এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "Chief Minister"

প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শ তৃণমূলকে, কি বলছে বিরোধীরা, জেনে নিন

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে ১৮টি আসন হাতছাড়া হবার পরই দলকে পুনরায় চাঙ্গা করতে নতুন স্ট্রাটেজি নিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জী। লোকসভা ভোটের ভরাডুবি থেকে শিক্ষা নিয়ে তৃণমূল বিধায়কদের কার্যত কড়া বার্তা দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনের দলীয় বৈঠকে বিধায়কদের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ বিলাসবহুল জীবনযাপন ছেড়ে জনসংযোগ বাড়াতে হবে।প্রতি সপ্তাহে বিধায়কদের নিজ নিজ

মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ মুকুল রায়ের , জেনে নিন

দলবদল নিয়ে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। লোকসভা ভোটের পর এই রাজ্যে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ঝড় উঠেছিল। রাজ্যজুড়ে নেতা কর্মীরা পদ্মশিবিরে যোগ দেওয়ার ফলে একের পর এক পুরসভা, পঞ্চায়েত বিজেপির হাতে যাচ্ছিল. এর পরেই গত সপ্তাহ থেকে পরিস্থিতি কিছুটা আলাদা হয়।পাল্টা দলবদল করে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরে আসেন কিছু নেতা,

কর্ণাটকের জোটের সর্বশেষ পরিস্থিতি কি? জেনে নিন

অবশেষে কি বিদ্রোহী বিধায়কদের মন ঘুরতে শুরু করেছে! জানা গেছে, শনিবার কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী এবং কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়ার সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক হয় বিদ্রোহী কংগ্রেস বিধায়ক এমটিবি নটরাজনের। আর সেই বৈঠকেই বরফ গলতে শুরু করেছে বলে মনে করছে বিশ্লেষকরা। যেখানে এমটিবি নটরাজন নিজের পদত্যাগপত্র ফিরিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি যে সমস্ত বিধায়করা

প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শে কোন কোন আচরণবিধি জারি হলো তৃণমূলের বিধায়কদের ওপর, জেনে নিন

২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য ভোট ম্যানেজার প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শ নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।বিশেষ সূত্রে জানা গেছে মুখ্যমন্ত্রীকে আলটপকা মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন প্রশান্ত। দলের কিছু নেতাকে সামনের সারি থেকে সরিয়ে দিতেও বলেছেন। এবার প্রশান্তের পরামর্শ অনুযায়ী তৃণমূলের বিধায়কদের জন্য সুনির্দিষ্ট আচরণবিধি তৈরী করে তা বিধায়কদের

চাকুরীপ্রার্থীদের সুখবর, সরকারি পদে বিপুল নিয়োগের ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী, জেনে নিন

দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গে কর্মসংস্হানের অভাবকে কেন্দ্র করে সাধারণ মানুষের মধ্যে তৈরী হয়েছে তীব্র অসন্তোষ।এছাড়া এই ইস্যুতে বিরোধীরাও মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সরকারকে বারংবার কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন।মুখ্যমন্ত্রী যতই লাখ লাখ নিয়োগের পরিসংখ্যান দিন না কেন রাজ্যের যুবসমাজের বড় অংশই তৃণমূলের প্রতি বিরূপ থেকেছে তার গেছে গত লোকসভা নির্বাচনে। তৃণমূল সরকারের প্রতি বিরোধী দল ও

না চাষ, না শিল্প, ধুঁকছে সিঙ্গুর, কি বলছে এলাকাবাসী!

সিঙ্গুর। শুধু একটা নাম নয়, এর পেছনে বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষমতায় আসার বিস্তর কাহিনী রয়েছে। 2011 সালের আগে তৎকালীন রাজ্যের বাম সরকার এই সিঙ্গুরে শিল্প স্থাপনের উদ্দেশ্যে টাটাদের নিয়ে আসলে অনিচ্ছুক কৃষকদের জমি দখল করে কোনোমতেই শিল্প করা যাবে না বলে সেখানে প্রবল আন্দোলন গড়ে তোলেন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী

বিজেপি ছেড়ে ফের ঘরে ফিরেই দায়িত্ব কাঁধে তুলল কাউন্সিলররা, তাও পুরসভা নিয়ে বড়সড় দাবি মুকুল পুত্রের

এক সময় বঙ্গ রাজনীতির নজর কেড়েছিল সিঙ্গুর এবং নন্দীগ্রাম। কৃষিজমি বনাম শিল্পের দ্বন্দ্বে তখন উত্তাল বঙ্গসমাজ। রাজনীতির আনাচে-কানাচে কিংবা সুশীল সমাজের মধ্যে তখন ন্যায়-অন্যায়ের চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছে। আর এই সব কিছুর মধ্যেই সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম আন্দোলনের নেতৃত্ব দিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন তদানীন্তন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেত্রী সেইসময় নির্ভীকভাবে কৃষকদের পাশে

দলের এই হেভিওয়েট নেতার শারীরিক অবস্থার খবর নিতে তড়িঘড়ি এসএসকেএম পৌঁছলেন মুখ‍্যমন্ত্রী

কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে আজ অস্ত্রোপচার হল বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মন্ডলের। অস্ত্রোপচারের পর আজ সন্ধ্যায় অনুব্রত মণ্ডলকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হাসপাতাল সূত্রের খবর অপারেশনের পর বীরভূমের এই নেতার শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার ফিস্টুলা সংক্রান্ত সমস‍্যা নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি হন অনুব্রত ওরফে কেষ্ট মণ্ডল।

কাটমানির বস্তা দিদির খুব প্রিয়, বিস্ফোরক দাবি প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদের

মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পর থেকে রাজ্য রাজনীতিতে তীব্র উত্তেজনা বজায় রয়েছে কাটমানি ফেরত কে কেন্দ্র করে। জেলায় জেলায় সাধারণ মানুষের বিক্ষোভের মুখে পড়ছেন তৃণমূলের ছোটো ও মাঝারি নেতা কর্মীরা ।আবার বিজেপির পক্ষ থেকে কাটমানি প্রসঙ্গে বারবার তৃণমূলের শীর্ষনেতৃত্বের বিরুদ্ধে আঙ্গুল তোলা হয়েছে। এই বিতর্ক নতুন মোড় নিল অধুনা বিজেপি নেতা, প্রাক্তন তৃণমূল

প্রশান্ত কিশোর ও তৃণমূলকে নিয়ে বিস্ফোরক সব্যসাচী, দাগলেন তোপ

বর্তমানে বিধাননগরের মেয়র তথা রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্তকে নিয়ে বঙ্গ রাজনীতিতে ঝড় উঠতে শুরু করেছে। তিনি তৃণমূলের, নাকি বিজেপির! তা নিয়ে দড়িটানাটানি শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলের অন্দরমহলেও। যার প্রথম এবং প্রধান কারণ হিসেবে তৃণমূলে থেকেও দলবিরোধী একের পর এক মন্তব্য। যাকে কেন্দ্র করে এখন তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে

Top
error: Content is protected !!