এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "jharkhand"

মহারাষ্ট্র, ঝাড়খণ্ডের পর এবার এই রাজ্যেও ক্ষমতা হারাতে চলেছে বিজেপি! জোর জল্পনা

2019 এর লোকসভা বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়া পর্যন্ত বিজেপি সময়টা ভালোই যাচ্ছিল। কিন্তু দ্বিতীয়বার কেন্দ্রের ক্ষমতায় আসার পর দেশের বিভিন্ন রাজ্যে বিজেপির সুদিন যেন মুখ ফিরিয়ে নিতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্রের শিবসেনা বিজেপির থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়ায় সেখানে সরকার গঠন করতে পারেন ভারতীয় জনতা পার্টি। কংগ্রেস এবং শিবসেনা জোট করে সেখানে সরকার

ঝাড়খণ্ডের শপথগ্রহণে বিজেপি বিরোধী দলগুলোকে এক করার চেষ্টা মমতার, সাফল্য মিলবে! জল্পনা তুঙ্গে

লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে এক করার চেষ্টা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই বিজেপি বিরোধী দলগুলোকে একত্রিত করে দ্বিতীয়বারের জন্য বিজেপি যাতে কেন্দ্রের ক্ষমতা দখল না করতে পারে, তার জন্য জোর প্রচার করেছিলেন তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই প্রচার কাজে দেয়নি। উল্টে দ্বিতীয়বারের জন্য বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে কেন্দ্রের ক্ষমতায়

  ঝাড়খণ্ডে বাজিমাতের পর এবার বাংলাতেও জোট করে ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন জেএমএম-এর

  সম্প্রতি ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষিত হয়েছে। যেখানে ক্ষমতা দখল করেছে কংগ্রেস-ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার জোট। পর্যদুস্ত হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর পশ্চিমবঙ্গের পড়শি রাজ্য ঝাড়খন্ডে এইভাবে বিজেপি ক্ষমতা হারানোর পর, তার প্রভাব যে বাংলাতে পড়বে, তা আঁচ করেছিল রাজনৈতিক মহল। এমনকি ফলাফল ঘোষণার পরবর্তী সময়ে প্রিয়বন্ধু বাংলার খবরে উঠে এসেছিল, ঝাড়খন্ডে

ঝাড়খন্ডে বিজেপির ভরাডুবির “আসল কারণ”বেরিয়ে এলো ! জানলে চমকে যাবেন!

বরাবরই বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলও নিজের গোটা রাজ্যবাসীর কাছে একটি পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছে। রাজ্য এবং দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে তার মন্তব্য যথেষ্ট আগ্রহের সঙ্গে শোনে আমজনতা থেকে শুরু করে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। আর এবার ঝাড়খন্ডে বিজেপির ভরাডুবির আসল কারন বলতে

আজীবন দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়া সরযূ রাইকে হালকাভাবে নেওয়াতেই কি ঝাড়খণ্ডের বিজেপির ভরাডুবি?

  রঘুবর দাসের দুর্নীতির জন্যই কি এবার ঝাড়খণ্ডের ক্ষমতা হারাতে হল ভারতীয় জনতা পার্টিকে! নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশের পর এখন এই প্রশ্নই উঠতে শুরু করেছে সর্বত্র। জানা গেছে, জামশেদপুর আসনের সরযূ রাইয়ের কাছে বিরাট ব্যবধানে পরাজিত হয়েছেন এতদিন ঝাড়খন্ডে মুখ্যমন্ত্রী থাকা বিজেপির রঘুবর দাস। আর সরযূ রাইয়ের কাছে রঘুবর দাসের পরাজিত হওয়ার

ঝাড়খণ্ডেও বিজেপির ভরাডুবি হলে কি বড়সড় প্রশ্নের মুখে পড়ে যাবেন মোদী-শাহ জুটি? বাড়ছে জল্পনা

  2014 পর 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে কেন্দ্রের ক্ষমতা দখল করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু কেন্দ্রের মসনদ বিজেপি দখল করলেও, সম্প্রতি মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির ফলাফল খুব একটা ভাল হয়নি। একের পর এক হিন্দু অধ্যুষিত রাজ্যগুলো বিজেপির হাতছাড়া হতে চলেছে। আর এবার ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনে বুথ

ঝাড়খন্ডে কার হাতে থাকবে ব্যাটন, জেনে নিন আগাম সমীক্ষা

  2019 সালের লোকসভা নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর ভারতীয় জনতা পার্টির 2019 সালের এই ফলাফল সর্বকালের সেরা পারফর্ম্যান্স। কিন্তু লোকসভা নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের জন্য জয়যুক্ত হয়ে মোদি 0.2 সরকার গঠন হলেও, সমগ্র দেশে লোকসভা পরবর্তী সবকটি নির্বাচনে ব্যাপক পরিমাণে হতাশ হতে হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। রাজনৈতিক

ঝাড়খন্ড বিধানসভা ভোটে বিজেপির ভাগ্যে কি আছে ? নয়া সমীক্ষায় উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য

  একদিকে দেশের অর্থনৈতিক মেরুদণ্ড ভেঙে পড়া, আর অন্যদিকে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে বিরোধীদের সাঁড়াশি চাপে জেরবার ভারতীয় জনতা পার্টি।‌ আর এরই মাঝে ঝাড়খন্ডের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি আর ক্ষমতায় ফিরছেন না বলে বিভিন্ন বুথ ফেরত সমীক্ষায় ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। সূত্রের খবর, ইন্ডিয়া টুডে অ্যাক্সিস এবং কশিস নিউজের সমীক্ষায় উঠে এসেছে, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

মহারাষ্ট্রে বড়সড় ধাক্কার পরে কি ঝাড়খন্ডেও ব্যাকফুটে চলে গেল বিজেপি? ক্রমশ তীব্র হচ্ছে জল্পনা

  আশা ছিল। অনেক ক্ষেত্রে সেই আশার একদম চূড়ান্ত শিখরে পৌঁছেও গিয়েছিল ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ক্ষমতা ধরে রাখা তাদের পক্ষে সম্ভব হয়নি। মহারাষ্ট্রে শেষ পর্যন্ত ইস্তফা দিতে হয়েছে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশকে। বর্তমানে সেখানে সরকার গড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে এনসিপি, শিবসেনা এবং কংগ্রেস জোট। আর ঝাড়খন্ডের বিধানসভা নির্বাচন শুরুর

ঝাড়খণ্ডের খুনের মামলায় অভিযুক্তের বাইক-মোবাইল মিলল বাংলার বিজেপির দাপুটে নেতার বাড়িতে!

  জনমানসে যখন বিজেপির সম্পর্কে সদ্ভাবনা জন্মাচ্ছে, ঠিক তখনই একের পর এক নেতার কুকীর্তিতে বিধ্বস্ত হয়ে পড়ছে গেরুয়া শিবির। এবার ঝাড়খণ্ডের খুনের মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তির বাইক এবং মোবাইল জামুড়িয়ার বিজেপির জেলা সম্পাদকের বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়ায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল। বস্তুত, ঝাড়খণ্ডের মিহিজাম থানা এলাকার বাসিন্দা স্করপিও গাড়ির মালিক প্রভাত কুমার গত

Top
error: Content is protected !!