এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "Kolkata r www.24×7 Portal"

কাটমানি ও কমিশন খাওয়া কি তৃণমূলের রন্ধ্রে রন্ধ্রে? “নজরদারি সেল” করে জল্পনা বাড়ালেন মমতাই

বিগত বাম সরকারের আমলে গণতন্ত্র নেই বলে সারা রাজ্যজুড়ে আলোড়ন তুলে দিয়েছিলেন তৎকালীন বিরোধী দলনেত্রী তথা আজকের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু ক্ষমতায় আসতে না আসতেই সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তার দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধেও এখন দুর্নীতির অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে। গত 2011 সাল থেকে তৃণমূল রাজ্যে ভালো ফল করলেও মানুষের চাপা

“মওকা” মিলতেই রবীন্দ্রনাথকে কোণঠাসা করতে চলেছেন পার্থ? তীব্র জল্পনা শাসকদলের অন্দরে

কাকা বনাম ভাইপোর লড়াইয়ে বারেবারেই উত্তপ্ত হয়েছে কোচবিহার জেলা রাজনীতি। এই জেলারই সদ্য প্রাক্তন তৃণমূলের সভাপতি তথা মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের হাত ধরেই রাজনীতিতে উত্থান ঘটেছিল কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা বর্তমান কোচবিহার জেলা যুব তৃনমূলের সভাপতি তথা কোচবিহার জেলা তৃনমূলের কার্যকরী সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়ের। কাকা ভাইপোর লড়াইয়েই এবার সেই

ভোট যত এগিয়ে আসছে মেদিনীপুর জুড়ে শাসকদলের বিরুদ্ধে তত সন্ত্রাসের অভিযোগ বাড়ছে বিরোধীদের

ইতিমধ্যেই রাজ্যে চতুর্থ দফার প্রায় 18 টি লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। বাকি রয়েছে আরও তিন দফার নির্বাচন। তবে সেই তিন দফায় নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধে পরিণত করতে কমিশনের কাছে আর্জি জানিয়েছে বিরোধীরা। কিন্তু যতই ভোট এগিয়ে আসছে, ততই যেন উত্তাপের পারদ চড়ছে মেদিনীপুরে। আর যাকে ঘিরে এখন শাসক বনাম

রাজ্যে বাকি আসনে পদ্মফুল ফোটানোর লক্ষ্যে দায়িত্ব পেলেন ত্রিপুরায় বিজেপি সরকারের কারিগর এই বিজেপি নেতা

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে 22 থেকে 23 টি আসন নিজেদের দখলে রাখবার জন্য বহুদিন আগে থেকেই রাজ্য নেতৃত্বকে টার্গেট বেঁধে দিয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। ইতিমধ্যেই তিন তিনটে দফায় মোট দশটি লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে এরাজ্যে। আর সেই 10 টি নির্বাচন হওয়া কেন্দ্রের মধ্যে অধিকাংশই বিজেপি তাদের দখলে রাখবে বলে

সদ্য বিজেপিতে যাওয়া অর্জুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চলেছে তৃণমূল, অপেক্ষা শুধু ভোট মেটার

তৃণমূল থেকে যে সমস্ত নেতা-বিধায়করা বিজেপিতে যোগদান করছে, তৃণমূলে থাকার সময় তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা না হলেও বিজেপিতে যোগদানের পরই তাদের বিরুদ্ধে মামলা করছে রাজ্যের শাসক দল বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছেন বঙ্গ রাজনীতির চাণক্য তথা বিজেপি নেতা মুকুল রায়। কিন্তু বর্তমানে রাজ্যের গোটা প্রশাসন নির্বাচন কমিশনের আওতায় রয়েছে। তাই

রাজ্যের প্রতিটি লোকসভায় করে জনসভা – যাবেন রাজ্যের বাইরেও – তৃণমূলের ভরসা তৃণমূল নেত্রীই

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে 42 এ 42 টি আসন নিজেদের দখলে রাখতে যে আসনে যাকেই প্রার্থী করা হোক না কেন, সমস্ত আসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখেই ভোট দেওয়া উচিত বলে জানিয়ে দিয়েছেন তৃনমূলের হেভিওয়েট নেতা মন্ত্রীরা। আর সেই মতই এবার দলের সর্বময় কত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিয়েই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে

রিয়া-রাইমাকে প্রচারে এনে ঝড় তুলে সেলিব্রিটি প্রার্থী মুনমুন সেনকে জেতানোর মাস্টারপ্ল্যান তৃণমূলের

গত লোকসভা ভোটে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রটি দখল করতে পারেনি তৃণমূল। বরঞ্চ এখানে তৃণমূল প্রার্থীকে পরাজিত করে জয় লাভ করেছে বিজিপির বাবুল সুপ্রিয়। তবে এবার সেই আসানসোল লোকসভা কেন্দ্র দখল করতে বাবুলের বিরুদ্ধে যাতে জোর কদমে লড়াই করে যায় সেজন্য সেলিব্রিটি প্রার্থী হিসেবে অভিনেত্রী মুনমুন সেনকে দাঁড় করিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। সূত্রের

রবার্ট বঢ়রাকে আর্থিক তছরুপের দায়ে জেরার পেছনেও বিরোধী জোট ভাঙার “চক্রান্ত” দেখছেন তৃণমূল নেত্রী

কেন্দ্রের বর্তমান বিজেপি সরকার উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবেই বিরোধীদের পেছনে সিবিআই লাগিয়ে তাদের হেনস্তা করছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছে দেশের বিজেপি বিরোধী দলগুলো। সম্প্রতি কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই হানা নিয়ে সেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেলে ধরনায় বসে পড়েন খোদ তৃনমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা

দেড় বছর হয়ে গেলেও ‘গদ্দারকে’ ভুলতে পারেননি তৃণমূল নেত্রী! ‘গদ্দার’ শুধু মুচকি হেঁসে উইকেটের পর উইকেট ফেলতেই ব্যস্ত!

প্রিয় বন্ধু বাংলা এক্সক্লুসিভ - বাংলার আকাশ-বাতাস যখন শিউলির গন্ধে ম-ম করছে তখনই এক অক্টোবরের সকালে রাজ্য-রাজনীতিকে চমকে দিয়ে তৎকালীন রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অঘোষিত দুনম্বর নেতা মুকুল রায় ঘোষণা করেছিলেন - তিনি শাসকদলের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করতে চলেছেন। বেশ কিছুদিন 'সাসপেন্স' বজায় রেখে অবশেষে নভেম্বরের এক অপরাহ্নে একজন

বিরোধীদের উপযুক্ত জবাব দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি-‘তৃণমূলের নয়, গণতন্ত্র রক্ষা জন্য রাজ‍্য সরকারের কর্মসূচি এই ধর্ণা “

এদিন পুলিশ কমিশনারের বাড়িতে সিবিআই এর আধিকারিকের যাওয়া আর জোর করে কেন্দ্রীয় সরকারের সিবিআইকে দিয়ে তৃণমূলকে হেনস্থা করার অভিযোগ এনে মেট্রো চ্যানেলে মুখ্যমন্ত্রী ধরনায় বসেছেন। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন ADG, পুলিশ কমিশনার। আর তাই নিয়েই জোর বিতর্ক শুরু হয়েছিল। বিরোধীরা দাবি করেছিলেন যে, রাজীব কুমার কি তৃণমূলের নেতা যে তাঁকে সিবিআই

Top
error: Content is protected !!