এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "jote" (Page 2)

পুরসভা নির্বাচন দিয়েই কি একসাথে পথ চলা শুরু বাম-কংগ্রেসের!হেভিওয়েট নেতার মন্তব্যে জল্পনা

শেষ গত 2016 বিধানসভা নির্বাচনে তারা হাতে হাত ধরে লড়াই করেছিল। যার ফল খুব একটা ভালো না হলেও একসাথে লড়াই করলে যে ভবিষ্যতে ভালো জায়গায় যাওয়া যাবে, তা অনুধাবন করতে পেরেছিল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট এবং বিধান ভবনের নেতারা। আর সেইমত সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনেও বাংলায় হাতে হাত ধরে লড়াই করে শাসক

দুই রাজ্যের দুই নীতি নীতীশ কুমারের দলের, বিজেপির সাথে কি ক্রমেই দূরত্ব বাড়ছে! জোর জল্পনা

বিহারে হাতে হাত ধরে জোট সরকারকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন বিজেপি এবং নীতীশ কুমারের জনতা দল ইউনাইটেড। কিন্তু বিহারে তারা বিজেপির সঙ্গে জোট করলেও আসন্ন ঝারখন্ড বিধানসভা নির্বাচনে এবার একক ভাবে করার সিদ্ধান্ত নিল সেই নীতীশ কুমারের দল। জানা গেছে, চলতি বছরের নভেম্বর থেকে ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই এই ঝাড়খন্ডে বিধানসভা নির্বাচন

ভোটের আগেই জোট? তৃনমূল, বিজেপি, সিপিএম একসাথে হাঁটলেন মিছিলে, জেনে নিন

তিন প্রতিপক্ষ একসাথে মিছিলে হাঁটলেন। এতদিন একে অপরের মুখ পর্যন্ত দর্শন করতেন না যারা, পরিবেশ রক্ষার দাবিতে সেই তিন ব্যক্তিকেই একসাথে পথে নামতে দেখা গেল। সূত্রের খবর, শিলিগুড়ি শহর পরিবেশ বাঁচানোর ডাক দিয়ে একই মিছিলে হাঁটলেন শিলিগুড়ির মেয়র অশোক ভট্টাচার্য, তৃণমূলের বিধায়ক তথা মন্ত্রী গৌতম দেব এবং কংগ্রেসের বিধায়ক শঙ্কর মালাকার।

এক পা এগিয়েও দুই পা পিছিয়ে গেল তৃণমূল, জানুন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ফলাফল অত্যন্ত খারাপ হয়েছে। বিজেপির থেকে হাতেগোনা 4 টি আসন বেশি পেলেও গেরুয়া শিবিরের দখলে আসা 18 টি আসন তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। আর এরপরই সম্প্রতি রাজ্য বিধানসভায় উপস্থিত হয়ে বাম এবং কংগ্রেসের উদ্দেশ্যে জোট বার্তা দেন তৃনমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে বিরোধী দলনেতা

বিধানসভায় তৃণমূল সিপিএম ও কংগ্রেসের সাথে জোট বাঁধলে আদতে কতটা লাভ হবে, নাকি ফায়দা তুলতে বিজেপি!

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল মোটে 22 টি আসন পেয়েছে। অন্যদিকে বিজেপি তাদের আসন সংখ্যা বাড়িয়ে 18 করে নিয়েছে। আর রাজ্যে গেরুয়া শিবিরের এই উত্থানে এখন রীতিমতো তটস্থ ঘাসফুল শিবির। তৃণমূলের দাবি, বাম এবং কংগ্রেসের ভোটব্যাঙ্ক বিজেপির দিকে চলে যাওয়াতেই রাজ্যে বিজেপির এই উত্থান ঘটেছে। অন্যদিকে পাল্টা কংগ্রেস এবং বামেদের দাবি, রাজ্যে বিজেপির

সমালোচনার ঝড়, কংগ্রেস সিপিএমের থেকে না শুনে জোট নিয়ে পাল্টি খেল তৃণমূল

রাজনীতিতে উলটপুরান স্বাভাবিক ব্যাপার। কখন কার কোন রণনীতি হবে, তা নিশ্চিত করে বলতে পারবে না কেউই। এইতো যেমন গতকাল বিধানসভার অধিবেশনে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাম এবং কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করার আহ্বান জানানোর খবর পেলেও আজ তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করতে দেখা গেল সেই তৃণমূল দলকেই। যা নিয়ে উত্তাল

লোকসভা ভোটের বিপর্যয় থেকে শিক্ষা নিয়ে কি এবার ফের সিপিআইএম কংগ্রেসের জোট হচ্ছে রাজ্যে, জোর জল্পনা

গত 2016 সালে বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তারা উভয়ই জোট করেছিল। কিন্তু সেই ভাবে তারা তেমন কোনো সাফল্য না পেলেও এই জোট যে খুব একটা খারাপ সাড়া দেয়নি, তা নিয়ে নানা আলোচনাও হয়েছিল। আর সেইমতো সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনেও বাংলায় শাসক দল তৃণমূল ও বিরোধী দল বিজেপির বাড়বাড়ন্তের রুখতে তৃতীয়

বিজেপি কি ভয় পেয়ে গিয়েছে?‌ বিজেপি কি মরিয়া হয়ে উঠেছে?‌ প্রশ্ন তুললেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এগিয়ে আসছে লোকসভা নির্বাচন - আর বাংলায় সেই নির্বাচনে যে লড়াইটা বর্তমান শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস বনাম বিজেপি, তা এতদিনে স্পষ্ট। তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য শীর্ষনেতারা যতই দাবি করুন, বাংলায় কোথাও বিজেপি নেই - আগামী ১০০ বছরেও বাংলায় বিজেপি কিচ্ছু করতে পারবে না - কিন্তু, তৃণমূল কংগ্রেসের

তৃণমূলের সাথে জোট না চেয়ে হাইকম্যান্ডকে রাজি করতে এবার বড়সড় পদক্ষেপ নিচ্ছে রাজ্য কংগ্রেস

তৃণমূলের সাথে জোট না চেয়ে হাইকম্যান্ডকে রাজি করতে এবার বড়সড় পদক্ষেপ নিচ্ছে রাজ্য কংগ্রেস। এতদিন তৃণমূলের সাথে জোট না করতে চেয়ে রাহুল গান্ধী ও সোনিয়া গান্ধীকে অনেকবার বোঝাতে গিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেসের নেতারা। শুধু তাই নয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা ব্রিগেডে যাতে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে যোগদান না করা হয় তার জন্য বার বার

তৃণমূলের সঙ্গে রাজ্যে কংগ্রেসের জোট নিয়ে বড়সড় মন্তব্য সোমেন মিত্রর

লোকসভা নির্বাচনে এবার তৃণমূলের সঙ্গে জোট নিয়ে নিজের অবস্থান নিশ্চিত করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। ভোটে তৃণমূলের সঙ্গে কোনো জোট হবে না,এমনটাই সাফ জানিয়ে দিলেন তিনি। তবে এটাই প্রথম বার নয়,এর আগেও নিজের তৃণমূল বিদ্বেষী মনোভাব প্রকাশ্যে এনেছেন তিনি। বহুবার বিভিন্ন জনসভার মঞ্চ থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে

Top
error: Content is protected !!