এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "heavyweight"

আস্থা নেই সরকার বা দিদিকে বলোতে? হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার পদক্ষেপ ঘিরে তীব্র জল্পনা

লোকসভা নির্বাচনে ফলাফল অত্যন্ত খারাপ হওয়ায় জনসংযোগে যথেষ্ট ত্রুটি রয়েছে অনুধাবন করে একাধিক জনসংযোগ মূলক কর্মসূচি নিতে দেখা যায় তৃনমূল কংগ্রেসকে। "দিদিকে বলো" প্রকল্প করে যেমন তৃণমূলের নেতা থেকে জনপ্রতিনিধিদের মানুষের বাড়ি বাড়ি পাঠিয়ে তাদের অভাব, অভিযোগ শুনতে চাইছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী নিজে, ঠিক তেমনই গ্রিভান্স সেলের মাধ্যমেও মানুষের অভিযোগ লিপিবদ্ধ

তৃণমূলের সুযোগ-সুবিধা নিয়ে “বহিরাগতকে” ভোট! অভিমান ঝরে পড়ছে হেভিওয়েট মন্ত্রীর গলায়!

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল 42 এ 42 স্লোগান দিলেও 22 টি আসনে নেমে আসতে হয়েছে তাদের। সারা রাজ্য থেকে প্রায় 18 টির মত আসন দখল করেছে গেরুয়া শিবির। তবে বিজেপি যে সমস্ত আসন দখল করেনি, সেখানেও বিজেপির ভোট প্রবলভাবে বৃদ্ধি হওয়ার ঘটনা লক্ষ্য করা গেছে। তৃণমূলের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর

নাগপুরে সঙ্ঘের হেড-কোয়ার্টারে হেভিওয়েট প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ- বাড়ছে জল্পনা

রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকেই শুরু হয়েছিল বিজেপির অগ্রগমন। আর লোকসভা নির্বাচনের পরে তো গেরুয়া শিবির রীতিমত নিঃশ্বাস ফেলছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ঘাড়ে। ইতিমধ্যেই বিজেপি নেতা-নেত্রীরা হুঙ্কার দিয়ে রেখেছেন, খুব শীঘ্রই নাকি তৃণমূল কংগ্রেসে এমন ভাঙন শুরু হবে যে, রাজ্য সরকার তার নির্দিষ্ট ২০২১ পর্যন্ত সময়কাল অতিবাহিত করতে পারবে না। আর

পুজোর মুখেই বড়সড় ধাক্কা খেলেন তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা, হারালেন পদ,জোর শোরগোল

উত্তরবঙ্গে বিগত লোকসভা নির্বাচনে ধুয়েমুছে সাফ হয়ে চলে গেছে তৃনমূল কংগ্রেস। এখানে আটটি লোকসভা সিটের মধ্যে সিট দখল করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। অন্যদিকে মালদা দক্ষিণে একটি সিট দখল করে টিমটিম করে জ্বলছে জাতীয় কংগ্রেস। কিন্তু উত্তরের রাজনৈতিক রনাঙ্গনে মাথা গোঁজার ঠাঁইটুকু পর্যন্ত নেই শাসকদলের। যে সাতটি লোকসভা আসনে উত্তরবঙ্গে জয়যুক্ত হয়েছে

গেরুয়া শিবিরের শক্তি বাড়াতে এবার যোগ দিলেন দুই হেভিওয়েট মহাতারকা

লোকসভা নির্বাচনের আগে এবং পরে সমাজের অনেক বিশিষ্টজনেরা পদ্ম শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন। আর এবার বিজেপিতে যোগ দিলেন অলিম্পিক পদকজয়ী পদ্মশ্রী যোগেশ্বর দত্ত এবং জাতীয় হকি দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সন্দীপ সিং। জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিজেপিতে যোগদানের পর যোগেশ্বর দত্ত বলেন, "আমি মানুষের সেবা করতে চাই, আর এই বিষয়ে আমি মোদিজীর কাছ থেকে

