এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "cut money"

কাটমানি ও অবৈধ বালি খাদান নিয়ে এ কি বললেন শুভেন্দু অধিকারী! জেনে নিন

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল রাজ্যের 42 টি লোকসভা আসন এর মধ্যে 22 টি আসন পাওয়ার পরই কিভাবে ঘুরে দাঁড়ানো যাবে, তা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছিল তৃনমূল। তবে দুর্নীতি যে দলের অনেকাংশেই বাসা বেধেছে, তা আঁচ করতে পেরে কোনো দুর্নীতির সঙ্গে দলের নেতাকর্মীদের যুক্ত থাকা যাবে না বলে জানিয়ে গিয়েছিলেন

কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে এবার গণপিটুনির শিকার তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার ভাই, জোর চাঞ্চল্য

"জনতার মার কেওড়াতলা পার" - এই শব্দটা অনেক ক্ষেত্রেই নানা সিনেমার দৌলতে আমরা শুনেছি। কিন্তু কখনও তা পরখ করা হয়ে ওঠেনি। কিন্তু এবার কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে সেই জনতার হাতে বেধড়ক মার খেতে হল তৃণমূল নেতার ভাইকে। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই দুর্নীতিই যে এই খারাপ ফলাফলের পেছনে

স্কুলের পরীক্ষার প্রশ্নপত্রেও জয় শ্রীরাম, কাটমানির প্রসঙ্গ, জোর চাঞ্চল্য

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে রাজ্য রাজনীতিতে দুটি বিষয় নিয়ে শাসক দল তৃণমূল বনাম বিরোধী দল বিজেপির মধ্যে তরজা চরম আকার ধারণ করেছিল। যার মধ্যে একটি হল রামধ্বনী এবং অপরটি হল কাঠমানি ইস্যু‌। শাসক দল তৃণমূলের অভিযোগ ছিল, রামের নাম করে বিজেপি বাংলা জুড়ে অশান্ত পরিস্থিতি তৈরির চেষ্টা করছে। অন্যদিকে দুর্নীতি রুখতে

উলটপুরান রাজ্যে, এবার কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনুধাবন করতে পেরেছিলেন যে দলের রন্ধ্রে রন্ধ্রে দুর্নীতি জাঁকিয়ে বসেছে। আর তাই তো সেই দুর্নীতিকে বন্ধ করবার জন্য নজরুল মঞ্চে দলের কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকের পর যে বা যারা কাটমানি খেয়েছে, তার টাকা তাদেরকেই ফেরত দিতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। আর

কাটমানি নিয়ে উত্তাল তৃণমূলের পাশাপাশি বিজেপিও, মুকুল -শুভ্রাংশুর নামে পোস্টার, জোর শোরগোল রাজ্যে

লোকসভা ভোটের পর তৃণমূল নেত্রী প্রকাশ্য সভায় নেতা কর্মীদরে উদ্দেশ্যে জানিয়েছিলেন যে কাটমানি নিয়ে থাকলে ফেরত দিয়ে দাও। আর তার পরেই একের পর এক তৃণমূলের নেতা নেত্রীর বাড়িতে চড়াও হয়ে সাধারণ মানুষ কাটমানি ফেরত নিচ্ছে আবার ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে। আর তাদের মন পেতে সঙ্গ দিচ্ছে বিজেপির নেতা কর্মীরা। তারাও ক্ষোভে

দলে যোগ দিতেও কাটমানি! অভিনব অভিযোগ উঠল বিজেপির অন্দরে

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্য -রাজনীতিতে প্রত্যাশাতিরিক্ত ভালো ফলের পর ভারতীয় জনতা পার্টিতে সদস্য হিসেবে নাম লেখানোর যে হুজুক উঠেছে তা এই রাজ‍্যের নিরিখে নজিরবিহীন |এরই পাশাপাশি সদস্য সংগ্রহ অভিযানকে কেন্দ্র করে নিচুতলার নেতাদের বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ  নতুন করে বিজেপির অস্বস্তি বাড়াচ্ছে। 6ই জুলাই দেশ জুড়ে সদস্য সংগ্রহের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে ভারতীয় জনতা

কাটমানি নিয়ে উত্তাল বর্ধমান, তৃনমূল নেতাদের সামাজিক বয়কটের ডাক

লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফল প্রকাশ্যে আসার পরই দুর্নীতি যে দলে জাঁকিয়ে বসেছে, তা ধরতে পেরেছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এরপরই রীতিমতো মাস্টারস্ট্রোক দিয়ে কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে "কেউ কাটমানি খেলে তা তাকেই ফেরত দিতে হবে" বলে জানিয়ে দেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান। আর এরপরই দিকে দিকে তৃণমূল থেকে দুর্নীতিগ্রস্ত

কাটমানি মন্তব্যের জের,মন্ত্রীর ক্ষমা চাওয়ার দাবিতে শুরু হল পথ অবরোধ, বিক্ষোভে স্তব্ধ এলাকা

কাটমানির বিস্ফোরক অভিযোগ তুললেন রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। এইদিন শিলিগুড়িতে এসজেডিএ এর জমিতে নির্মিত বিধানমার্কেটে পরিদর্শনে যান তিনি. কিছুদিন আগে একটি দুর্ঘটনার কবলে পরে কয়েকটি দোকান আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গেছিল। বিধান মার্কেটে আগুনে পুড়ে যাওয়া দোকান ঘরগুলির নির্মাণকাজ পরিদর্শনে এসে এই অভিযোগ তুললেন তিনি।তাঁর এই অভিযোগের পর স্থানীয় ব্যবসায়ীরা এলাকায়

 “যারা কাটমানি দিয়েছেন তারাও দোষী” বিধানসভায় বিস্ফোরক হেভিওয়েট মন্ত্রী

কথায় আছে, যখন কেউ অস্বস্তি সহ্য করতে পারে না, ঠিক তখনই তারা উল্টোদিকে অভিযোগের আঙুল তুলতে শুরু করে। ঠিক এইরকমই যেন অবস্থা হয়েছে রাজ্যের বর্তমান শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের। যার কারণ হিসেবে বিশ্লেষকরা বলছেন, লোকসভা নির্বাচনে এবার তৃণমূলের ফলাফল অত্যন্ত খারাপ হয়েছে। 22 টা আসন দখল করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের। আর

এবার দুর্নীতির অভিযোগ উঠল তৃনমূল কাউন্সিলর, তার স্বামী ও দিব্যেন্দুর বিরুদ্ধে, চাঞ্চল্য শুভেন্দু গড়ে

লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবি পর ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে দুর্নীতিতে প্রধান ভাবে দায়ী তা বুঝতে পেরেছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাইতো দলকে স্বচ্ছভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে গত 18 জুন কলকাতার নজরুল মঞ্চে দলীয় কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে এই কাটমানি যাতে না নেওয়া হয়, তার ব্যাপারে সকলকে সতর্ক করে দিয়েছিলেন

Top
error: Content is protected !!