এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "jote"

বিরোধী জোটে বড় ধাক্কা, পৃথক প্রতিবাদ তৃণমূলের!

joteনাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রায় প্রতিটা বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোই এককাট্টা হয়েছিল। কিন্তু এবার সংসদ ভবনে প্রতিবাদের ক্ষেত্রে বিরোধীদের মধ্যকার অনৈক্য যেন ফুটে উঠতে শুরু করল। সূত্রের খবর, এদিন সংসদের সেন্ট্রাল হলে রাষ্ট্রপতির বক্তৃতার সময় এই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় হাতে কালো ব্যান্ড পড়ে প্রতিবাদ জানান কংগ্রেস সাংসদরা। তবে

জোট ভাঙার খেসারত দিতে হল বিজেপিকে, জোর শোরগোল !

মহারাষ্ট্রে এবার খুব একটা ভালো ফল করতে পারেনি ভারতীয় জনতা পার্টি। যার পরেই শরিক দল শিবসেনা থাকার জন্য তারা জোট করে এখানে সরকার গড়তে পারবে বলে আশা করেছিল পদ্ম শিবির। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মন্ত্রিত্বের ফর্মুলা দেওয়া শিবসেনার প্রস্তাব বিজেপি না মানায়, দুই দলের মধ্যে সম্পর্কে ফাটল ধরেছিল। যার পরিপ্রেক্ষিতে শেষ

জোট সরকারের শপথ গ্রহণের বিরোধীদের ভিড়, তবে জাতীয় রাজনীতিতে বিরোধী জোটের ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন!

শুরুটা হয়েছিল 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে। দ্বিতীয়বারের জন্য মোদি সরকার যাতে কেন্দ্রের ক্ষমতায় না আসে তার জন্য প্রচেষ্টা চালিয়েছিলেন বিরোধী দলের নেতা-নেত্রীরা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে সীতারাম ইয়েচুরি, সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী থেকে সমস্ত নেতা নেত্রীরা চেষ্টা করেছিলেন বিজেপিকে আটকাতে পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছিল যে, বিরোধীদের যে কোনো অনুষ্ঠানে সমবেত

  ঝাড়খণ্ডে বাজিমাতের পর এবার বাংলাতেও জোট করে ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন জেএমএম-এর

  সম্প্রতি ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষিত হয়েছে। যেখানে ক্ষমতা দখল করেছে কংগ্রেস-ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার জোট। পর্যদুস্ত হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর পশ্চিমবঙ্গের পড়শি রাজ্য ঝাড়খন্ডে এইভাবে বিজেপি ক্ষমতা হারানোর পর, তার প্রভাব যে বাংলাতে পড়বে, তা আঁচ করেছিল রাজনৈতিক মহল। এমনকি ফলাফল ঘোষণার পরবর্তী সময়ে প্রিয়বন্ধু বাংলার খবরে উঠে এসেছিল, ঝাড়খন্ডে

ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্নে বুঁদ বাম-কং জোট প্রার্থীই দিতে পারল না! কতটা লড়াই থাকছে জল্পনা

  2011 সালে যে বামফ্রন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতায় এসেছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বিগত আট বছরে 35 বছর ধরে ক্ষমতা ধরে রাখা বামফ্রন্ট কার্যত সাইনবোর্ডে পরিণত হবে, তা বিশ্বাস করতে পারেনি অনেকেই। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এই ঘটনাই বারবার সামনে আসছে। পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে শুরু করে লোকসভা নির্বাচন, প্রতিটা

বিজেপি-তৃনমূলকে টপকে পিছন থেকে বাজিমাত করবেন না তো জোট প্রার্থী? “ব্যাক্তিগত ইমেজ” ভাবাচ্ছে

  গত বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে জয়জয়কার হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসের। মমতা জড়ে রীতিমতো উড়ে গিয়েছিল বাম-কংগ্রেস গণতান্ত্রিক জোটের প্রার্থীরা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রাজ্যের বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস জোটবদ্ধ ভাবে লড়াই করলেও এই অসম জোটকে যে বাংলার মানুষ মেনে নিতে পারেনি, তার প্রমাণ পাওয়া গেছে, 2016 সালের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলে। কিন্তু সেই ঝড়ের মধ্যেও

দলীয় বিধায়ক ভাঙ্গানোর আশঙ্কায় শিবসেনা, এখনও অব্যাহত জোট

  অনেকদিন হল মহারাষ্ট্রে ফলাফল ঘোষণা হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সরকার গঠন নিয়ে দর কষাকষি চলছেই। বস্তুত, এবারে মহারাষ্ট্রে ফলাফল খুব একটা ভাল হয়নি গেরুয়া শিবিরের। সরকার গঠন করবার জন্য যত সংখ্যা লাগে, তা তাদের কাছে নেই। যার ফলে শিবসেনার দ্বারস্থ হয়েছিল বিজেপি। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে বিজেপিকে চাপে রাখতে পাল্টা কৌশল করে

মহারাষ্ট্রে শিবসেনা-বিজেপি বিবাদ চরমে, জোট ভাঙতে চলেছে মহারাষ্ট্রে?

  ফল ঘোষণার পর থেকেই সমস্যা চলছে। এককভাবে বিজেপি সরকার গঠন করতে না পারায় শিবসেনার ভূমিকা কী হবে, সেই ব্যাপারে তৈরি হয়েছে প্রশ্নচিহ্ন। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্রের সরকার গঠন নিয়ে গেরুয়া শিবির বনাম শিবসেনার মধ্যে বিবাদ চরমে উঠতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই বিজেপির উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন শিবসেনার সঞ্জয় রাউত। যা নিয়ে ছড়িয়ে পড়েছে

বরফ গলার স্পষ্ট ইঙ্গিত! আজই কি মহারাষ্ট্রে বিজেপি- শিবসেনার জোট সরকারের ঘোষণা?

  অবশেষে কি জটিলতা কাটতে চলেছে মহারাষ্ট্রের! শিবসেনা এবং বিজেপির যে সংঘাত শুরু হয়েছিল, তা কি অবশেষে শেষের মুখে! এখন এইসব প্রশ্নই উঠতে শুরু করেছে সর্বত্র। সূত্রের খবর, আজ অবশেষে বৈঠকে বসতে চলেছে ভারতীয় জনতা পার্টি এবং শিবসেনা। আর এই বৈঠকেএই দুইপক্ষ একটা ঐকমত্যে আসতে পারে বলে মনে করছেন একাংশ। জানা গেছে,

বাকিদের প্রার্থী ঘোষণা হলেও এখনও প্রার্থী নিয়ে অথৈ জলে বিজেপি, হতাশা ক্রমশ বাড়ছে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে

  লোকসভা নির্বাচনে সাফল্যের পর 2021 এ বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে ক্ষমতা দখলের কথা বারবার উঠে এসেছে বিজেপি নেতাদের গলায়। তবে বাংলায় কোন রাজনৈতিক দলের ভিত কতটা শক্ত, বিধানসভা নির্বাচনের আগে তা প্রমাণের জন্য এবার এক সুবর্ণ সুযোগ চলে এসেছে সকলের কাছেই। নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী, আগামী 25 শে নভেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে রাজ্যের

Top