এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "loksbha vote"

এবার ছাত্র সমাবেশে জেলা নেতাদের জমায়েত করানোর লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিল তৃণমূল, জেনে নিন

কিছুদিন আগেই তৃণমূলের শহীদ সমাবেশ একুশে জুলাই সমাপ্ত হয়েছে। লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে সেই একুশে জুলাই উত্তরবঙ্গ থেকে খুব একটা ভালো জনসমাগম করতে পারেনি শাসকদল। তবে এবার একুশে জুলাই যেতে না যেতেই তৃণমূলের ছাত্র সংগঠন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের আগামী 28 আগস্ট প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মেয়ো রোডে ছাত্র সমাবেশকে বড় আকার

বড়সড় স্বস্তি পেলেন বিজেপি সাংসদ, জেনে নিন

লোকসভা নির্বাচনের আগেই বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন। আর এরপরই তার বিরুদ্ধে টাকা দিয়ে চাকরি দেওয়ার অভিযোগে মামলা দায়ের হয়। এদিকে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পরই সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে সেই বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি থেকে প্রার্থী হন সৌমিত্র খাঁ। তবে প্রার্থী হয়েও এলাকায় প্রচার

মুকুলকে বড়সড় ধাক্কা মমতার, হারানো জমি পুনরুদ্ধার

"রাজনীতিতে এক দলে থেকে কেউ কখনও লাভ করতে পারে না" বলে বিশিষ্ট হাস্যকর অভিনেতা ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় তার একটি সিনেমায় সেই কথা তুলে ধরেছিলেন। বর্তমানে লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে দলবদলের সেই চূড়ান্ত নিদর্শন চোখে পড়ছে বঙ্গ রাজনীতিতেও। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনে এবার তৃণমূল 22 এবং বিজেপি এক ধাক্কায় 18 আসন নিজেদের দখলে রেখেছে।

লোকসভা ভোটের বিপর্যয় থেকে শিক্ষা নিয়ে কি এবার ফের সিপিআইএম কংগ্রেসের জোট হচ্ছে রাজ্যে, জোর জল্পনা

গত 2016 সালে বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তারা উভয়ই জোট করেছিল। কিন্তু সেই ভাবে তারা তেমন কোনো সাফল্য না পেলেও এই জোট যে খুব একটা খারাপ সাড়া দেয়নি, তা নিয়ে নানা আলোচনাও হয়েছিল। আর সেইমতো সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনেও বাংলায় শাসক দল তৃণমূল ও বিরোধী দল বিজেপির বাড়বাড়ন্তের রুখতে তৃতীয়

বনগাঁ উত্তরের তৃণমূল বিধায়ক বিজেপিতে, প্রতিবাদে প্ল্যাকার্ড হাতে ধিক্কার মিছিল বিজেপি কর্মীদের

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবির পরই একের পর এক জনপ্রতিনিধি বিজেপিতে যোগ দিতে শুরু করেন। তৃণমূল কাউন্সিলর, বিধায়ক, নেতারা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখালে তীব্র অস্বস্তিতে পড়ে ঘাসফুল শিবির। গত মঙ্গলবার বিকেলে দিল্লিতে গিয়ে বনগাঁ উত্তরের বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস এবং বনগাঁ পৌরসভা কাউন্সিলর পদ্ম শিবিরে নাম লেখান। কিন্তু বিশ্বজিৎবাবু এবং তৃণমূলের কাউন্সিলররা

হারানো জমি পুনরুদ্ধারে জেলা সাংগঠনিক স্তরে রদবদল শাসকদলের

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান দিলেও বাস্তবে তার স্বপ্ন পূরণ হয়নি। উল্টে বিজেপি 2 থেকে তাদের আসনসংখ্যা 18 করে নিয়ে শাসক শিবিরের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। আর দলের এহেন খারাপ ফলাফলের পরই পর্যালোচনা বৈঠকে বসে বেশ কিছু জেলার সংগঠনে পরিবর্তন এনেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

লোকসভা ভোটে ভরাডুবির পরে দলের সংশোধন আনতে নয়া পদক্ষেপ নিলেন বিধায়ক

লোকসভা ভোটে দলের ভরাডুবির পর সাধারণ মানুষের সমস্ত অভাব অভিযোগ শুনতে একটি অভিযোগ বক্স বসানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন চুঁচুড়ার তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদার। নিজের দলীয় কার্যালয়ে সেই বাক্স বসিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকেও প্রচুর অভিযোগ পাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু এবার সেই চুঁচুড়ার তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদারের পথকে বেছে নিয়ে শাসক দলকে পাল্টা

অর্জুনকে নিয়ে এতদিন পরে মুখ খুললেন নেত্রী, কি বললেন প্রাক্তন সৈনিককে নিয়ে -জেনে নিন

ভাটপাড়ার বিধায়ককে 'নাম না করে 'গদার' বলে আক্রমণ শানালেন নেত্রী। তৃণমূলে 'গদ্দার 'কথাটির সূচনা হয় সেদিন - যেদিন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে মুকুল রায় যোগ দিয়েছিলেন। তৃণমূলের নেতা নেত্রীরা প্রকাশ্য সভাতে মুকুল রায় এর নাম করে, কখনো নাম না করে 'গদ্দার 'বলেছেন। অভিষেক ব্যানার্জিও প্রকাশ্য সভা থেকে মুকুল রায়কে 'গদ্দার' বলে আখ্যায়িত

ভোটের সময় হঠাৎ করে বাজার থেকে গায়েব দুহাজারের নোট, ক্রমশ বাড়ছে সন্দেহ!

নির্বাচনের সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের 'ক্যাশ টাকার' প্রয়োজন হয় - একথা সকলেই জানে। সেই মত তৈরিও থাকে সরকারি ও বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলো। কেননা ভোটের প্রচার থেকে, কর্মীদের খাওয়ানো, প্রচারের গাড়ি থেকে দেওয়াল লিখন, ব্যানার-ফেস্টুন থেকে শুরু করে প্রচারের মঞ্চ - নির্বাচনের খরচ অনেক। মুখে স্বীকার না করলেও, স্বীকৃত দলগুলি নিজেদের প্রার্থীর

জমজমাট ভোটযুদ্ধ – নববর্ষের মোড়কে প্রচারে ঝড় তুললেন প্রসূন থেকে লকেট, জয় থেকে সোমা

কথায় আছে, সকালটা দেখলেই বোঝা যায়, সারা দিনটা কেমন যাবে। আর তাইতো বাংলা বছরের শুরুর দিনেই যেভাবে লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শাসক বনাম বিরোধীরা একে অপরকে টেক্কা দিতে প্রচারপর্বে ভাসলো, তা দেখে প্রায় প্রত্যেকেই মনে করতে শুরু করেছেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে শাসক-বিরোধী জমজমাট লড়াই হতে চলেছে। সূত্রের খবর, এদিন বছরের শুরুর

Top
error: Content is protected !!