এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "mamata"

জেলার শীর্ষনেতা- নেত্রীদের মধ্যে যোজন দূরত্ব! মেটাতে পারবেন মমতা? তাকিয়ে সব পক্ষই!

  গনি খানের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ছিল মালদহ। প্রবল সিপিএমের দাপট থাকা সত্ত্বেও এখানে কংগ্রেসের সাফল্য রুখতে পারেনি কেউ। তবে সেই সিপিএমকে কুপোকাত করে 2011 সালে রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতা দখল করার পর মালদহে অস্তিত্ব জানান দিতে শুরু করে ঘাসফুল শিবির। প্রথম দফায় বেশকিছু বিধায়ক এই মালদা থেকে তৃণমূল পেলেও তারপর

মোদির পরে মমতার কাছে ফোন এলো অমিত শাহের

  ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এবার যেন মিলিয়ে দিল রাজ্য এবং কেন্দ্রকে। ভয়ঙ্কর এই ঘূর্ণিঝড় নিয়ে শুক্রবার থেকেই চিন্তিত ছিল রাজ্য প্রশাসন। বিভিন্ন জেলা প্রশাসনকে সতর্ক থাকার পাশাপাশি ত্রাণ মজুত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কোনো মানুষ যাতে বিপদে না পরেন, তার জন্য নজর রেখেছিলেন সকলেই। শনিবার রাতভর নবান্নের কন্ট্রোলরুম থেকে গোটা রাজ্যের বিভিন্ন

মমতাকে ফোন মোদির, জেনে নিন কারণ

কারও চিরশত্রু যদি কাউকে ফোন করে, তাহলে তা নিঃসন্দেহে জল্পনা বাড়িয়ে দেয়। রাজনীতির ক্ষেত্রে অবশ্য "চিরশত্রু" নামক বিষয়টা সর্বকাল স্থায়ী নয়। কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপটে যদি সরাসরি ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ফোন করেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে! ব্যাপারটি কেমন হবে? এক লহমায় পেশাদার রাজনীতিবিদেরা এই কথা শুনে চমকে উঠবেন। কিন্তু চমকে

বাংলা দখল করতে এই অন্যায় পদক্ষেপ নিয়েছে কেন্দ্র সরকার, বড়সড় অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর

  2014 সালে বিজেপি সরকার আসার পর এবং নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই বারে বারে বাক স্বাধীনতা হরণ হচ্ছে বলে মন্তব্য করতে দেখা গেছে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। অতীতে তিনি কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ফোনে আড়িপাতার অভিযোগও তুলেছেন। আর এবার ফের এই ব্যাপারে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, শনিবার

এনআরসির হাত ধরেই কি উত্তরবঙ্গে ঘুরে দাঁড়াবে তৃণমূল? জল্পনা বাড়ালেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী

  কিছুদিন আগেই হয়ে গিয়েছে লোকসভা নির্বাচন। যে নির্বাচনে উত্তরবঙ্গের আটটি লোকসভা আসনের মধ্যে সাতটিতেই পরাস্ত হয়েছে ঘাসফুল শিবির। যেখানে জয়লাভ করেছে বিজেপি প্রার্থীরা। আর উত্তরবঙ্গে একসময় তৃণমূলের রমরমা বাজার থাকলেও লোকসভা নির্বাচনে সেইখানে তৃণমূল ব্যাপক ধাক্কা খাওয়ায় চিন্তার ভাঁজ পড়েছিল তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কপালে। লোকসভা নির্বাচনের পর এখন বেশ কিছু

এবার কি মোদী-মমতা একমঞ্চে? জল্পনা তীব্র করছে কলকাতা বন্দর – জানুন বিস্তারিত

এবার কি কলকাতা বন্দরই মিলিয়ে দেবে নরেন্দ্র মোদি এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে! লোকসভা নির্বাচনে যখন রাজ্যে আসতেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, তখন রাজনীতিতে তাঁর অত্যন্ত বিরোধী বলে পরিচিত রাজ্যের শাসক দলের সুপ্রিমো মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করে সোরগোল তুলতেন তিনি। একইভাবে বিরোধী মহাজোট গঠন করার ডাক দিয়ে বিভিন্ন রাজ্যে গিয়ে সেই নরেন্দ্র

পুরসভা ধরে রাখতে নয়া উদ্যোগ নিল তৃণমূল, কটাক্ষ বিজেপির

লোকসভা ভোটে বিপর্যয়ের পর দলকে জনসংযোগে বাঁধতে মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। "দিদিকে বলো" প্রকল্প করে গোটা তৃণমূল দলকেই সাধারণ মানুষের সঙ্গে মেশবার পরামর্শ দিয়েছিলেন তিনি। সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে দেখা গেছে, তৃণমূল যে সমস্ত পুরসভা বা বিধানসভা দখল করেছে, সেই সমস্ত পৌরসভা বা বিধানসভাতেও তাদের হার হয়েছে। কিন্তু সামনে

বিজেপি যোগের জল্পনার মাঝেই মমতাকে বড়সড় বার্তা দিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, জেনে নিন

একদিকে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নোবেল জয়, আর অন্যদিকে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিসিসিআইয়ের সভাপতি হওয়া - দুই বাঙালির সাফল্যে এখন গর্ববোধ করছে গোটা বাংলা। ইতিমধ্যেই অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি তাঁর বাড়িতে গিয়ে তার মায়ের সঙ্গে কথা বলে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিসিসিআইয়ের সভাপতি হওয়া নিয়ে যত দিন যাচ্ছে,

নোবেলজয়ীর বাড়িতে মুখ্যমন্ত্রী, কী বার্তা দিলেন

অমর্ত্য সেনের পর অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন বঙ্গসন্তান অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। যে ঘটনায় গোটা বাংলা উচ্ছাস ও আবেগে মেতে উঠতে শুরু করেছে। অভিজিতবাবুর নোবেল জয়ের খবর শুনেই তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে শুধু শুভেচ্ছা জানানোই নয়, এবার সটান সেই অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় এর হিন্দুস্থানের বাড়িতে পৌঁছে গেলেন

শ্রমিকদের দাবি নিয়ে আমরণ অনশনে মমতা-ঘনিষ্ঠ হেভিওয়েট নেতা

পাহাড়ে বিমল গুরুংকে দমাতে তাঁকেই হাতিয়ার করেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। কিন্তু এবার সেই ব্যক্তিই পাহাড়ের চা-বাগানের শ্রমিকদের কুড়ি শতাংশ বোনাসের দাবিতে আমরণ অনশনে বসতে চলেছেন। তিনি আর কেউ নন, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রধান বিনয় তামাং। জানা গেছে, ইতিমধ্যেই তরাই এবং ডুয়ার্সের শ্রমিকদের বোনাস হয়েছে। কিন্তু শৈল শহরের প্রায় 87 টি

Top
error: Content is protected !!