এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "mp"

বাবুল হেনস্থাকারীকে মারধরের দায়ে গ্রেপ্তার ৯, দেবাঞ্জনকে বিশেষ পুলিশি পাহারা!

বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্থার ঘটনায় বেশ কিছুদিন আগে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। আর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ঘটনার আঁচ এসে পড়েছিল রাজ্য রাজনীতিতে। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে, সেই ঘটনা ততই বাঁক নিতে শুরু করেছে। জানা যায়, বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্তার ঘটনায় যে দেবাঞ্জন বল্লভের নাম জড়িয়েছিল, এবার সেই দেবাঞ্জন বল্লভকে

বিজেপি সাংসদ-নেতাদের হাতে উদ্বোধন হওয়া পূজাগুলিকে বয়কটের পথে তৃণমূল

বাংলার এবারের শারদউৎসবে তৃণমূল না বিজেপি, কার প্রভাব বেশি থাকে তা নিয়ে প্রথম থেকেই নজর ছিল গোটা রাজনৈতিক মহলের। কেননা বাংলার হৃদয়ের সঙ্গে জড়িত এই দুর্গাপুজোকে যারা নিজেদের বাগে সবথেকে বেশি আনতে পারবে, তারাই বাংলা ও বাঙালির মনিকোঠায় স্থান পাবে বলে মনে করেছিল রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। কিন্তু বরাবরই উৎসবকে রাজনীতির রণাঙ্গনে

নাগপুরে সঙ্ঘের হেড-কোয়ার্টারে হেভিওয়েট প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ- বাড়ছে জল্পনা

রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকেই শুরু হয়েছিল বিজেপির অগ্রগমন। আর লোকসভা নির্বাচনের পরে তো গেরুয়া শিবির রীতিমত নিঃশ্বাস ফেলছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ঘাড়ে। ইতিমধ্যেই বিজেপি নেতা-নেত্রীরা হুঙ্কার দিয়ে রেখেছেন, খুব শীঘ্রই নাকি তৃণমূল কংগ্রেসে এমন ভাঙন শুরু হবে যে, রাজ্য সরকার তার নির্দিষ্ট ২০২১ পর্যন্ত সময়কাল অতিবাহিত করতে পারবে না। আর

2021 নয় বাংলায় বিধানসভা ভোট হতে চলেছে 2020 তেই – জানালেন বিজেপি সাংসদ, জোর জল্পনা

বরাবরই ভারতীয় জনতা পার্টির নেত্রী লকেট চ্যাটার্জি সরকার বিরোধী বক্তব্য যথেষ্ট খোলাখুলিভাবেই করেছেন। গান্ধী জন্মদিনে গান্ধী মূর্তিতে মালা দিতে গিয়ে তিনি নরেন্দ্র মোদির স্বচ্ছতা অভিযানকে আরেকবার মনে করালেন। রাস্তা-ঘাট ঝাঁট দিয়ে পরিষ্কার করে গান্ধী মূর্তিকে জল দিয়ে ধুয়ে তিনি মালা পড়ালেন। গান্ধী মূর্তিতে মালা পরানোর সাথে সাথেই বিজেপি নেত্রী মুখর

এই হেভিওয়েট সাংসদের সঙ্গে কি ক্রমশ দূরত্ব বাড়ছে বঙ্গ-বিজেপির! তীব্র হচ্ছে জল্পনা

একসময় পদ্ম শিবিরে যোগ দিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মহিলা বাহিনীর নেতৃত্ব দিয়ে রাজ্য সরকারের অস্বস্তিকে অনেকটাই বাড়িয়ে দিতে সক্ষম হয়েছিলেন তিনি। বঙ্গ বিজেপি তরফেও তাকে "প্রতিবাদী" হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বেশ কিছুদিন আগে থেকেই তাকে আর বিজেপির প্রথম সারিতে দেখা যাচ্ছে না। মানুষ হারিয়ে গেলেও তার হারিয়ে যাওয়া নিয়ে একটা

বিজেপি সাংসদের খাসতালুকে হেভিওয়েট দলীয় নেতার বাড়িতে ভাংচুর-বোমাবাজি, তীব্র চাঞ্চল্য!

