এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "internal clash"

সভাপতি নির্বাচন ঘিরে বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে, রনক্ষেত্র এলাকা

  দলে একতা থাকলে যে জয় নিশ্চিত, তা বারেবারেই প্রমাণিত হয়েছে। কিন্তু দলে অনৈক্যের কারণেই সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে অনেক আসনেই পর্যুদস্ত হতে হয়েছে। যার ফলে উত্থান ঘটেছে ভারতীয় জনতা পার্টির। কিন্তু তৃণমূলের ভেতরে মতানৈক্যের কারণেই যে তৃণমূলের অনেকটা হার হয়েছে, তা বুঝতে পেরেও নিজেদের শোধরানোর কাজ করছে না বিজেপি। প্রায় সব

আসানসোলের শক্ত ঘাঁটিতে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে জেরবার বিজেপি! বন্ধই হয়ে গেল সাংগঠনিক নির্বাচন

  2019 সালে রাজ্যের 18 টি লোকসভা আসনে জয়যুক্ত হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু 2014 সালের নির্বাচনে এই রাজ্যে মাত্র 2 টি লোকসভা কেন্দ্রে জয়যুক্ত হয়েছিল বিজেপি। তার মধ্যে অন্যতম উল্লেখযোগ্য ছিল, আসানসোল। যেখান থেকে প্রায় সকলকে চমকে দিয়ে জিতেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। এবারেও লোকসভা নির্বাচনে সেই আসন থেকে ব্যাপক মার্জিনে জয়যুক্ত হন।

অনুব্রত মণ্ডলের সামনেই দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে, তৃণমূল নেতার হুশিয়ারিতে জোর জল্পনা

  লোকসভা নির্বাচনের পর দলে শৃঙ্খলা আনা যে জরুরী, তা অনুধাবন করতে শুরু করে তৃণমূল কংগ্রেস। আর তারপরেই জেলায় জেলায় দলীয় গোষ্ঠী কোন্দল রোধ করার কড়া বার্তা দেওয়া হয়। তবে বেশ কিছু জেলায় তৃণমূলের নেতারা একত্রিত হয়ে চললেও, যে জেলা তৃণমূলের শক্তঘাঁটি বলে পরিচিত, যেখানকার নেতা অনুব্রত মণ্ডল, সেখানেই এবার প্রকাশ্যে

উপনির্বাচনের আগে আক্রান্ত বিজেপি নেত্রী, প্রকাশ্যে গোষ্ঠী কোন্দল, অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির

  আগামী 25 নভেম্বর করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন। তৃনমূলের দখলে এই কেন্দ্র থাকায় সেখানে তৃণমূলকে বিপাকে ফেলে বিজেপি ব্যাপক প্রচার শুরু করেছে। কিন্তু প্রচার শুরু করলেও যদি দলের অন্দরে কোন্দল থাকে, তাহলে কোনোমতেই জয় সম্ভব নয়। ইতিমধ্যেই অতীতের বেশ কয়েকটা নির্বাচনে তৃণমূলের অবস্থাতেই তা প্রমাণিত হয়ে গেছে বলে দাবি রাজনৈতিক মহলের।

সতর্ক করে মুখ্যমন্ত্রীর হেলিকপ্টার কোচবিহারের আকাশসীমা ছাড়াতেই ফের প্রকাশ্যে শুরু গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

  তৃনমূল দলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই সব। তাঁর নির্দেশ অমান্য করার মত ক্ষমতা কারোর নেই। তবে একটা দিক থেকে দলের ছোটো, বড়, মেজো নেতাদের নিজের নির্দেশ মানাতে পারছেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেটা হল দলের কোন্দল। দলের বিভিন্ন মিটিংয়ে বারবার বিভিন্ন জেলা তৃণমূল নেতাদের গোষ্ঠী কোন্দল না করার নির্দেশ দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু

বাঁকুড়ায় গেরুয়া মাটিতে পদের দাবিদার একাধিক! গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ক্রমশ তীব্র হওয়ার আশঙ্কায় বিজেপি

  লোকসভায় লাল মাটিতে বিজেপি পদ্ম ফোটাতে সক্ষম হয়েছিল। কিন্তু দল সাফল্য পাওয়ার পরই বিজেপির অন্দরে পদ পাওয়া নিয়ে যেভাবে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে, তাতে গেরুয়া শিবির কতটা কুসুমাস্তীর্ণ পথে চলতে পারবে, তা নিয়ে সংশয় রয়েই যাচ্ছে। জানা গেছে, শারদ উৎসবের আগেই বাঁকুড়া জেলায় বুথ সভাপতি এবং শক্তি কেন্দ্রের নির্বাচন প্রক্রিয়া শেষ

গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব রুখতে ব্যাপক রদবদল হতে চলেছে তৃণমূলের সাংগঠনিক স্তরে – জেনে নিন বিস্তারিত

  কথায় আছে, ঠেলায় না পড়লে বিড়াল গাছে ওঠে না। অবশেষে এবার সেই ঠেলাতে পড়েই ভালো ফলাফলের জন্য সংগঠন তৈরিতে জোর দিল তৃণমূল কংগ্রেস। বস্তুত, গত 2011 সালে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেস ভালো ফল করলেও 2016 থেকেই অবস্থার পরিবর্তন হতে শুরু করে। বালুরঘাটের বিধায়ক শংকর চক্রবর্তী থেকে শুরু করে বিপ্লব

তৃণমূলের দুই হেভিওয়েটের লড়াইয়ে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব শুরু বুথস্তর থেকে! চরম বিভ্রান্ত দলের কর্মীরা

  "দাদা, অংক কি কঠিন।" উত্তর দিনাজপুর জেলার তৃণমূলের অংক যেন মিলছে না কিছুতেই। নেত্রী এক, দলও এক। কিন্তু অঞ্চল থেকে ব্লক স্তরে একই দলের দুটি করে নেতা থাকায় এবার চরম সমস্যায় পড়লেন তৃণমূলের সাধারণ নেতাকর্মীরা। বস্তুত, ইসলামপুরে তৃণমূল বিধায়ক আব্দুল করিম চৌধুরী বনাম জেলা তৃণমূলের সভাপতি কানাইলাল আগরওয়ালের দ্বন্দ্ব কারও

এবার তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মেটানোর দায়িত্বও টিম পিকের ঘাড়ে!

  লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের পরাজয়ের পেছনে যেমন দুর্নীতি রয়েছে, ঠিক তেমনই দলের গোষ্ঠী কোন্দলও দায়ী বলে মনে করেন একাংশ। আর উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে যাওয়ার ঘটনা খুব একটা ভালো ভাবে মেনে নিতে পারেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার পরেই দলীয় সংগঠন চাঙ্গা করতে প্রশান্ত কিশোরের মত রণনীতিকারকে নিয়োগ করেন তিনি। ইতিমধ্যেই সেই

রাস্তায় আলো লাগানো নিয়ে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রণক্ষেত্র ভবানীপুর! পড়ছে মুড়ি-মুড়কির মত বোমা!

  দলীয় স্তরে বারবার শৃংখলার বার্তা দিয়েও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। ফের তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে এবার রণক্ষেত্র হয়ে উঠল হাসনাবাদের পার ভবানীপুর এলাকা। রাস্তায় ইলেকট্রিক পোলে আলো লাগানোকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে এদিন প্রবল চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছে যায় যে, গুলি থেকে শুরু করে বোমা

Top
error: Content is protected !!