এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "councilor" (Page 2)

বিজেপি ছেড়ে ফের ঘরে ফিরেই দায়িত্ব কাঁধে তুলল কাউন্সিলররা, তাও পুরসভা নিয়ে বড়সড় দাবি মুকুল পুত্রের

এক সময় বঙ্গ রাজনীতির নজর কেড়েছিল সিঙ্গুর এবং নন্দীগ্রাম। কৃষিজমি বনাম শিল্পের দ্বন্দ্বে তখন উত্তাল বঙ্গসমাজ। রাজনীতির আনাচে-কানাচে কিংবা সুশীল সমাজের মধ্যে তখন ন্যায়-অন্যায়ের চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছে। আর এই সব কিছুর মধ্যেই সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম আন্দোলনের নেতৃত্ব দিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন তদানীন্তন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেত্রী সেইসময় নির্ভীকভাবে কৃষকদের পাশে

হালিশহর নিয়ে বিস্ফোরক অর্জুন সিংহ, জানালেন ভেতরের কথা

লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর ডাক দিয়েছিলেন। কিন্তু তার সেই স্লোগান বাস্তবে রূপায়িত করতে পারেনি তার সৈনিকেরা। উল্টে 22 টি আসন দখল করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ঘাসফুল শিবিরকে। অন্যদিকে 18 টি আসন নিজেদের দখলে নিয়ে তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে বিজেপি। লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই

মমতার চিন্তা বাড়িয়ে একদল কাউন্সিলরকে নিয়ে মুকুল,সঙ্গে বিস্ফোরক অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

৪২ সে ৪২ হয়নি। ২২ টি আসনেই থামতে হয়েছে। বিজেপি ১৮ টি আসন পাওয়ার পরেই দল ভাঙছে হু হু করে। অন্যদিকে কাটমানি নিয়েও উত্তাল পরিস্থিতি রাজ্যে। আর এর পর এদিন মুকুল রায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ এনে নেত্রীকে ফের চাপে ফেললেন। জানা যাচ্ছে বনগাঁ পুরসভার ১২ জন কাউন্সিলকে সঙ্গে নিয়ে রাজ্যপালের

হঠাৎ ইস্তফা তৃণমূল পরিচালিত পুরসভার হেভিওয়েট চেয়ারম্যানের, কারন নিয়ে বাড়ছে রাজনৈতিক গুঞ্জন

ফের কি এই হেভিওয়েট নেতা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাচ্ছেন জল্পনা শুরু এমনটাই। তৃণমূল পরিচালিত হরিণঘাটা পুরসভার চেয়ারম্যানের পদত্যাগ ঘিরে জোর জল্পনা ছড়িয়েছে রাজ্যে। লোকসভা ভোটের পর বিজেপি রাজ্যে ১৮ টি আসন পেতেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার হিড়িক পড়ে গিয়েছে। দলের নেতা কর্মী তো বটেই যোগ দিচ্ছেন একে একে কাউন্সিলর থেকে

মমতার ভরসার এই হেভিওয়েট নেতার ঘরে হানা দিল বিজেপি, শাসকদলে বড়সড় ভাঙ্গন

লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর ডাক দিয়েছিলেন। কিন্তু তার সেই স্লোগান পূর্ণ হয়নি। উল্টে গত 2014 সালে তৃণমূল বাংলা থেকে 34 টা আসন পেলেও এবার তাদের দখলে এসেছে 22 টি আসন। অপরদিকে তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলে বিজেপি বাংলা থেকে 18 টি আসন নিজেদের দখলে রেখেছে। আর রাজ্যে

কাটমানি ইস্যু নিয়ে সরাসরি মমতাকে তোপ প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলরের, জোর সোরগোল রাজ্যে

এ যেন বিনা মেঘে বজ্রপাত। দলে স্বচ্ছতা ফেরানোর জন্য যখন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের দুর্নীতিগ্রস্ত নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন, ঠিক তখনই এবার সেই তৃণমূল নেত্রীর স্বচ্ছতা নিয়েই প্রশ্ন তুলতে দেখা গেল তৃণমূলের এক প্রাক্তন কাউন্সিলরকে। যে ঘটনায় এখন চরম চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। প্রসঙ্গত, গত

ফের জেলা পর্যবেক্ষকের বৈঠকে অনুপস্থিত কাউন্সিলররা, চিন্তার ভাঁজ তৃণমূলের কপালে

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি এবং বিজেপির উত্থান ঘটার পরই দিকে দিকে শাসক দল ছেড়ে অনেক কাউন্সিলার এবং বিধায়করা বিজেপিতে যোগদান করতে শুরু করেন। যার ফলে বর্তমানে রাজ্যের শাসক দলের দখলে থাকা বেশ কিছু পৌরসভা বিজেপির দখলে চলে এসেছে। আর এরই মাঝে এবার হরিণঘাটা পৌরসভা নিয়ে প্রবল অস্বস্তিতে পড়তে চলেছে শাসক

কাঠমানি ফেরত দেওয়া থেকে বাঁচতে এবার প্রাক্তন মেয়রের শরণাপন্ন নেতা কাউন্সিলররা, জোর শোরগোল রাজ্যে

লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফলের পরই নিচুস্তরের নেতাকর্মীদের দুর্নীতি এবং কাঠমানি খাওয়াই যে এই ভরাডুবির অন্যতম প্রধান কারণ, তা বুঝতে বাকি নেই তৃণমূলের কারোরই। লোকসভা ভোটের ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে বসে এই ব্যাপারে দলের সকলকে সতর্ক করে দিয়েছিলেন স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এরপর গত 18 জুন নজরুল মঞ্চে দলের

সি আই ডির জালে ধরা পড়ল ভাটপাড়া বোমাবাজি কাণ্ডে অভিযুক্তবিজেপি কাউন্সিলর

সি আই ডির জালে ধরা পড়ল ভাটপাড়া বোমাবাজি কাণ্ডের আরো দুই অভিযুক্ত। জানা যাচ্ছে গ্রেপ্তার হওয়া দুজনের মধ‍্যে একজন বিজেপি কাউন্সিলরও রয়েছেন।সিআইডি সূত্রের খবর এখনো পর্যন্ত এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মোট ৫জন গ্রেপ্তার হয়েছে। ১১ জুন ভাটপাড়ায় বোমার আঘাতে মৃত্যু হয় দুই তৃণমূল কর্মীর। দুষ্কৃতীদের ছোড়া বোমায় ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় মহম্মদ

বিজেপির ঝুলিতে যুক্ত হতে চলেছে কি এই পৌরসভাও! জোর জল্পনা

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে তৃণমূলের ভরাডুবি এবং বিজেপির ভালো ফলাফলের পরই শাসক দল তৃণমূলের অন্দরে ভাঙ্গন দেখা দিতে শুরু করে। বঙ্গ বিজেপির চাণক্য মুকুল রায়ের হাত ধরে শাসক দলের দখলে থাকা একাধিক পৌরসভার কাউন্সিলররা পদ্ম শিবিরে নাম লেখান। যা নিয়ে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। আর এমত একটা পরিস্থিতিতে মালদা জেলার অন্তর্গত

Top
error: Content is protected !!