এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "kashmir"

কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের উপর আরো চাপ বাড়িয়ে বড়োসড়ো ঘোষণা বিদেশমন্ত্রীর – জানুন বিস্তারিত

কাশ্মীরের বুক থেকে 370 ধারা অবলুপ্তির পর থেকে পাকিস্তান বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দরজায় কড়া নাড়লেও খালি হাতে ফিরতে হয়েছে ইসলামাবাদকে। শেষমেশ রাষ্ট্রসংঘ কড়া বার্তায় পাকিস্তানকে বুঝিয়ে দিয়েছে, কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এর ফলে ভূস্বর্গে অশান্তি তৈরিতে পাকিস্তানের সন্ত্রাসে মদত প্রসঙ্গে ক্ষুব্দ গোটা বিশ্ব। কাশ্মীর ইস্যুতে প্রথম থেকেই পাকিস্তান ভারতের সাথে

কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্যের জেরে এবার দেশদ্রোহিতার মামলার মুখে মহিলা সমাজকর্মী

এবার কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্য করায় রাজনৈতিক ও সমাজকর্মী শেহলা রশিদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু করল দিল্লি পুলিশ। জানা গেছে, কাশ্মীরে 'মানবাধিকার লঙ্ঘন' করা হচ্ছে বলে নানা অভিযোগ তুলে সম্প্রতি সরব হয়েছিলেন এই সমাজকর্মী। আর তার ফলেই এবার তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতা, দাঙ্গায় উস্কানি-সহ এক গুচ্ছ ধারায় মামলা দায়ের করা হল। বস্তুত, গত

এবার মোদিকে সরাসরি হুমকি পাকিস্তানি অভিনেত্রীর – জেনে নিন বিস্তারিত

প্রথম দিন থেকে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টান্তমূলক সিদ্ধান্ত কাশ্মীর থেকে 370 ধারা প্রত্যাহারের চরম বিরোধিতা করে গেছে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান। ভারতের আভ্যন্তরীণ সিদ্ধান্ত নিয়ে রীতিমত চড়া গলায় হুমকি পর্যন্ত দিয়েছে সেই দেশ। এমনকি ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের পরিস্থিতি আসতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। এবার কাশ্মীর ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীকে হুমকি দিলেন পাকিস্তানের এক অভিনেত্রী। কাশ্মীর ইস্যুতে

নতুন স্বপ্নের কাশ্মীর নিয়ে বড়সড় দাবি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের – জানুন বিস্তারিত

ক্ষমতায় আসার আগেই নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, তাদের সরকার ক্ষমতায় এলে ভালোবাসা দিয়ে কাশ্মীরকে জয় করা হবে। 2014 সালে প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর কাশ্মীরের অনেক সমস্যার সম্মুখীন হলেও দ্বিতীয়বারের জন্য 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনে জেতার পর পরই সেই কাশ্মীরের ব্যাপারে ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রের মোদি সরকার। যেখানে সংসদের দুই কক্ষেই 370

কাশ্মীরে বিঘ্নিত হতে পারে শান্তি! বিমানবন্দর থেকেই ফেরানো হল বিরোধী নেতাদের

কিছুদিন আগেই জম্মু-কাশ্মীরের ক্ষেত্রে সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের কেন্দ্রীয় সরকার। সকলকে মাস্টারস্ট্রোক দিয়ে কাশ্মীরের 370 ধারার অবলুপ্তির ঘটিয়ে সংসদে আইন পাস করিয়েছে কেন্দ্রের বর্তমান শাসক দল। যার পরে বিভিন্ন মহলে বিজেপির তরফ থেকে এই সাহসী পদক্ষেপ নেওয়ায় সকলেই কেন্দ্রীয় সরকারকে প্রশংসার বন্যায় বইয়ে দিলেও বিরোধীদের তরফে এই ব্যাপারে সরকারের কড়া

কাশ্মীরে নিজেদের সংগঠন শক্তির কাজ শুরু বিজেপির

দীর্ঘ 70 বছর পর কাশ্মীরের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কেন্দ্রীয় শাসন ক্ষমতায় বসা কোনো রাজনৈতিক দল‌। সিদ্ধান্ত আগেও হয়েছিল, কিন্তু তা ছিল বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি বা স্পেশাল প্যাকেজের মাধ্যমে উপত্যাকাবাসীর মন জয় করা। কিন্তু দীর্ঘদিনের সন্ত্রাস সন্ত্রাস দমনে সৈন্য, মৃত্যু, বোম বিস্ফোরণ ভয়ে ভয়ে জীবন যাপন ছাড়া ভূস্বর্গবাসীর কপালে

অশান্তি এড়াতে বাড়তি নিরাপত্তা কাশ্মীরে, কি অবস্থা এখন! জেনে নিন বিস্তারিত

সম্প্রতি জম্মু কাশ্মীরের 370 এবং 35 এ ধারা অবলুপ্তি ঘটিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। যেখানে জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্য থেকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করে দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, একদিকে জম্মু-কাশ্মীর এবং অন্যদিকে লাদাখ- এই দুটি করে একটি বিল ইতিমধ্যেই রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গিয়েছে। ফলে এতদিন জম্মু কাশ্মীর নিয়ে নানা জটিলতা থাকলেও এবার রাষ্ট্রপতির সম্মতি

370 ধারা অবলুপ্তি নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে বামেরা, খোঁচা তৃণমূলকেও

সংবিধানের 370 ধারা এবং 35 (ক) ধারার একটি বিশেষ অনুচ্ছেদকে বিলোপ এবং জম্মু-কাশ্মীরের পূর্ণ রাজ্যের মর্যাদা বিলোপ করে ইতিমধ্যেই মাস্টারস্ট্রোক দিয়েছে কেন্দ্র। বিভিন্ন মহলের তরফে কেন্দ্রের এই পদক্ষেপকে সাধুবাদ দেওয়া হলেও এবার তা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নামতে চলেছে বামেরা। ইতিমধ্যেই সোমবার রাজ্যসভায় এই ব্যাপারে বিল পাস করার জন্য এই দিনকে

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার প্রসঙ্গেই ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ এককালের অন্যতম বিরোধী

এককালে অটলবিহারী বাজপেয়ীর মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন, কিন্তু মোদী-যুগে সেই দলের এককালের হেভিওয়েট মন্ত্রী আজ কোনঠাসা। আর ব্রাত্যের তালিকায় থেকে বিরোধী দলের সাথে হাত মিলিয়ে বার বার মোদীর বিরুদ্ধে একের পর এক তোপ দেগেছেন। সম্পৰ্ক ক্রমে খারাপ হয়েছে। মোদী সরকারের নিন্দা ছাড়া তাঁর কণ্ঠে বিগত পাঁচ বছরে কিছু শোনা যায়নি। আর

৩৭০ ধারা অবলুপ্তির ‘ম্যাজিকে’ বিরোধীদের ছত্রখান করে দিলেন মোদী-শাহরা

যে ধারা ২ থেকে ৬ মাসের জন্য তৈরী হয়েছিল, রাজনীতির পাকে চক্রে তা অবলুপ্ত করতে লেগে গেল ৬৯ বছর। কাশ্মীরের ৩৭০ নম্বর ধারা বিলোপ করে কেন্দ্র সরকার সঠিক করেছে না 'ঐতিহাসিক ভুল' - তাই নিয়েই এখন সরগরম জাতীয় রাজনীতির অঙ্গন। আর শুধু জাতীয় রাজনীতিই বা বলা হবে কেন, এই নিয়ে

Top
error: Content is protected !!