এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "leader"

রাজ্য বিজেপির দুই হেভিওয়েট নেতার তিক্ততা প্রকাশ্যে, জেনে নিন

রাজ্যে আজ আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাজ্য বিজেপির অন্দরে রীতিমতো হৈহৈ কান্ড। আর তার মধ্যেই প্রকাশ্যে এসে পড়ল রাজ্য বিজেপির অভ্যন্তরীণ তিক্ততা। সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন)-এর সঙ্গে তাঁর দুই সহকারীর তিক্ততা এবার প্রকাশ্যে চলে এলো যা ঘিরেই প্রবল অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। জানা যাচ্ছে মোদী কলকাতায় আসার আগে মোদী মন্ত্রিসভার সদস্য তথা জাহাজ

নেত্রীর বৈঠকে অনুপস্থিত একাধিক তৃণমূল সভাপতি, ক্ষুব্ধ নেত্রীর কড়া হুঁশিয়ারি

  অত্যন্ত দক্ষ এবং সাংগঠনিক ব্যক্তি হিসেবেই পরিচিত মহুয়া মৈত্র। নিজের ব্যক্তিগত ক্যারিশমাতেই বারবার নির্বাচনে জয়লাভ করতে দেখা গেছে তাকে। আর সুবক্তা হিসেবে পরিচিত এই মহুয়া মৈত্রর সাংগঠনিক দক্ষতা দেখেই তাকে কৃষ্ণনগর সাংগঠনিক জেলা তৃণমূলের সভাপতির দায়িত্ব দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই সংগঠনকে চাঙ্গা করতে রীতিমত উদ্যোগ নিতে দেখা

পদ থেকে অপসারিত নেত্রী, জোর চাঞ্চল্য রাজ্যে

বর্তমানে কংগ্রেসের সংগঠনের অত্যন্ত দুর্বল এই বাংলায়। 2016 সালে তারা সংখ্যার বিচারে বিরোধী দলের মর্যাদা পেলেও, বর্তমানে রাজ্যের বিরোধীদলের জায়গা দখল করেছে ভারতীয় জনতা পার্টিকে। একের পর এক নির্বাচনে লড়াই হচ্ছে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে। আর এই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক কর্মসূচি নেওয়া তো দূর অস্ত, বরঞ্চ সংগঠন কাঠামো পরিবর্তন করতে গিয়ে

নিষিদ্ধ সংগঠনের প্রধান বক্তা হিসেবে নাম হেভিওয়েট তৃণমূল সাংসদের, প্রবল অস্বস্তিতে শাসকদল!

  নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন লাগু হবার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ সংগঠিত হয়েছে। রাজনৈতিক বিক্ষোভের পাশাপাশি সেই বিক্ষোভকে অশান্তির আগুনে পরিণত করেছে একাংশ। যেখানে প্রথম থেকেই শান্তি স্থাপন করে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে যাতে বিক্ষোভ হয়, তার জন্য আর্জি জানাতে দেখা গিয়েছিল তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কিন্তু এবার নাগরিকত্ব আইনের

পাশকুড়ার পন্থাই অনুসরণ করা হল ময়নায়, বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে জারি করা হল হুলিয়া!

  এবার পাঁশকুড়ার ঘটনার প্রতিচ্ছবিই দেখা গেল ময়না এলাকায়। গত 7 অক্টোবর পাঁশকুড়ায় খুন হয়েছিলেন তৃণমূল নেতা কুরবান শা। আর এরপরই সেই খুনের ঘটনায় জড়িত বিজেপি নেতা আনিসুর রহমান সহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তবে অভিযুক্তদের দুজনের বিরুদ্ধে আত্মসমর্পণের জন্য আদালতের পক্ষ থেকে হুলিয়া জারি করা হয়েছিল। আর এবার পাঁশকুড়ায় যেভাবে

মমতাকে “মানসিক রোগী” বলে কটাক্ষ প্রাক্তন তৃণমূল নেতার, জোর শোরগোল রাজ্যে!

  আমাদের দৈনন্দিন সমাজে যদি কোনো ব্যক্তি একটু অন্য রকমের কথা বলেন, তাহলেই আমরা তাদের ঠাট্টা করে বলি, "এবার তোকে রাঁচির পাগলা গারদে পাঠাতে হবে।" অর্থাৎ একথা বুঝতে বাকি নেই কারোরই যে, রাচিতে পাগলা গারদ আছে। তবে এবার রাচির সেই পাগলা গারদের ঘটনা যে বর্তমান রাজনীতিতে এসে পড়বে, তা আঁচ করতে

পদত্যাগ করলেন হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা, জোর জল্পনা রাজ্যে!

  লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল ধাক্কা খাওয়ার পর দলের তরফে সুশৃংখলতা বজায় রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে, ততই যেন তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে চলে আসছে। এবার নির্বাচনের কয়েক মাস আগে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দিলেন হুগলী-চুঁচুড়া পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর সুনীল মালাকার। যা নিয়ে ব্যাপক জল্পনা ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়।

কেন্দ্রের শাসক দলকে কোণঠাসা করতে ভরসা এনআরসি, মিছিলে নেই মন্ত্রী ও হেভিওয়েট নেতা, জোর জল্পনা

  লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গের তৃণমূল ভালো ফলাফল করতে পারেনি। কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্র তৃণমূলের একসময়কার শক্ত ঘাঁটি হলেও, দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব এবার সেখানে ডুবিয়ে দিয়েছে ঘাসফুল শিবিরকে। ইতিমধ্যেই দলের সংগঠনে সেখানে পরিবর্তন এনেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বার্তা দিয়েছেন ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিজেপি বিরোধিতায় তৃণমূলের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ যে এনআরসি ইস্যু, তার বিরোধিতার

প্রশান্ত কিশোরকে “দালাল”বলে তুলোধোনা হেভিওয়েট সাংসদের, জোর শোরগোল

  বর্তমানে কেন্দ্রের শাসক দল ভারতীয় জনতা পার্টির বিভিন্ন নীতির বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা যাচ্ছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে। ইতিমধ্যেই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে কেন্দ্র করে বিজেপির বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে বাংলার কংগ্রেস নেতৃত্ব সেভাবে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে রাস্তায় না নামায়, তাদের কটাক্ষ করছে ঘাসফুল শিবির। ইতিমধ্যেই লোকসভায় কংগ্রেসের নেতা

দলীয় সংগঠনের কাজ নিয়েই উষ্মা প্রকাশ তৃনমূল মহাসচিবের, জোর জল্পনা

  এবার নিজের দলের অধ্যাপক সংগঠন ওয়েবকুপার কাজ নিয়ে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুললেন খোদ তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, এদিন ওয়েবকুপার শীতকালীন অধিবেশন আয়োজিত হয়। আর সেখানেই উপস্থিত হন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী। জানা যায়, এদিন প্রথমেই সংগঠনের সভানেত্রী কৃষ্ণকলি বসু এনআরসি এবং সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে নিজেদের কর্মসূচির কথা ঘোষণা

Top
error: Content is protected !!