লোকসভা নির্বাচনের আগে থেকেই ব্যাপক রাজনৈতিক সংঘর্ষ উত্তেজনা ছড়াতে দেখা গেছে কোচবিহার জেলার বিভিন্ন অংশে। আর নির্বাচনের পর বিজেপি সেখানে জয়লাভ করলে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে মাঝেমধ্যেই উত্তপ্ত হয় কোচবিহার। তবে মাঝে তা কিছুদিন বন্ধ থাকায় অনেকেই আশ্বস্ত হয়েছিলেন। কিন্তু এবার ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল কোচবিহার। সূত্রের খবর, কোচবিহারের সংসদ সদস্য নিশীথ প্রামাণিকের

সংসদীয় রাজনীতিতে বড়সড় গুরুত্ত্ব বাড়ল বাংলার ৯ বিজেপি সাংসদের – জানুন বিস্তারিত

২০১৪ সালে গোটা দেশজুড়ে প্রবল মোদী ঝড় চললেও, বাংলায় 'দিদি-ঝড়ের' সামনে পরে মাত্র ২ টি আসন নিয়েই তাদের সন্তুষ্ট থাকতে হয়। কিন্তু বিগত পাঁচ বছরে বাংলার রাজনৈতিক সমীকরণে বহু পরিবর্তন হয়ে গেছে। সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে গেরুয়া শিবির নিজেদের সাংসদ সংখ্যা ২ থেকে বাড়িয়ে ১৮ করে নিয়েছে। শুধু তাই নয়, আসন

কাননের পর বিজেপিতে আসতে চাইছেন দিদির আরেক ঘনিষ্ঠ ভাই এমনটাই দাবি বিজেপি সাংসদের – জেনে নিন বিস্তারিত

খুব বেশিদিন হয়নি বিজেপিতে যোগদান করেছেন মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ কানন ওরফে শোভন চট্টোপাধ্যায়। দলে যোগদান করেই শোভন চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, তৃণমূল দলে কাজের পরিবেশ নেই। তাই তিনি সরে গিয়েছেন। এবার আরো একজনের নাম উঠলো মমতা ব্যানার্জির পাশ থেকে সরে যাওয়ার, মুখ্যমন্ত্রীর একান্ত অনুগত কেষ্ট ওরফে অনুব্রত মন্ডল। অনুব্রতের গড়ে দাঁড়িয়েই এই কথা

তৃণমূল নেতাদের ‘টাকা চোর’ থেকে জেলাশাসককে শাসকদলের ‘জেলা সভাপতি’ বিস্ফোরক বিজেপি সাংসদ – জেনে নিন বিস্তারিত

রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ তুলে তাদের রীতিমতো কোণঠাসা করে ফেলেছে। এবার বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ মুখ খুললেন তৃণমূল শাসকের বিরুদ্ধে। কয়লা খনি থেকে কয়লা উত্তোলনের জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছিল বাঁকুড়ার বড়জোড়া বাগুলিয়াতে। অন্যদিকে, কয়লা উত্তোলনের জন্য মাটির নিচে যে বিস্ফোরণ

হেভিওয়েট বিজেপি সাংসদের গনআন্দোলনের জেরে এবার কাজ বন্ধ করে চলে যাওয়ার হুমকি খনি সংস্থার

কয়লা নিয়ে শাসক-বিরোধী তরজা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে নতুন কিছু নয়। দীর্ঘদিন ধরেই অবৈধ কয়লা খাদানের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিল বিরোধীদলগুলো। সরকারের বিরুদ্ধে একাধিকবার অভিযোগ করতে দেখা যায় ভারতীয় জনতা পার্টিকে। আর এবার সাংসদ সৌমিত্র খার নেতৃত্বে ফের ব্যাহত হয় কয়লা উত্তোলনের কাজ। আর এলাকাবাসীর আন্দোলনের জেরে উৎপাদন শুরু হয়নি বড়জোড়া ট্রান্সদামোদর কয়লা

Top
error: Content is protected !!