এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "minister"

মিটছে দূরত্ব? ফিরছেন তৃণমূলে? ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে বয়ান দিয়ে জল্পনা তীব্র করলেন প্রাক্তন সাংসদ!

এনআরসি - র প্রতিবাদে মতুয়াদের ধরনায় দেখা মিলছে না মমতাবালা ঠাকুরের, আর এই নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক যা নিয়েই জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিলো রাজ্য জুড়ে। তিনি বলেছিলেন "কে এল, কে এল না, তাতে কিছু যায় আসে না। মতুয়া কোনও পরিবারের না। উনি আসবেন, আসবেন না, ওনার ব্যাপার। উনি

শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে বিস্ফোরক বর্তমান দমকল মন্ত্রী, জোর চাঞ্চল্য

  বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠতার কারণে সেই শোভনবাবুর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এককালে দিদি অন্তপ্রাণ শোভন চট্টোপাধ্যায়কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অত্যন্ত স্নেহ করতেন। স্নেহের পর্যায়ে এমন মাত্রায় চলে গিয়েছিল যে, কলকাতা পৌরসভার মেয়র পদের পাশাপাশি বিধায়ক, এবং রাজ্যের দমকল, পরিবেশ ও আবাসন দপ্তরের মন্ত্রীত্ব শোভন চট্টোপাধ্যায়ের কাঁধেই

বাংলায় মিম – ভাঙবে সংখ্যালঘু ভোটব্যাংক, সুবিধা হবে বিজেপির! মানছেন রাজ্যের দাপুটে মন্ত্রী

  2011 সালে রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস। প্রায় প্রতিটি নির্বাচনেই সংখ্যালঘুদের বেশিরভাগ সমর্থন তৃণমূলের দিকে গেছে বলে দাবি রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। এমনকি সদ্যসমাপ্ত রাজ্যের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির আসন পেলেও তৃণমূলের 22 টি আসন পাওয়ার পেছনে সেই সংখ্যালঘুদের সমর্থন রয়েছে। শুধু তাই নয়, লোকসভায়

বিধানসভায় মন নেই শাসকদলের মন্ত্রী- বিধায়কদের! চূড়ান্ত হতাশ স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়!

  রাজ্যে প্রতিবছর স্কুল-কলেজগুলোতে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে গণতান্ত্রিক ভাবধারার প্রয়োগ ঘটাতে আয়োজিত করা হয় যুব সংসদ প্রতিযোগিতা। যেখানে সরকারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, এই প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে রাজ্যের নতুন প্রজন্মকে রাজনীতিতে নামানো এবং বিধানসভার নিয়মকানুন সম্পর্কে অবগত করানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু যদি বাস্তবে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় শাসকদলের বিধায়কদের গতিপ্রকৃতি ঠিক না থাকে,

আট বছর শাসন চালিয়ে এখনও পার্শ্বশিক্ষকদের হালের জন্য বাম আমলকেই হাতিয়ার শিক্ষামন্ত্রীর!

  বেশ কিছুদিন হয়ে গেল, রাজ্যে পার্শ্ব শিক্ষকদের অনশন চলছে। প্রচুর পার্শ্বশিক্ষক এবং শিক্ষিকা সেই অনশনে যোগ দিয়েছেন। বিরোধী সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি থেকে শুরু করে বিভিন্ন শিক্ষামূলক সংস্থাগুলো সেই পার্শ্ব শিক্ষকদের অনশন মঞ্চে গিয়ে তাদের পাশে দাঁড়ানো বার্তা দিলেও এখনও পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে কোনো সদর্থক বার্তা মেলেনি। যা নিয়ে

অস্বস্তিতে রাজ্য সরকার, জেলা সফরে মন্ত্রীমশাই

  ক্ষমতায় আসার পর থেকেই গ্রাম পঞ্চায়েতের 100 দিনের কাজে জোর দিতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যের বর্তমান তৃণমূল কংগ্রেসের সরকারকে। প্রায় প্রত্যেক বছরই 100 দিনের কাজে বাংলার সেরা সেরা হয়ে উঠেছে বলে দাবি করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এবার সেই 100 দিনের কাজে বড়সড় ধাক্কা খেল রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, শুক্রবার পর্যন্ত রাজ্যের 100

চেষ্টাই সার, এবার রাজ্যের হেভিওয়েট দুই মন্ত্রীর সামনে এনআরসি আতঙ্ক, চাপে শাসকদল

  অসমে এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের পর সেখানে অনেক হিন্দুর নাম বাদ গিয়েছে বলে দাবি করতে দেখা যায় বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে। আর অসমের পর বাংলাতেও এনআরসি করা হবে বলে মাঝেমধ্যেই বিজেপি নেতাদের মন্তব্যে প্রবল জল্পনা ছড়িয়ে পড়ে। তবে প্রথম থেকেই এইসব মন্তব্যে কান না দিয়ে তিনি থাকতে বাংলায় কোনো এনআরসি হতে

দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে ছেড়ে না যাওয়ার জন্য কাতর আবেদন মন্ত্রীর, জেনে নিন

  লোকসভা নির্বাচনে 42 এ 42 এর স্লোগান তুলে 22 টি আসন দখল করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। যেখানে বিজেপি 18 টি আসন দখল করে তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে‌। আর এই পরিস্থিতিতে লোকসভায় তৃণমূলের ফলাফল খারাপ হওয়ার পর প্রশান্ত কিশোর "দিদিকে বলো" কর্মসূচি দিয়ে গোটা তৃণমূল দলের নেতা, মন্ত্রীদের ময়দানে নামিয়ে

“ছাত্রদরদী” হয়ে বার্তা শিক্ষামন্ত্রীর! পাল্টা দিলেন আন্দোলনকারী পার্শ্বশিক্ষকরা

প্রায় অনেকদিন হয়ে গেল পার্শ্বশিক্ষকরা অবস্থানে বসে রয়েছেন। তবুও সরকারের পক্ষ থেকে তাদের প্রতি কোনো সবুজসংকেত আসতে দেখা যায়নি। যার ফলে সেই পার্শ্বশিক্ষকদের মনে তৈরি হয়েছে অসন্তোষ। তাদের দাবি-দাওয়া না মিটলে বা সরকার তাদের সঙ্গে আলোচনায় না বসলে তার আমরন অনশন চালিয়ে যাবেন বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সেই শিক্ষক সমাজের প্রতিনিধিরা। এরপরেও

পুলিশকে হুমকি হেভিওয়েট মন্ত্রীর, প্রবল অস্বস্তিতে রাজ্য প্রশাসন

  যে দল যখন ক্ষমতায় আসে, তখন তারা পুলিশকে পায়ের ভৃত্য করে রাখে বলে দাবি করতে দেখা যায় সমালোচক মহলকে। ক্ষমতায় বসা রাজনৈতিক দল রাজ্যে আইনের শাসন রয়েছে বলে যতই বড়াই করুক না কেন, মসনদে বসার পর তাদের অনেক ক্ষেত্রেই পাল্টে যেতে দেখা যায়। আর এবার পুলিশ আধিকারিককে এক মন্ত্রীর হুমকি

Top
error: Content is protected !!