এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "mahuya moitra"

তৃণমূলের অন্দর থেকে রাজনীতির মঞ্চে ফের অভিষেকের হঠাৎ ‘উত্তরণ’ , চর্চা সবমহলে

দুদিনের সফরে কলকাতায় এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর এর পরে মোদীর বিভিন্ন বক্তব্যের জবাব দিতে হঠাৎ '' উত্তরণ '' ঘটলো অভিষেকের। জানা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিভিন্ন বক্তব্যের জবাব দিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে এনে দলের তরফে তাঁর বিবৃতি প্রকাশ করেছে তৃণমূল। সেখানে অভিষেক বলেছেন, ''প্রধানমন্ত্রী অনেক কথা বলেছেন ঠিকই গুরুত্বপূর্ণ

ভবিষ্যতের রাজনীতির গতি-প্রকৃতি নির্ধারণের তালিকায় তৃণমূলের মহুয়া, প্রশান্ত কিশোর ! উচ্ছ্বসিত শাসক দল

যে সমস্ত মানুষেরা ক্যামেরার বাইরে থেকে কাজ করেন, তারাই প্রকৃত মানুষ। সেক্ষেত্রে তাদের নীতিই হল, কথা কম কাজ বেশি। সাময়িক ভাবে বেশি কথা বলা মানুষেরা সাফল্য পেলেও, শেষ পর্যন্ত শেষ হাসি হাসেন কথা না বলে আড়ালে কাজ করে যাওয়া মানুষেরা। এবার হয়ত ঠিক এমনটাই হল, তৃণমূলের রননীতিকার তথা ভোটগুরু প্রশান্ত

দিল্লিতে বড় জয় মহুয়া মৈত্রের! তাঁর মামলার চাপেই সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে বড়সড় পদক্ষেপ কেন্দ্রের

  কেন্দ্রে মোদি সরকার সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের ওপর নজরদারি রাখতে বলে অনেকদিন ধরেই অভিযোগ করতে দেখা যেত তৃণমূল কংগ্রেসকে। সংসদের ভেতরে এবং বাইরে এই নিয়ে বহুবার সরব হতে দেখা গেছে রাজ্যের শাসক দলকে। আর এবার এই ব্যাপারে কেন্দ্রের মোদি সরকারকে কার্যত পিছু হটতে বাধ্য করলেন কৃষ্ণনগরের তৃণমূল সাংসদ মহুয়া

বিজেপির মুকুলের সঙ্গে লড়াই তৃণমূলের মহুয়ার! কে জিতবে! জোর জল্পনা

  আগামী 25 নভেম্বর করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন। বস্তুত, 2016 সালে এই কেন্দ্রে তৃণমূলের হয়ে জয়লাভ করেছিলেন মহুয়া মৈত্র। তারপর যতদিন গিয়েছে, ততই সেখানে নিজের ইমেজ বাড়াতে সক্ষম হয়েছেন তিনি। তবে লোকসভা নির্বাচনে সেই মহুয়া মৈত্র কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্র থেকে সাংসদ হয়ে যাওয়ায় তার ছেড়ে যাওয়া এই কেন্দ্রে উপনির্বাচন হচ্ছে। লোকসভায় বিজেপির

লোকসভায় চূড়ান্ত সফল “মহুয়া মডেল” দিয়েই উপনির্বাচনে বাজিমাত করার পরিকল্পনায় ঘাসফুল শিবির

  সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল অনেক আসন হারালেও কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্র তাদের দখলেই ছিল। যেখানে তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেছেন মহুয়া মৈত্র। জানা যায়, তিনি নিজের ক্যাপাবিলিটিতেই বিভিন্ন জায়গায় সমীক্ষা করে নিজের জয় নিশ্চিত করেছিলেন। তবে মহুয়াদেবীর কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রে এবার উপনির্বাচন হওয়ায় তিনি ফের "ওয়ার রুম" তৈরি

করিমপুরে মনোনয়ন দিয়ে তৃনমূলের হুঙ্কার – গতবারের থেকে লিড বাড়বে

  নির্বাচন ঘোষনার আগে নানা জল্পনা কল্পনা চললেও এবার করিমপুর বিধানসভায় চমক দেখাল তৃনমূল কংগ্রেস। 39 বছর পর গত 2016 সালে মহুয়া মৈত্র দাঁড়িয়ে এই বিধানসভা কেন্দ্রে তৃনমূলের জয়লাভ নিশ্চিত করেন। কিন্তু মহুয়াদেবী সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রে জয়লাভ করায় তার ছেড়ে যাওয়া এই করিমপুরে উপনির্বাচন হচ্ছে। প্রথম থেকেই এই কেন্দ্র

মহুয়া মৈত্র থেকে রিক্তা কুন্ডু! শাসকদলের অস্বস্তি নদীয়াতে ক্রমশই বাড়ছে, টের পেলেন পর্যবেক্ষক

2019 সালের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে আশানুরুপ ফল করতে পারেনি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। আর বিরোধী দলের নেতা তথা বঙ্গ বিজেপির চানক্য মুকুল রায় ঘোষণা করেছিলেন 19 সালের নির্বাচনের পর প্রকাশিত হওয়ার পরই ঝাকে ঝাকে তৃণমূল নেতা দল পরিবর্তন করে ভারতীয় জনতা পার্টির মধ্যে শামিল হয়ে যাবে। তারপরে কথা

কে দেবশ্রীকে নিয়ে গিয়েছিলেন দিল্লিতে?দিলীপ ঘোষ সামনে নিয়ে এলেন নতুন তত্ত্ব – জল্পনা ক্রমশ বাড়ছেই

রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে বর্তমানে তীব্র নাটকীয়তা শুরু হয়েছে বঙ্গ রাজনীতিতে। বর্তমানে দেবশ্রী রায়কে নিয়ে চরমে উঠেছে বাংলার দুই সাংসদের বাদানুবাদ। সম্প্রতি রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়কের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ তথা বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, "মহুয়া মৈত্রের আবেদনে

দিলীপ ঘোষের দাবি নিয়ে এবার মুখ খুললেন পার্থ চট্টোপাধ্যায, জেনে নিন কি বলেন তিনি

রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায় যেন একে একে ফাসিয়ে দিচ্ছেন তৃণমূলের অনেককেই। এবার দেবশ্রী রায়ের সঙ্গে তার কথোপকথন নিয়ে মহুয়া মৈত্রর অনুরোধেই তিনি দেবশ্রীদেবীর সঙ্গে দেখা করেছিলেন বলে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন বিজেপি সাংসদ তথা রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার দিলীপ ঘোষের সল্টলেকের বাড়িতে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা

দাবি সত্যি নাকি সন্দেহের বীজ বুনতেই মাস্টার স্ট্রোক দিলেন দিলীপ ঘোষ জল্পনা

রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সর্বদাই বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য সংবাদ শিরোনামে থাকেন। কখনো প্রকাশ্য সভায় পুলিশকে মারধর করার হুমকি কিংবা শাসকদলের নেতাকর্মীদেরকে হুঁশিয়ারি সবকিছুই তাকে কর্মীদের আরো কাছাকাছি নিয়ে এসেছে। শুধু এটাই নয় রসিকতা করতে তিনি পিছপা হন না।মুকুল রায়কে চাটনি বলে সম্বোধন করা, কয়েকদিন আগেই তার দলে যোগ দেওয়া শোভন বাবু

Top
error: Content is protected !!