এই হেভিওয়েট সাংসদের সঙ্গে কি ক্রমশ দূরত্ব বাড়ছে বঙ্গ-বিজেপির! তীব্র হচ্ছে জল্পনা

একসময় পদ্ম শিবিরে যোগ দিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মহিলা বাহিনীর নেতৃত্ব দিয়ে রাজ্য সরকারের অস্বস্তিকে অনেকটাই বাড়িয়ে দিতে সক্ষম হয়েছিলেন তিনি। বঙ্গ বিজেপি তরফেও তাকে "প্রতিবাদী" হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বেশ কিছুদিন আগে থেকেই তাকে আর বিজেপির প্রথম সারিতে দেখা যাচ্ছে না। মানুষ হারিয়ে গেলেও তার হারিয়ে যাওয়া নিয়ে একটা

নিজের খাসতালুকেই বোমাবাজি দলীয় নেতার বাড়িতে – আরও চাপে হেভিওয়েট তৃণমূল মন্ত্রী?

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে থেকেই বিভিন্ন সময় উত্তপ্ত হতে দেখা গেছে কোচবিহারকে। কখনও তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, আবার কখনও বা বিজেপি বনাম তৃণমূলের সংঘর্ষ। দলীয় স্তরে তা রোধ করার কথা বললেও সেই সংঘর্ষের রেওয়াজ কমতে দেখা যায়নি কোচবিহারে। আর এবার কোচবিহার জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি তথা রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রীর নিজের বিধানসভা কেন্দ্র নাটাবাড়ির

পদ হারালেন রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী, দ্বায়িত্ব পেলেন অন্য হেভিওয়েট নেতা,জোর শোরগোল রাজ্যজুড়ে

তিনি দক্ষ সংগঠক। শিলিগুড়ির তৃণমূলের মাথাও ছিলেন তিনি। দলের জন্মলগ্ন থেকেই শিলিগুড়িতে তার ওপর ভরসা রেখেছিল তৃণমূল। আর এহেন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব তথা রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবকে এবার দার্জিলিং জেলা তৃণমূলের সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দিল ঘাসফুল শিবির। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রবল গুঞ্জন শুরু হয়েছে সব মহলে। সূত্রের খবর, এদিন দার্জিলিং

রাজ্যে মাংসের ঘাটতি মেটাতে বিকল্প পরিকল্পনা নিচ্ছে রাজ্য সরকার

মাংসের ঘাটতি চলছে। আর তাই এবার গাড়োল ভেড়া চাষ করে বাংলায় সেই মাংসের ঘাটতি মেটানোর পরিকল্পনা করছে রাজ্য প্রাণিসম্পদ দপ্তর। সূত্রের খবর, আপাতত বহরমপুরে রাজ্য প্রাণিসম্পদ দপ্তর গাড়োল ভেড়া পরীক্ষামূলকভাবে চাষ করবে। আর যদি তা সফলতা পায়, তাহলেই রাজ্যের বিভিন্ন গ্রামে তা দেখতে পাওয়া যাবে। বস্তুত, কিছুদিন আগেই সারগাছি রামকৃষ্ণ

হেভিওয়েট নেতাকে বহিস্কার করেও রেহাই নেই! আরও চওড়া শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফাটল!

উত্তর দিনাজপুর জেলায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব কিছুতেই কমছে না। রায়গঞ্জ সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান মাসুদ মহম্মদ নাসিম এহসানকে দল থেকে বহিষ্কার ইস্যুতে এবার গোয়ালপোখর ব্লকে শাসকদলের গোষ্ঠীকোন্দল প্রকাশ্যে চলে এল। বস্তুত, বর্তমানে রাজ্যের পঞ্চায়েত দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী গোলাম রব্বানির খাসতালুকে খোদ শাসকদলের এই পরিণতি জেলাজুড়ে রাজনৈতিক মহলের তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। সূত্রের খবর, বুধবার

Top
error: Content is protected !!