এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "jangalmhl"

জঙ্গলমহল ফিরে পেতে তৃণমূলের “প্ল্যান ফাঁস” করে বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ

পশ্চিম মেদিনীপুর এলাকায় ঘাসফুল শিবিরকে লোকসভা নির্বাচনে পর্যুদস্ত করে এলাকার দখল নিয়েছে গেরুয়া শিবির। এলাকায় অস্তিত্ব সংকট এসে উপস্থিত হয়েছে ঘাসফুল শিবিরের পক্ষে। যদিও নিজেদের পালে হাওয়া টানতে মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস এবং তার শীর্ষ নেতৃত্ব। মিছিল, মিটিং থেকে শুরু করে সভা-সমিতির মধ্যে দিয়ে এলাকায় নিজেদের জমি ফিরিয়ে পেতে নানানভাবে উদ্যোগ গ্রহণ

জঙ্গলমহল উদ্ধারে এবার নয়া পদক্ষেপ তৃণমূলের, জেনে নিন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান তুলেও তার স্বপ্ন পূরণ করতে পারেননি। 22 টি আসন পাওয়া তৃণমূলের ঘাড়ে 18 টি আসন পাওয়া বিজেপি ক্রমবর্ধমানভাবে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। বিশেষত এবারে সারা রাজ্যের পাশাপাশি জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে তৃনমূলের অত্যন্ত খারাপ ফলাফল হয়েছে। আর এরপরই পুরুলিয়া জেলার সংগঠনকে ঘুরে দাড়

জঙ্গলমহলে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকুক নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ রাজ্য পুলিশের

2011 সালে রাজ্যে পালাবদলের পরই একদা মাওবাদীদের দুর্গ হিসেবে পরিচিত এবং প্রতিদিনই রক্তপাত ঘটায় জঙ্গলমহলে তাদের উদ্যোগেই শান্তি ফিরেছে বলে বিভিন্ন সময়ে প্রচার করতে দেখা যায় রাজ্যের শাসক দলের নেতাদের। এমনকি ক্ষমতায় এসে বারে বারে জঙ্গলমহলে গিয়ে মাওবাদী দৌরাত্ম্য নেই বলে গর্ববোধ করতে দেখা গেছে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও। কিন্তু অশান্তি

একদিকে মতুয়া, অন্যদিকে জঙ্গলমহল, বিজেপির জোড়া সভায় কি চাপ বাড়ছে শাসকদলের ?

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর বাংলায় বিজেপির রথের চাকা আর গতি পায়নি। হাইকোর্টের পর সুপ্রিম কোর্টের আইনি লড়াইতেও হার হয় বিজেপির। লোকসভা ভোটের আগেই হার প্রেস্টিজ ইস্যু হয়ে গিয়েছিল দিলীপ ঘোষ-অমিশ শাহের কাছে। ঠিক ছিল রাজ্যের প্রায় সিংহভাগ লোকসভা,বিধানসভা আসন ছুঁয়ে বিজেপির রথযাত্রা শেষ হবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ব্রিগেডে ভাষণের মাধ্যমে। ৮

পঞ্চায়েতে জঙ্গলমহলে ধাক্কার পরে আদিবাসীদের কর্মসংস্থানে বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে রাজ্য সরকার

2011 সালে রাজ্যে পালাবদলের পর ক্ষমতায় এসেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন রাজ্যের বর্তমান মা-মাটি- মানুষের সরকার জঙ্গলমহলের মানুষদের জন্য ব্যাপক উন্নয়ন ঘটিয়েছে। শিক্ষা থেকে স্বাস্থ্য, অন্ন থেকে বাসস্থান জঙ্গলমহলে মানুষের দিকে বাড়তি নজর দিয়ে বারে বারে সেই জেলা সফরও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। 2 টাকা কেজি দরে চাল দেওয়া থেকে শুরু করে সুষ্ঠু

বিজেপির হাতে থাকা পঞ্চায়েত অবশেষে তৃণমূলের, বিজেপির জয়ী প্রার্থী শাসকদলে

২০১৮ র পঞ্চায়েত নির্বাচনে শাসকদলের ট্যাগ লাইন ছিল বিরোধী শূন্য পঞ্চায়েত চাই। প্রায় বেশিরভাগ পঞ্চায়েত শাসকদলের দখলে গেলেও একেবারে বিরোধী শুন্য হয়নি। দিও পঞ্চায়েতে হিংসার অভিযোগ এনে আদালতের দোরগোড়ায় অবধি গেছে বিরোধী দল গুলো। এদিকে এই নির্বাচনে রাজ্যে বিজেপি ভালো ফল করেছে। জঙ্গলমহলেও বিজেপি পঞ্চায়েতে জিতেছে। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না।

জঙ্গলমহলের মন জয় করতেই কি বিধানসভার ডেপুটি স্পিকারের চেয়ারে এবার বসতে চলেছেন এই বিধায়ক

বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার তথা হাওড়া উলুবেড়িয়া পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক হায়দার আজিজ সফির মৃত্যুতে বর্তমানে শূন্য রয়েছে রাজ্য বিধানসভার সেই ডেপুটি স্পিকারের আসনটি। সূত্রের খবর, বর্তমানে এই বিধানসভার ডেপুটি স্পিকারের পদে বসানোর জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে ঝাড়গ্রামের বিধায়ক ডাঃ সুকুমার হাঁসদাকে। ইতিমধ্যেই নবান্নের তরফে সেই সুকুমার বাবুর সমস্ত বায়োডাটা চেয়েও পাঠানো

গেরুয়া-ঝরে আক্রান্ত পশ্চিম মেদিনীপুরে ঘাসফুলের জমি ফিরিয়ে নিতে আসরে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী, হতে পারেন কল্পতরু

জঙ্গলমহলে জোড়াফুলের শক্তি ফেরাতে দুদিনের জেলা সফরে পশ্চিম মেদিনীপুরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পঞ্চায়েত নির্বাচনে যেভাবে পদ্মের উত্থান হয়েছে তৃণমূলের শক্তিকেন্দ্রে সেই জায়গা থেকে শাসকদলকে স্বমহিমায় ফেরাতে বিগ্রেড সমাবেশের আগে দলীয় কর্মীদের চাঙ্গা করতেই পশ্চিম মেদিনীপুরে পাড়ি জমালেন নেত্রী। প্রথমে কেশিয়াড়ি পরিষেবা প্রদান অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন তিনি। সেখান থেকে প্রায় শ'খানেক প্রকল্পের

জঙ্গলমহলের উন্নয়নের কোনো ফাঁক রাখতে চাইছে না সরকার, শুধু রাস্তা সারাইয়ে বরাদ্দ 71 কোটি

রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই জঙ্গলমহলের উন্নয়নে উদ্যোগী হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে সেই জঙ্গলমহলেরই তিন জেলা, পূর্ব, পশ্চিম মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রামের জন্য 200 টিরও বেশি রাস্তা সংস্কারে প্রায় 71 কোটি টাকা বরাদ্দ করল রাজ্য সরকার। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত নভেম্বর মাসের শুরুতেই রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তরের

Top
error: Content is protected !!