এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "karnataka"

বনধকে ঘিরে বিক্ষিপ্ত উত্তেজনা কর্নাটকে -জেনে নিন বিস্তারিত

পি চিদম্বরমের পর এবার ডি কে শিবকুমার। একের পর এক কংগ্রেস হেভিওয়েট নেতারা সি বি আই ও ইডির হাতে ধরা পড়ায় কংগ্রেস দলে তীব্র চাঞ্চল‍্য দেখা দিয়েছে। সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশের জন‍্য তারা হাতিয়ার করেছে বনধকে। বুধবার কর্ণাটকে বনধ জারি করেছে কংগ্রেস। এবার ইডির হাতে ধরা পড়লেন কংগ্রেস হেভিওয়েট নেতা

নিজেরই সহযোগীকে প্রকাশ্যে চড় কষালেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী, বিতর্ক তুঙ্গে

এবার কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া উঠে এলেন আবার খবরের শিরোনামে। এদিন তাকে ঘিরে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে উঠে। কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কে নিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ পায় সংবাদ সংস্থা এএনআইতে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বিমানবন্দরে তিনি তার সহযোগীকে সজোরে চড় মারছেন প্রকাশ্যে। যদিও ভিডিওটিতে ছবি দেখা গেলেও তাদের কথাবার্তা কিছুই স্পষ্টভাবে শোনা

অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে জোটে মত নেই এই নেতার, ভবিষ্যৎ নিয়ে জোর জল্পনা

কোনোক্রমে কংগ্রেসকে সাথে নিয়ে বিজেপিকে রোখবার জন্য কর্নাটকে জোট করে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন তিনি। সেক্ষেত্রে জেডিএসের কুমারস্বামী মুখ্যমন্ত্রী হলে শরিক কংগ্রেসের চাপে মাঝেমধ্যেই বিড়ম্বনায় পড়তে হত তাকে। সম্প্রতি তার দল এবং শরিক দল ছেড়ে একাধিক বিধায়ক চলে যাওয়ায় প্রবল অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে তাকে। মুখ্যমন্ত্রী পদও খোয়া গেছে সেই এইচডি কুমারস্বামীর। আর এরপরই

আজকেই কি কর্নাটকে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন ইনি ? জোর জল্পনা

কয়েকদিনের টালবাহানার পর আজকেই কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী পদে বসতে পারেন যেদুরাপ্পা। জল্পনা এমনটাই ছড়িয়েছে রাজ্যে। এমন জল্পনা ছড়ানোর কারণ হলো শোনা যাচ্ছে এদিন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলে সবুজ সঙ্কেত পেয়ে গেছেন তিনি। আর তার পরেই কর্নাটকে সরকার গড়তে মরিয়া বিজেপি রাজ্যপাল বাজুভাই বালার কাছে গিয়ে সরকার গঠনের আর্জি জানিয়েছে। শোনা যাচ্ছে

প্রবল সঙ্কটে কর্নাটক, কি হল আবার! জেনে নিন বিস্তারিত

শেষ পর্যন্ত বিজেপির ইচ্ছা অনুযায়ী কর্নাটকে কংগ্রেস জেডিএস জোট সরকারের পতন হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী পদে ইস্তফা দিয়েছেন জেডিএসের এইচ ডি কুমারস্বামী। আর তারপরই জল্পনা শুরু হয়েছিল যে, তাহলে এবার হয়ত বিজেপি এই কর্নাটকে সরকার গঠনের জন্য আবেদন জানাতে পারে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত বিজেপির বিএস ইয়েদুরাপ্পারা শীর্ষ নেতৃত্বের কাছ থেকে এখানে সরকার গঠনের

কর্নাটকে সাফল্য পেলেও এই রাজ্যে জোর ধাক্কা খেল বিজেপি, জেনে নিন

গেরুয়া শিবিরের আশা ছিল, কর্নাটকে তারা যেভাবে সাফল্য পেয়েছে, ঠিক একইভাবে মধ্যপ্রদেশেও তারা সাফল্য আনবে। কিন্তু সব জায়গায় সব ঘোড়া যে এক নয়, তা স্পষ্ট হয়ে গেল। বস্তুত, গতকাল রাতেই কর্নাটকে কংগ্রেস জেডিএস জোট সরকারের পতন হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী পদ ছাড়তে হয়েছে এইচডি কুমারস্বামীকে। এরপরই মধ্যপ্রদেশে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা শিবরাজ

কর্নাটকের পরে এই রাজ্যের সরকার ফেলতে তৎপর হচ্ছে বিজেপি? দাবি এমনটাই

2014 সালের পর 2019 সালে ফের দ্বিতীয়বারের জন্য বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় বসেছে মোদি সরকার। আর তারপর থেকেই দিকে দিকে বিভিন্ন দল থেকে বিজেপিতে যোগদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই কর্নাটকে দীর্ঘ 14 মাস ধরে টালমাটাল অবস্থায় চলা কংগ্রেস জেডিএস জোট সরকারের পতন হয়েছে। যেখানে সরকার গড়ার জন্য আবেদন জানাতে উদ্যোগী

সরকার বাঁচাতে মরিয়া কুমারস্বামী আজও আস্থাভোটে না যাওয়ার পরিকল্পনায়?

  কর্ণাটক বিধানসভায় নাটক চরমে! রাজ্যপালের নির্দেশ উড়িয়ে বারে বারে এড়িয়ে যাওয়া হচ্ছে আস্থাভোট। কেননা এই মুহূর্তে আস্থা ভোট হলে কুমারস্বামী সরকারের পতন একপ্রকার নিশ্চিত। আর তাই নতুন পরিকল্পনায় জেডিএস-কংগ্রেস জোট। বিধানসভায় চলছে শুধুমাত্র সময় নষ্টের খেলা। কিন্তু, তা আর কতক্ষন? সেই প্রশ্নই ঘুরছে দক্ষিণ ভারতের এই রাজ্য ঘিরে। সুপ্রিম কোর্টে গিয়েও

অবশেষে কি পরে যাবে সরকার! জোর চাঞ্চল্য কর্ণাটকের রাজনীতিতে, তাকিয়ে সারা দেশ

একের পর এক বিধায়কের ইস্তফায় কর্নাটকে কংগ্রেস-জেডিএস জোট সরকারের অস্তিত্ব সংকটের মুখে পড়েছিল। আর এবার গোদের উপর বিষফোঁড়া হিসেবে সুপ্রিম কোর্টের রায় সেই কর্নাটকের জোট সরকারকে আরও একধাপ পতনের দিকে এগিয়ে দিল বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। বস্তুত, বিধায়করা স্পিকারের কাছে তাদের ইস্তফা দিলেও স্পিকার তাদের ইস্তফা পত্র সেইভাবে গ্রহণ করছে না

ফের নতুন মোড় কর্নাটকে, কি হল জেনে নিন

অনেকদিন ধরেই জটিলতা চলছে। আর এবার কর্নাটকের রাজনীতি ফের নতুন মোড় নিতে শুরু করল। প্রসঙ্গত, গত শনিবার থেকে দফায় দফায় কর্ণাটকের প্রায় 18 জন বিধায়ক তাদের ইস্তফা দিয়েছেন। যার মধ্যে জেডিএস এবং কংগ্রেস দলের বিধায়করা ছিলেন এবং বাকি দুইজন ছিলেন নির্দল বিধায়ক। কিন্তু এই বিধায়কদের অভিযোগ ছিল, তারা তাদের ইস্তফা পত্র

Top
error: Content is protected !!