এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "mp"

বিজেপি সাংসদ আর তৃণমূলের সাংসদ – দুজনের দুই আচরণে হতবাক সকলে, জানুন বিস্তারিত

  একজন তৃণমূল সাংসদ, অপরজন বিজেপির সাংসদ। কিন্তু সংবিধান দিবসের পূর্তি অনুষ্ঠানে তারা দুজনেই যে ঘটনা ঘটিয়ে দিলেন, তা দেখে রীতিমতো হতবাক রাজনৈতিক মহল। এদিন সংসদে সংবিধান দিবস পূর্তি উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ চলছিল। তবে এদিন এই সংবিধান দিবসকে হাতিয়ার করেই বিরোধীরা কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপিকে কোণঠাসা করতে তৎপর হয়েছিল। সেই মত সকাল দশটার

তবে কি বিজেপি ছাড়লেন এই সাংসদ? পদক্ষেপ ঘিরে জোর জল্পনা

  এ যেন এক অভিনব ঘটনা ঘটে গেল লোকসভা চত্বরে। আর যে ঘটনা দেখে প্রায় প্রত্যেকেই হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন। অনেকের মনেই বাসা বেঁধেছিল নানা জল্পনা। প্রকাশ করতে না পারলেও এই ঘটনা দেখে অনেকে বলেছিলেন, মালদহে বিজেপির যতটুকুও বা শক্তির উত্থান ঘটেছিল, তাও হয়ত বা শেষ হতে চলেছে। কিন্তু কী সেই ঘটনা? বস্তুত,

অযোধ্যা নিয়ে বিস্ফোরক বিজেপি সাংসদ, জানুন বিস্তারিত

  ভগবান রামকে নিয়ে বিজেপি সব সময় রাজনীতি করে বলে অভিযোগ বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর। বাংলার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা নেত্রীরা বিভিন্ন সময়ে বিজেপির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলে সরব হন। আর এবার পুরুলিয়ার বিজেপি সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং মাহাতোর একটি চিঠি সেই বিতর্ককে আরও বাড়িয়ে দিল। সূত্রের খবর, রাজ্য সরকার তার নিজের

“এনআরসি নিয়ে ভয় দেখালে ঝাঁটা মেরে বিদায় করবেন” বিস্ফোরক হেভিওয়েট তৃণমূল সাংসদ

  লোকসভা নির্বাচনে যখন তিনি প্রার্থী হয়েছিলেন, তখন থেকেই তিনি আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন। পরবর্তীতে বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকে রেকর্ড ভোটে জয়লাভ করেছিলেন তিনি। হ্যাঁ ঠিকই ধরেছেন, তিনি আর কেউ নন, তৃণমূলের অভিনেত্রী সাংসদ নুসরাত জাহান। সম্প্রতি তাকে নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছিল। নিখিল জৈনকে বিবাহ করা থেকে শুরু করে, বুলবুল ঝড়ের

“প্রদীপ সরকারকে ভোট নয়” কেন এমনটা বললেন তৃণমূল সাংসদ! জেনে নিন

হাতে আর মাত্র 3 দিন বাকি। তারপরেই রাজ্যের 3 কেন্দ্রের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। করিমপুর, কালিয়াগঞ্জ এবং খড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে সবথেকে হেভিওয়েট কেন্দ্র বলে পরিচিত এই খড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্র। 2016 সালে এই কেন্দ্রে পদ্মফুল ফুটিয়ে বিধানসভায় গিয়েছিলেন বিজেপির দিলীপ ঘোষ। লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ভালো ফলাফল করার পর এবার তারা এই

  তিনবারের তৃণমূল হেভিওয়েট সাংসদের বিদেশযাত্রা আটকে দিল কেন্দ্র! শুরু তীব্র বিতর্ক

  শুরু হয়েছে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন। প্রথম দিন থেকেই বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রকে চেপে ধরেছে তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদরা। আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা চেয়ে রাজ্যসভায় নোটিশ জমা দিতে দেখা গেছে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েনকে। যেখানে অন্যান্য বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর তরফে সমর্থন করা হয়েছে। একইভাবে নোটবন্দির জন্য দেশের অর্থনৈতিক দুরবস্থা ঠিক কোন জায়গায়

রাজ্যপালকে তৃণমূল কেন “ভয়” পাচ্ছে, সংসদে দাঁড়িয়ে “ফাঁস” করে দিলেন দিলীপ ঘোষ!

  অবশেষে আশঙ্কাই সত্যি হল। রাজ্য বনাম রাজ্যপালের সম্পর্কের তিক্ততার ঘটনা এবার পৌঁছে গেল লোকসভা এবং রাজ্যসভার অন্দরমহলে। যে ঘটনা এতদিন রাজ্য রাজনীতিকে উত্তপ্ত করেছিল, এবার সেই ঘটনা উত্তপ্ত করে দিল জাতীয় রাজনীতিকেও। বস্তুত, রাজ্যের রাজ্যপাল হিসেবে জাগদীপ ধনকার দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন ইস্যুতে সরকারের সঙ্গে তার দূরত্ব বাড়তে শুরু করে।

এবার তৃণমূল সাংসদের সমর্থন ছিনিয়ে নিতে তাঁদের বাড়ি বাড়ি যাবে গেরুয়া শিবিরের একাংশ!

  2019 সালের সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে সারাদেশে যেমন মোদি ঝড় বয়ে গিয়েছে, ঠিক তেমনই বাংলাতেও সেই ঝড় প্রত্যক্ষ করা গেছে। তৃণমূলের চিন্তা বাড়িয়ে দিয়ে আঠারোটি আসন নিজেদের দখলে নিয়েছে গেরুয়া শিবির। আর তারপর বাংলায় 22 টি আসন পাওয়া তৃণমূল কিভাবে নিজেদের সমর্থন ফিরে পাবে, তা নিয়ে নানা চেষ্টা চালাচ্ছে। আর

BIG BREAKING -গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি নুসরত জাহান

এবার বিস্ফোরক খবর সামনে এলো। গুরুতর অসুস্থ হয়ে বাইপাস লাগোয়া একটি হাসপাতালে ভর্তি নুসরত জাহান। এর এই অসুস্থতা ঘিরেই শুরু হয়েছে জোর জল্পনা। কোলকাতার এক জনপ্রিয় প্রথম শ্রেণীর সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত খবর অনুযায়ী একসঙ্গে অনেক ওষুধ খেয়ে নেওয়ার কারণেই বসিরহাটের সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত অসুস্থ হয়ে পড়েন। আর সেগুলি মূলত ঘুমের ওষুধ। এই

এবার রাজ্য সরকারের সঙ্গে রাজ্যপালের বিরোধ সংসদে তুলতে চলেছে তৃণমূল! বাড়ছে জল্পনা

  জাগদীপ ধনকার বাংলার রাজ্যপাল হওয়ার পর থেকেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে তার বিভিন্ন ক্ষেত্রে দূরত্ব তৈরি হয়েছে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে জিয়াগঞ্জের ঘটনা, দুর্গাপুজোর কার্নিভাল থেকে শুরু করে প্রশাসনিক বৈঠক, বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে শোরগোল তুলে দিয়েছিলেন তিনি। যার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময়ে সেই রাজ্যপালকে "পদ্মপাল"

Top
error: Content is protected !!