এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "case"

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ঘেরাও, আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা!

নাগরিকত্ব আইন নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। প্রথম থেকেই কেন্দ্রের এই আইন লাগু হওয়ার পর থেকেই সরব হয়েছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সাম্প্রতিক কালে এই আইনের বিরোধিতা করতে গিয়ে অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসকে। বস্তুত, এই নাগরিকত্ব আইন এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কলকাতা সফরের বিরোধিতায় গত

নিষিদ্ধ সংগঠনের বক্তার তালিকায় তৃণমূল সাংসদের নাম, অস্বস্তি ঢাকতে করলেন মামলা!

  নাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যু নিয়ে বর্তমানে উত্তপ্ত রাজ্য তথা জাতীয় রাজনীতি। আর এরই মাঝে সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশ সরকারের তরফ থেকে পিএফআই নামে একটা সংগঠনকে নিষিদ্ধ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু এরপর সেই সংগঠনের রাজ্য সম্মেলনের বক্তার তালিকায় তৃণমূল সাংসদ আবু তাহের না খানের নাম থাকায় তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছিল। তবে প্রথম থেকেই তাকে

খুনের মামলায় জোর অস্বস্তিতে মুকুল রায়, জেনে নিন!

  অনেকদিন ধরেই লাভপুরের সিপিএম সমর্থক সহ তিন ভাইকে খুনের মামলা নিয়ে টানাপোড়েন চলছে। অভিযোগ ওঠে, এই ঘটনায় নাম রয়েছে বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের। তবে নিজের অবস্থানে অনড় থেকে বরাবরই সেই অভিযোগ খন্ডন করতে দেখা গেছে বঙ্গ বিজেপির চাণক্যকে। কিন্তু এবার লাভপুর খুনের মামলায় ফের অস্বস্তি বাড়ল বিজেপির এই হেভিওয়েট

রোজভ্যালি মামলায় প্রধান সাক্ষীর মৃত্যু, ধোঁয়াশা অব্যাহত

  রোজভ্যালি কোম্পানির যখন বাড়বাড়ন্ত, তখন আমানতকারীদের কাছ থেকে টাকা তুলে গৌতম কুন্ডুর ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন মন্টি জয়সওয়াল। আর রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুন্ডুকে গ্রেফতারের পরে সেই মন্টি জয়সওয়ালের কাছ থেকে গোটা ব্যাপারটি জানতে তাকে জেরা করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সেদিক থেকে সেই মন্টি জয়সওয়ালকে রোজভ্যালি কাণ্ডে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী হিসেবে রেখেছিল এনফোর্সমেন্ট

৩ বছরের পুরনো খুনের মামলায় অভিযুক্ত মুকুল-মনিরুল! রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ

  দীর্ঘদিন তৃণমূল কংগ্রেসের দ্বিতীয় প্রধান ব্যক্তি হিসেবে কাজ করার পরে 2017 সালে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগদান করেছেন একদা তৃণমূলের তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড মুকুল রায়। বিশেষজ্ঞদের মতে, গত 2018 সালের পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে শুরু করে 2019 সালের লোকসভা নির্বাচন পর্যন্ত ভারতীয় জনতা পার্টির যে বৃদ্ধি, তার পেছনে অনেকটাই ভূমিকা পালন

শেষ হইয়া ও হইল না শেষ, শবরীমালা মন্দির এখনও রইলো ঝুলে

আশা ছিল, সুপ্রিম কোর্ট এই ব্যাপারে রায়দান করবে। কিন্তু খুব বেশি আশা করলে যে ফল মেলে না, তা প্রমাণ হয়ে গেল। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছর দেশের শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, শবরীমালা মন্দিরে সব বয়সের মহিলাদের প্রবেশ করতে দিতে হবে। কিন্তু আদালতের এই রায়ের প্রবল বিরোধিতা করতে দেখা যায় পুরোহিত

ঘটনার 13 তম বর্ষে এসে নন্দীগ্রামের সব মামলা প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি হেভিওয়েট মন্ত্রীর

  সিঙ্গুর, নন্দীগ্রাম আন্দোলনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নন্দীগ্রামের কেমিক্যাল হাব বিরোধী আন্দোলনে তদানীন্তন বামফ্রন্ট সরকারকে রীতিমতো লেজেগোবরে করে ফেলেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই নন্দীগ্রামের আন্দোলনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অন্যতম সহযোগী হিসেবে পরিচিত ছিল মেদিনীপুর জেলার দাপুটে তৃণমূল নেতা তথা বর্তমান পশ্চিমবঙ্গ মন্ত্রিসভায় পরিবহন দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী শুভেন্দু

BIG BREAKING – বের হলো অযোধ্যা মামলার রায়, জেনে নিন

বহু প্রতীক্ষার পর বের হলো অযোধ্যা মামলার রায়। জানা যাচ্ছে এদিন শীর্ষ আদালত রায় দিলেন যে 'অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ হবে। বিস্তারিত আসছে।.......................................

BIG BREAKING — রায়দান নিয়ে সামনে এলো নয়া তথ্য – জেনে নিন

রায়দান হচ্ছে সর্বসম্মত ভিত্তিতে। ৫ জন বিচারপতিই রায়ের ব্যাপারে সহমত হয়েছেন। সমগ্র রায় পড়তে আধ ঘন্টা লাগবে। নির্মোহী আখরার আবেদন খারিজ হয়ে গেল। নির্মোহী আখরা দাবি করেছিল অযোধ্যাতে 'সেবা' করতে চায় তারা। রামলালার দাবি মেনে নিল সুপ্রিম কোর্ট। এএসআই এখানে খনন করে যে সব গুরুত্বপূর্ণ জিনিস পেয়েছে তাকে মামলার দলিল মানা হবে। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের

মামলার শুনানি শেষ হতেই আগত রায় নিয়ে আশাবাদী গেরুয়া শিবির

বহু প্রতিক্ষিত অযোধ্যা মামলার শুনানি শেষ হলেও এখন রায় কবে বেরোবে, তার দিকেই নজর গেরুয়া শিবিরের। তবে এই ব্যাপারে রায় এখনও না আসলেও সেই রায় যে তাদের পক্ষে অত্যন্ত ইতিবাচক হবে, তা নিয়ে আশাবাদী বিজেপি নেতারা। জানা গেছে, অযোধ্যা মামলার রায়দান নিয়ে বিজেপি এবং সঙ্ঘ পরিবারের তরফে তেমন কোনো উজ্জীবিত হওয়ার

Top
error: Content is protected !!