এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "election commission"

বুথ ফেরত সমীক্ষা নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত জানাল নির্বাচন কমিশন

হাতে আর মাত্র দুদিন বাকি। তারপরেই মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও 17 টি রাজ্যের 51 টি বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন রয়েছে এদিন। ইতিমধ্যেই এই মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নানা বুথ ফেরত সমীক্ষা সামনে এসেছে। তবে এবার সেই বুথ ফেরত সমীক্ষা নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিল নির্বাচন

ভোটে ভোটারের প্রাণ যাবার পর কি আরও কড়া হবে নির্বাচন কমিশন? বাড়ছে বিরোধীদের ক্ষোভ

লোকসভা নির্বাচনের দামামা বাজবার বহু আগে থেকেই এবারের নির্বাচনে বাংলায় যাতে কোনোরুপ অশান্তি না হয়, তার জন্য প্রতি বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখবার আর্জি জানিয়ে এসেছিল বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। আর সেইমতো ভোট শুরুর পরে প্রথম দফার ভোট সম্পন্ন হতে না হতেই বিরোধীদের পক্ষ থেকে বিভিন্ন বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকায় পরবর্তী

তৃতীয় দফার ভোটে গেল প্রাণ, নির্বাচন কমিশন কি ব্যর্থ?

সাত দফার মধ্যে ইতিমধ্যেই তিন দফায় ভোট সম্পূর্ণ হয়েছে। প্রথম দফায় প্রতি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকায় গণতন্ত্র প্রহসনে পরিণত হয়েছে বলে পরবর্তী দফাগুলোতে যাতে প্রতি বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়া যায় তার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে আর্জি জানিয়েছিল বিরোধীরা। সেইমতো দ্বিতীয় দফায় নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে কিছুটা হলেও কড়া করেছিল কমিশন। এমনকি তৃতীয়

বড়সড় শাস্তির মুখে বাবুল সুপ্রিয়, প্রার্থীর বিরুদ্ধে জোড়া এফআইআর করল খোদ নির্বাচন কমিশন

বাবুল সুপ্রিয় আসানসোল লোকসভা থেকে বিদায়ী সংসদ ও বিজেপি প্রার্থী। আর এই বাবুল সুপ্রিয় এখন বড়সড় শাস্তির মুখে পড়লেন। জানা যাচ্ছে তাঁর বিরুদ্ধে খোদ নির্বাচন কমিশন জোড়া এফআইআর দায়ের করেছে। মূলত দুটি এফআইআর এর একটি - নির্বাচন কমিশনের কর্মীর ক্যামেরা ভেঙে দেওয়া , আর দু নম্বর -কমিশনের আপত্তি সত্ত্বেও প্রচারে বিজেপির

অজয় নায়েকের পর এবার বিবেক দুবে- রাজ্যের শাসকদলের উপর চাপ বাড়িয়ে বড়সড় দাবি

অজয় নায়েকের পর এবার বিবেক দুবে। রাজ্যের শাসকদলের উপর চাপ বাড়িয়ে এদিন তিনি দাবি করেন যে, প্রথম দফায় কিছু কিছু জায়গায় গাফিলতি ছিল। আর তাই প্রথম ও দ্বিতীয় দফা থেকে শিক্ষা নিয়ে তৃতীয় দফায় ভোট করানো হবে। এর এই নিয়ে কমিশণেও কথা বলবেন তিনি। এদিন তিনি দাবি করেন যে, কোচবিহার ও

দুষ্কৃতীদের হাতে লুন্ঠিত রায়গঞ্জের গণতন্ত্র, ‘দেদার ছাপ্পার’ খবর করতে গিয়ে আক্রান্ত সংবাদমাধ্যম

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলার ৪২ টি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে বোধহয় সবথেকে বেশি আগ্রহ তৈরী হয়েছিল রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র নিয়ে। কেননা সেখানে প্রার্থী হিসাবে দাঁড়িয়েছিলেন চার হেভিওয়েট - তৃণমূল কংগ্রেসের কানাইয়ালাল আগরওয়াল, বিজেপির দেবশ্রী চৌধুরী, সিপিএমের মহম্মদ সেলিম এবং কংগ্রেসের দীপা দাশমুন্সি। ফলে চতুর্মুখি লড়াইয়ে টানটান উত্তেজনার মধ্যে খুব অল্প ব্যবধানে

আবার নির্বাচনী বিধি ভেঙে কমিশনের রোষানলে দুই দলের দুই হেভিওয়েট নেতা- নেত্রী

সম্প্রতি নির্বাচনের আদর্শ আচরণ বিধি ভেঙে বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য উত্তরপ্রদেশের বিজেপির হেভিওয়েট মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবং বহুজন সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো মায়াবতীর প্রচারের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। আর এবার সেই যোগী এবং মায়াবতীর তালিকাতেই যুক্ত হল আজম খান এবং মানেকা গান্ধীর নাম। সূত্রের খবর, বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য নির্বাচনী

জমজমাট ভোটযুদ্ধ – নববর্ষের মোড়কে প্রচারে ঝড় তুললেন প্রসূন থেকে লকেট, জয় থেকে সোমা

কথায় আছে, সকালটা দেখলেই বোঝা যায়, সারা দিনটা কেমন যাবে। আর তাইতো বাংলা বছরের শুরুর দিনেই যেভাবে লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শাসক বনাম বিরোধীরা একে অপরকে টেক্কা দিতে প্রচারপর্বে ভাসলো, তা দেখে প্রায় প্রত্যেকেই মনে করতে শুরু করেছেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে শাসক-বিরোধী জমজমাট লড়াই হতে চলেছে। সূত্রের খবর, এদিন বছরের শুরুর

আজ থেকে শুরু প্রথমদফার ভোটগ্রহণ, সুষ্ঠ ও অবাধ নির্বাচনের লক্ষ্যে একগুচ্ছ পদক্ষেপ কমিশনের

আজ থেকেই শুরু হতে চলেছে লোকসভা নির্বাচন। নির্বাচন কমিশনের নির্ঘন্ট অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার রাজ্যের উত্তরবঙ্গের 2 জেলা কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ারে প্রথম দফার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। জানা গেছে, কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ার - এই দুই লোকসভা কেন্দ্র মিলিয়ে মোট ভোটারের সংখ্যা 34 লক্ষ 54 হাজার 276 জন। মূলত আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে

জঙ্গলমহলে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকুক নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ রাজ্য পুলিশের

2011 সালে রাজ্যে পালাবদলের পরই একদা মাওবাদীদের দুর্গ হিসেবে পরিচিত এবং প্রতিদিনই রক্তপাত ঘটায় জঙ্গলমহলে তাদের উদ্যোগেই শান্তি ফিরেছে বলে বিভিন্ন সময়ে প্রচার করতে দেখা যায় রাজ্যের শাসক দলের নেতাদের। এমনকি ক্ষমতায় এসে বারে বারে জঙ্গলমহলে গিয়ে মাওবাদী দৌরাত্ম্য নেই বলে গর্ববোধ করতে দেখা গেছে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও। কিন্তু অশান্তি

Top
error: Content is protected !!