এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "govt employee"

রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য ধাক্কা, জেনে নিন

  এবার ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুসারে বর্ধিত হারে বেতন পাওয়ার জন্য রাজ্য সরকারি কর্মীদের অপশন দেওয়ার সময়সীমা বৃদ্ধি করা হল। সূত্রের খবর, সম্প্রতি অর্থ দপ্তরের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আগামী কুড়ি জানুয়ারি পর্যন্ত এই অপশন দেওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে গত জানুয়ারি মাস থেকে রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের বেতন কমিশনের সুপারিশের ভিত্তিতে

CAA-র সমর্থনে কর্মসূচী নিল সরকারি কর্মচারী পরিষদ,জেনে নিন

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন দেশে লাগু হওয়ার পর থেকেই সরকার বনাম বিরোধীদের তরজা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। তৃণমূল থেকে কংগ্রেস, প্রায় প্রতিটি বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দল ইতিমধ্যেই ময়দানে নেমে এই ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রচার করছে। পাল্টা বিরোধীদের যুক্তি খন্ডন করতে ময়দানে নামতে দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত

বড়সড় সুখবর রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য, বাড়ছে বেতন জেনে নিন

  দীর্ঘদিন ধরেই বেতন বৃদ্ধি নিয়ে রাজ্যের তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে সরব সরকারি কর্মচারীরা। কিন্তু অবশেষে নতুন বছরে নতুন সুখবর পেতে চলেছেন রাজ্যের সেই সরকারি কর্মচারীরা। সূত্রের খবর, আগামীকাল 2020 সালের পয়লা জানুয়ারি থেকেই রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের জন্য লাগু হচ্ছে ষষ্ঠ বেতন কমিশন। যা নিঃসন্দেহে নতুন বছরের শুরুর দিনে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মনে

রাজ্য সরকারি কর্মীদের সুবিধার্থে নয়া ফরমান জারি হতে চলেছে ! জেনে নিন বিস্তারিত

এবার বড়সড় সুখবর পেতে চলেছেন রাজ্যের এক শ্রেণীর সরকারি কর্মীরা। জানা গেছে, দীর্ঘ প্রায় এক দশক পর "রিএমবার্সমেন্ট ক্লেম ফর্মে" বদল আনল রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, সম্প্রতি রাজ্যের অর্থ দপ্তরের সচিব পারভেজ আহমেদ সিদ্দিকী এই নতুন সিদ্ধান্তের কথা বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু কি বলা হয়েছে সেই বিজ্ঞপ্তিতে! দেখা

সরকারি কর্মীদের জন্য বড়সড় সুখবর, জেনে নিন বিস্তারিত

  অবশেষে সরকারি কর্মীদের সুখবর শোনাতে চলেছে রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, এবার বড়সড় সুখবর আসতে চলেছে রাজ্যের অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীদের জন্য। জানা গেছে, সম্প্রতি নতুন বেতন কমিশনের সুপারিশ মোতাবেক পেনশন ভোগীদের আর্থিক সুবিধা দিতে অর্থ দপ্তরের পক্ষ থেকে নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। যে বিজ্ঞপ্তির ফলে এবার পারিবারিক পেনশনভোগীরা তাদের সমস্ত

কর্মচারীদের সঙ্গে বড় ধোঁকা? পিএফ কেটেও জমা করছে না 13 হাজার সংস্থা? শুরু তীব্র জল্পনা

  কর্মচারীদের থেকে পিএফ আদায় করে, সময়ে তা সরকারের কাছে জমা না করার অনেক নজির রয়েছে। রাত্রে তো বটেই, গোটা দেশের বিভিন্ন জায়গাতেও এই পিএফের টাকা নয়ছয় করার অভিযোগ ওঠে বিভিন্ন সময়। পিএফের গ্রাহকদের হয়রানি রুখতে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে কড়া বার্তা দেওয়া হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। জানা গেছে, বর্তমানে এরাজ্যের প্রায়

বড়সড় সুখবর, ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশের সুবিধা পেতে পারেন এই সব সরকারি কর্মীরাও

ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশের সুবিধা কোন কোন স্তরের সরকারি আধিকারিকরা পাবেন, তা নিয়ে অনেকের মনেই আশা এবং আশঙ্কা দুই তৈরি হয়েছিল। তবে এবার জানা গেল, মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক বোর্ডের কর্মীরাও এই ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুবিধা পেতে পারেন। এছাড়াও মাদ্রাসা বোর্ডের কর্মী, রাজ্যের সাহায্যপ্রাপ্ত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের নন টিচিং স্টাফ এবং কর্মীরাও

রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য এবার বড়সড় পদক্ষেপ রাজ্য সরকারের – জানুন বিস্তারিত

রাজ্য সরকারি কর্মীদের ক্ষেত্রে সার্ভিস বুকে অনিয়ম-জালিয়াতি রুখতে ই-সার্ভিস বুক আনতে চলেছে রাজ্য সরকার। ইতিপূর্বেই অনেক সময় জন্মতারিখ পরিবর্তন করে দিয়ে অবসরের সময় পাল্টে দেওয়ার চেষ্টা করার অভিযোগ উঠেছে একাধিক কর্মচারীর বিরুদ্ধে। আবার প্রতিহিংসার কারণে কোনো কর্মীর সার্ভিস বুক নষ্ট করে দিয়ে তাকে হয়রানির শিকারের মুখে পড়তে বাধ্য করা হয়েছে। মূলত

পুজোর মুখেই সরকারি কর্মীদের জন্য বড়সড় ধাক্কা, নির্দেশিকা জারি নবান্নের

পুজোর মরসুমে প্রায় সকলেই চান আনন্দে বাড়িতে সকলের সঙ্গে সময় কাটাতে। তার ওপরে এবার অষ্টমী পড়েছে রবিবার। সেক্ষেত্রে খাসির মাংস দিয়ে গরম ঝোলের সঙ্গে বাসমতি চালের ভাত খাওয়ার আনন্দ মিস করতে রাজি নন প্রায় প্রতিদিনই অফিস টাইমে যাতায়াত করা যাত্রীরা। কিন্তু হয়ত তাদের অর্থ্যাৎ অনেক সরকারি কর্মীদের কপালে সেই সুখ

নতুন পে-কমিশনের সুপারিশ গ্রহণ করা হলেও কি পাবেন না সব সরকারি কর্মচারীরা? বাড়ছে জল্পনা

ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য সুখবর দিয়েছে রাজ্য সরকার। সরকারি কর্মীদের জন্য পে কমিশনের সুপারিশ গ্রহণ করার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী সরকারি কর্মচারীদের জন্য এই সুখবর ঘোষণা করলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীরা তা নিয়ে চরম বিভ্রান্তিতে পড়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীরা আদৌ এই কমিশনের আওতায় আসবেন কি না, তা নিয়েই

Top
error: Content is protected !!