলা সভাপতি সাংসদদের নিয়ে তৃণমূল ভবনে আজ বিশাল মাপের বৈঠক করতে চলেছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে বৈঠককে ঘিরে এখন রীতিমত তীব্র হচ্ছে জল্পনা। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির পর ভোটগুরু বলে পরিচিত প্রশান্ত

টীম পিকের ২৪ ঘন্টার নজরদারিতে তৃণমূল নেতারা! পান থেকে চুন খসলেই প্রশ্নবানে জেরবার!

লোকসভা ভোটে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের একটি আসনও না পাওয়া এবং সারা রাজ্যে 42 এ 42 এর স্লোগান তুলে বাইশটা আসন পাওয়া রাজ্যের শাসক দল বিমর্ষ হয়ে পড়েছিল। তারপরই দলকে জনসংযোগে পাঠাতে সারা রাজ্যের প্রতিটা জেলায় "দিদিকে বলো" কর্মসূচি গ্রহণ করে তৃণমূল। কর্মসূচির মধ্য দিয়ে প্রতিটা জেলার গুরুত্বপূর্ণ বাছাই করা নেতৃত্বদের সাধারণ মানুষের

লোকসভা ভোটে পরাজয়ের কারণ কি? খুঁজে নিয়ে মেকআপের চেষ্টা পিকের,আশায় নেতা-কর্মীরা

কন্যাশ্রী, রুপশ্রী, সবুজসাথী, খাদ্যসাথী, কিষান মান্ডি, সমব্যথী ইত্যাদি নানান রকম পরিষেবা থাকা সত্বেও এবারের লোকসভা নির্বাচনে আশা মোতাবেক ফল করতে পারেনি পশ্চিমবাংলার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। শুধু তাই নয়, রাজ্যের রাজনীতিতে অভূতপূর্ব উত্থান ঘটেছে ভারতীয় জনতা পার্টির। ভোটের আগে যখন তৃণমূলের অনেক নেতারা দাবি করছিলেন, বিজেপি দুই থেকে তিন হবে না,

Top
error: Content is protected !!