এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "Congress"

মালদাতে শুরু মৌসম-ম্যাজিক! মমতার অনুপ্রেরণায় বড় ভাঙন বিজেপি-কংগ্রেসে

2019 এর লোকসভা ভোটের পর থেকেই দলবদল এর প্রবণতা অনেক বেশি করে লক্ষ্য করা যায়। পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে লোকসভা ভোটের পর শাসক শিবির থেকে অনেক নেতা কর্মীরা বিজেপি দলে যোগদান করেন। কিন্তু পরবর্তীতে ছবি আবার পরিবর্তন হয়। বিজেপি থেকে আবার শাসক দলে ফিরতে শুরু করে দলবদলকারীরা। তবে, এবার মালদায় মৌসম

একুশের লড়াইয়ে তৃণমূলকে হারাতে বাম-কংগ্রেসকেও বিজেপির পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান হেভিওয়েট সাংসদের

রাজনৈতিক মঞ্চে দুই যুযুধান শিবির বিজেপি এবং তৃণমূল কংগ্রেস। এ রাজ্যে বিজেপি 2019 এর লোকসভা ভোটে রাজনৈতিক মঞ্চে একদম সামনের সারিতে চলে আসে। বেশ কিছুটা পেছনে পড়ে যায় রাজ্যের শাসক দল। লোকসভা ভোটে রাজ্যের শাসক দলকে কোণঠাসা করে রাজ্য বিজেপি শিবিরের আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বেড়ে যায়। এরই মাঝে এল রাজ্যের তিনটি

কি হবে ৩ আসনের উপনির্বাচনের ফলাফল? কি বলছেন বিজেপির স্ট্র্যাটেজি মেকার মুকুল রায়?

নির্বাচন কমিশনের কথা অনুযায়ী আজ 25 শে নভেম্বর পশ্চিমবঙ্গের তিনটি কেন্দ্রের বিধানসভা উপনির্বাচন হয়ে গেল। তিনটি কেন্দ্রের মধ্যে খড়গপুর, করিমপুর ও কালিয়াগঞ্জ উপনির্বাচনকে ঘিরে দিনভর রইল উত্তপ্ত পরিস্থিতি। উপনির্বাচনের নির্ঘণ্ট স্থির হবার সাথে সাথেই পশ্চিমবঙ্গের তিন জেলায় রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে সাজো সাজো রব উঠেছিল। প্রত্যেকেই নির্বাচনী প্রচারে দক্ষতা দেখিয়েছে। লোকসভা

কুর্শির লড়াইয়ে জিত কার ? এবার চোখ সুপ্রীমকোর্টের রায়ের দিকে

মহারাষ্ট্রে রাতারাতি রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বদল ইতিমধ্যে সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছে। দ্বিতীয় ফড়নবিশ সরকারের পতন ঘটাতে ইতিমধ্যে ত্রয়ী জোট সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন। শুক্রবার রাত পর্যন্ত যেখানে ঠিক ছিল মহারাষ্ট্রের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হবেন উদ্ধব ঠাকরে, সেখানে সকলের অলক্ষ্যে সিদ্ধান্ত রাতারাতি পরিবর্তন হয়ে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হয়ে গেলেন দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে

উপনির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে ‘অন্যায়’ দেখছে তৃণমূল! হারার ‘খোঁচায়’ মুচকি হাসি বিজেপির

নির্বাচন কমিশনের কথা অনুযায়ী আগামী 25 নভেম্বর পশ্চিমবঙ্গের তিনটি কেন্দ্রের বিধানসভা উপনির্বাচন হতে চলেছে। খড়গপুর, করিমপুর ও কালিয়াগঞ্জে এই উপনির্বাচন হবে। আর এই উপনির্বাচনকে ঘিরে পশ্চিমবঙ্গের এই তিন জেলায় এখন সাজো সাজো রব। রাজ্যের প্রতিটি দলই উপনির্বাচনগুলিতে নিজেদের দক্ষতা দেখাতে প্রস্তুত হচ্ছে। এই উপলক্ষে রাজনৈতিক দলগুলি নির্বাচনী প্রচার শুরু করে

মহারাষ্ট্রের নতুন সমীকরণে ভয়ে কাঁপছেন কংগ্রেস হেভিওয়েট নেতা? জল্পনা তীব্র

মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের ছবি এখনো স্পষ্ট হয়নি। বর্তমানে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হয়েছে। কথা ছিল, এর মধ্যে যে দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা দাবি করতে পারবে সেই দলই মহারাষ্ট্রের সরকার গড়বে। কিন্তু জটিলতা এখনো কাটেনি। শিবসেনা ও বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করতে পারেনি উভয়েই। ফলে রাষ্ট্রপতি সরকার এখনও অব্যাহত। তবে সূত্রের খবর, শিবসেনা ক্রমাগত

মুর্শিদাবাদে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন পাঁচ শতাধিক কর্মী

2019 এর লোকসভা ভোটের পর রীতিমতো কোণঠাসা অবস্থায় পৌঁছে গিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। দ্বিতীয় দল হলেও রাজনৈতিক মঞ্চের একদম প্রথম সারিতে প্রায় পৌঁছে যায় বিজেপি। এরপর তৃণমূল থেকে বহু সদস্য, বিধায়ক, মন্ত্রী দলে দলে যোগদান করতে থাকেন বিজেপিতে। অবস্থা ফেরাতে তৃণমূল প্রশান্ত কিশোর এর শরণাপন্ন হয়। আর তার পরেই দেখা যায়

বিজেপি-বাম-কংগ্রেসকে একসঙ্গে বাংলা থেকে বিদায়ের কথা কর্মীদের জানালেন তৃণমূল নেত্রী

  সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে 42 এ 42 এর শ্লোগান তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু বিরোধীদের দাপটে 42 টি আসন দখল করা তো দুরস্ত, উল্টে 22 টি আসনেই আটকে যেতে হয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। যেখানে দক্ষিণবঙ্গে তৃণমূল কিছুটা ভালো ফল করলেও উত্তরবঙ্গে একটি আসনও দখল করতে পারেনি তারা। কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্র

কলকাতার বুকে কংগ্রেসের রাজ্য দপ্তরে ঢুকে বিক্ষোভ বিজেপির! তুলকালাম রাজ্য-রাজনীতিতে

  রাজনীতিতে শাসক বনাম বিরোধীর রাজনৈতিক তরজা লক্ষ্য করা গেছে। লক্ষ্য করা গেছে একে অপরকে উদ্দেশ্য করে বিক্ষোভ প্রদর্শনের ঘটনাও। কিন্তু বিভিন্ন রাজনৈতিক দল অন্য রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ রাজপথেই সীমাবদ্ধ রেখেছিল। তবে এবার নজিরবিহীনভাবে একটি দলের বিক্ষোভ আরেকটি দলের রাজ্য সদর দপ্তর পর্যন্ত পৌছে গেল। যা নিয়ে এখন তুলকালাম পরিস্থিতির

শিবসেনার দাবি নিয়ে এবার মুখ খুললেন অমিত শাহ

সরকার গঠনের নাটকে নয়া মোড় মহারাষ্ট্রে। ইতিমধ্যে শিবসেনা এবং এনসিপিও যথাক্রমে সরকার গঠনের জন্য দাবি পেশ না করতে পারায় মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশ করেন এবং মোদির মন্ত্রিসভা তা মেনে নিয়েই মহারাষ্ট্রে আগামী ছয় মাসের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করে দেওয়া হয়েছে। আর এর পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে শিবসেনা। তাঁদের

Top
error: Content is protected !!