এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "election"

নির্বাচনের আগে জোড়া ধাক্কায় বেসামাল গেরুয়া শিবির, পাল্টা দিতে নতুন রণকৌশলের খোঁজ

  কিছুদিন পরেই ঝাড়খন্ডে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আর তার ঠিক আগেই সময়টা যেন খুবই খারাপ যাচ্ছে ভারতীয় জনতা পার্টির। জানা গেছে, আগামী 30 নভেম্বর ঝাড়খন্ড বিধানসভার নির্বাচন শুরু হচ্ছে। পাঁচ দফার সেই নির্বাচন সমাপ্ত হবে আগামী 20 ডিসেম্বর। ইতিমধ্যেই ঝাড়খণ্ডের বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে সমস্ত রাজনৈতিক দল তাদের রণনীতি সাজাতে শুরু

ছাত্র নির্বাচন নিয়ে এবার মাঠে নামল তৃণমূল, জেনে নিন

দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ছাত্র সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় না। যার ফলে বিরোধী ছাত্র সংগঠনগুলোর তরফে কলেজ ক্যাম্পাসে নানা সময় নানা অভিযোগ তুলে আন্দোলন করতে দেখা গেছে। তবে তিন বছর ধরে রাজ্যের কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ছাত্র সংসদ নির্বাচন না হলেও অবশেষে এই নির্বাচন প্রক্রিয়া করানোর ব্যাপারে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছে রাজ্য

  সাধারণের অভাব- অভিযোগ শোনার মত দলীয় কর্মীই নেই! বিস্ফোরক অভিযোগে অস্বস্তিতে শাসকদল

  লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির পর জনসংযোগ থেকে দল বিচ্ছিন্ন হয়েছে, একথা অনুধাবন করতে পারেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপরই দলের রণনীতিকার হিসেবে তিনি নিয়োগ করেন ভোট গুরু প্রশান্ত কিশোরকে। আর ভোটগুরু দায়িত্ব নেওয়ার পরেই লক্ষ্য করা যায় "দিদিকে বলো" কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে সাধারণ মানুষের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে তাদের অভাব-অভিযোগ

নির্বাচনে বাজিমাত করতে ক্লাবগুলিকে “কব্জা” করতে তৃণমূল নেতাদের নতুন উদ্যোগ নিয়ে জল্পনা!

  বাংলার রাজনীতি বরাবরই ক্লাব কেন্দ্রিক। যে দল যখন ক্ষমতায় থাকে, তখন তার দিকেই বিভিন্ন ক্লাবগুলো ঘেষতে শুরু করে। বিরোধীদের দাবি, এই ক্লাবের ছেলেপেলেদের সমর্থন পাওয়ার জন্যই তাদের আর্থিক অনুদান দেয় তৃণমূল সরকার। যদিও বা তাতে গুরুত্ব দিতে নারাজ রাজ্যের শাসক দল। তবে সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে যেভাবে সারা রাজ্যে তৃণমূলের ভরাডুবি হয়েছে,

‘উধাও’ প্রধান বিরোধীরা! তবুও এই রাজ্যের নির্বাচনে চরম ধাক্কা খেয়ে বেসামাল গেরুয়া শিবির!

2019 এর লোকসভা ভোটে নরেন্দ্র মোদি দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসার পর, সাথে সাথেই সিদ্ধান্ত নেন কাশ্মীর থেকে 370 ধারা ও 35 এর এ ধারা বিলুপ্ত করার। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হওয়ার পরে সারা দেশ জুড়েই চলতে থাকে প্রবল বিতর্ক‌। বিরোধীরা প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তকে এক কথায় নাকচ করে দিয়ে জানান, ধারা বিলুপ্তির ফলে

ভোট শুরু মহারাষ্ট্র-হরিয়ানায় – ক্ষমতায় কে আভাস স্পষ্ট সন্ধ্যের মধ্যেই

দীপাবলীর আগেই কথামতো শুরু হলো নির্বাচন মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায়। বিধানসভার সাধারণ নির্বাচন শুরু হলো আজ একুশে অক্টোবর। নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে বহু আগে থেকেই মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় রাজনৈতিক দলগুলি তাঁদের প্রচার সেরে রেখেছে। আজকের নির্বাচনে দেখা যাবে, শাসকের আসনে কে বসবে। আগের সরকার না নতুন সরকার। বিভিন্ন ইস্যুতে ইতিমধ্যে বিজেপি সরকারকে

কি হতে চলেছে হরিয়ানায়, সামনে এল এবিপি নিউজ- সি ভোটারের সমীক্ষার ফলাফল

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রের ক্ষমতায় বিজেপি আসতে পারবে না বলে বিভিন্ন বিরোধী রাজনৈতিক দলের তরফে দাবি করা হলেও শেষ পর্যন্ত সারাদেশে গেরুয়া ঝড় লক্ষ্য করা গেছে। শুধু তাই নয়, গত 2014 সালে বিজেপি নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে কেন্দ্রে যতগুলো আসন নিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল, তার থেকে অনেক বেশি আসন নিয়ে 2019

ফের তৃণমূলের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেটের অভিযোগ- বাতিলই হয়ে গেল নির্বাচন!

মাঝে এক বছর নির্বাচন হয়নি। কথা ছিল 31 অক্টোবর তারকেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত মন্ডলীর কার্যকরী সমিতির সেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু প্রথম থেকেই এই নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অশনিসংকেত দেখতে পাওয়ায় অনেকের মনেই সেই নির্বাচন হওয়া নিয়ে তীব্র জল্পনার সৃষ্টি হয়। দেখা যায়, নির্বাচনে যে সমস্ত প্রার্থীরা অংশগ্রহণ করছেন, তাদের অনেকেই বিভিন্ন রকম কারণ

নির্বাচনে বড়সড ধাক্কা খেল বিজেপি, খুশির হাওয়া তৃণমূল শিবিরে

গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে জয়লাভ করেছে ভারতীয় জনতা পার্টির প্রার্থী দেবশ্রী চৌধুরী। বাংলায় যে দুইজন সাংসদ কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন, তাদের মধ্যে অন্যতম দেবশ্রী চৌধুরী। কিন্তু সেই উত্তর দিনাজপুর জেলাতেই সবকটি বুথে সাংগঠনিক নির্বাচন করতে পারল না ভারতীয় জনতা পার্টি। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা

.চলতি বছরের শেষে বিধানসভা নির্বাচন, কার দিকে পাল্লা ভারী, সামনে এল এবিপি আনন্দ-সি ভোটার জনমত সমীক্ষা

হাতে আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। আর তারপরই মহারাষ্ট্র, হরিয়ানা এবং ঝাড়খণ্ডে বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আর এরই মাঝে এবার এক সমীক্ষা সামনে চলে এল। এবিপি আনন্দ-সি ভোটার জনমত সমীক্ষায় ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে যে, এই তিন রাজ্যে ক্ষমতায় ফিরতে পারে বিজেপি। অন্যদিকে ঝাড়খণ্ডে যদি জোট না হয় তাহলে বিরোধীদের কড়া

Top
error: Content is protected !!