এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "Calcutta News"

মুকুল-শঙ্কুর হাত ধরে এবার খোদ কলকাতার বুকে তৃণমূলের যুব সংগঠনে বড়সড় ভাঙন ধরালো বিজেপি

লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে বিজেপি ১৮ টি আসন জেতার পরেই, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে শাসকদল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক লেগেছে। রাজনৈতিক গুরু মুকুল রায় যখন তৃণমূলের মাদার সংগঠনকে ভেঙে ছিন্নভিন্ন করে দিচ্ছেন, তখন প্রিয়তম শিষ্য শঙ্কুদেব পণ্ডা একই দায়িত্ব নিয়ে নিয়েছেন তৃণমূলের ছাত্র ও যুব সংগঠনে থাবা বসাতে। এতদিন, শঙ্কুদেব পণ্ডার

এক নারীচরিত্রের ‘আগমন’ ঘিরে শুরু বিতর্ক! কলকাতা পুরসভার গেরুয়াকরনে নয়া মোড়?

গতকালই এক প্রতিবেদনে আমরা জানিয়েছিলাম, আমাদের গোপন সূত্রের খবর অনুযায়ী এবার রাজনৈতিক মহলকে চমকে দিয়ে কলকাতা পুরসভার দখল নিতে চলেছে বিজেপি। কলকাতা পুরসভার ৬৬ জন কাউন্সিলর, এক বিধায়কের নেতৃত্বে এই সপ্তাহেই দিল্লি গিয়ে বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। ১৪৪ আসন বিশিষ্ট কলকাতা পুরসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে দরকার ৭৩ কাউন্সিলরের সমর্থন। গত পুর-নির্বাচনে

বিগ ব্রেকিং নিউজ – এই সপ্তাহের মধ্যেই কলকাতা পুরসভার দখল নিতে চলেছে বিজেপি?

লোকসভা নির্বাচনের পরেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখানোর ধুম পরে গেছে গোটা রাজ্য জুড়ে। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের একাধিক বিধায়ক তৃণমূল, বামফ্রন্ট বা কংগ্রেস ছেড়ে যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে। সেই বিধায়কদের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিচ্ছেন একাধিক কাউন্সিলরও - ফলে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু পুরসভার দখল নিয়েছে বিজেপি। আজ দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে প্রাক্তন তৃণমূল

দিলীপ ঘোষের হাত ধরে পাঁচ হাজার অনুগামী নিয়ে বিজেপিতে যোগ তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার

রাজ্যে লোকসভা ভোটের আগে থেকে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পক্রিয়া শুরু হয়েছে। আর ভোট মেটার পর বিজেপি বাংলায় ১৮ টি আসন পেতেই দল বদলের হিড়িক শুরু হয়ে গেছে। রোজি প্রায় ডলাভকরে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছে। এদিকে অনেকগুলি পুরোভা থেকে কাউন্সিলররা যোগ দিয়েছেন যার ফলে অনেকগুলি পুরসভা হাতে এসেছে বিজেপি। গতকাল মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জে

রাজ্যে বাকি আসনে পদ্মফুল ফোটানোর লক্ষ্যে দায়িত্ব পেলেন ত্রিপুরায় বিজেপি সরকারের কারিগর এই বিজেপি নেতা

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে 22 থেকে 23 টি আসন নিজেদের দখলে রাখবার জন্য বহুদিন আগে থেকেই রাজ্য নেতৃত্বকে টার্গেট বেঁধে দিয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। ইতিমধ্যেই তিন তিনটে দফায় মোট দশটি লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে এরাজ্যে। আর সেই 10 টি নির্বাচন হওয়া কেন্দ্রের মধ্যে অধিকাংশই বিজেপি তাদের দখলে রাখবে বলে

রবার্ট বঢ়রাকে আর্থিক তছরুপের দায়ে জেরার পেছনেও বিরোধী জোট ভাঙার “চক্রান্ত” দেখছেন তৃণমূল নেত্রী

কেন্দ্রের বর্তমান বিজেপি সরকার উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবেই বিরোধীদের পেছনে সিবিআই লাগিয়ে তাদের হেনস্তা করছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছে দেশের বিজেপি বিরোধী দলগুলো। সম্প্রতি কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই হানা নিয়ে সেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেলে ধরনায় বসে পড়েন খোদ তৃনমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা

বিরোধীদের উপযুক্ত জবাব দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি-‘তৃণমূলের নয়, গণতন্ত্র রক্ষা জন্য রাজ‍্য সরকারের কর্মসূচি এই ধর্ণা “

এদিন পুলিশ কমিশনারের বাড়িতে সিবিআই এর আধিকারিকের যাওয়া আর জোর করে কেন্দ্রীয় সরকারের সিবিআইকে দিয়ে তৃণমূলকে হেনস্থা করার অভিযোগ এনে মেট্রো চ্যানেলে মুখ্যমন্ত্রী ধরনায় বসেছেন। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন ADG, পুলিশ কমিশনার। আর তাই নিয়েই জোর বিতর্ক শুরু হয়েছিল। বিরোধীরা দাবি করেছিলেন যে, রাজীব কুমার কি তৃণমূলের নেতা যে তাঁকে সিবিআই

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ‘সত্যাগ্রহ’ করতে গিয়ে আদতে কি মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যে ‘প্রশাসনিক সংকট’ তৈরী করছেন? উঠছে প্রশ্ন

গতকাল সন্ধ্যে থেকেই রাজ্য রাজনীতিতে অভূতপূর্ব পরিস্থিতি - দেশের প্রধানমন্ত্রীকে 'পাগল' আখ্যা দিয়ে কার্যত কেন্দ্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত দুদিন ধরেই জল্পনা চলছিল চিটফান্ড কাণ্ডে তদন্তে সহযোগিতা না করার জন্য গ্রেপ্তার হতে পারেন কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। কিন্তু, কলকাতা পুলিশের তরফে জাভেদ শামীম

প্রধানমন্ত্রী হওয়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ জানালেন দিলীপ ঘোষ

ফের তৃণমূল বিরোধীতায় ময়দানে দিলীপ ঘোষ! নিজের চিরাচরিত স্টাইলেই চাঁচাছোলা ভঙ্গিতে রাজ্যের শাসকদলকে আক্রমণ শানালেন রাজ্যের পদ্মবাহিনীর সেনাপতি। গতকাল উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটির গৌরীপুরে দলীয় সভায় উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখান থেকেই গর্জে উঠে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বললেন,"ওরা ৪২ টা আসন পাওয়ার স্বপ্ন দেখছে। আগে এর অর্ধেক আসন পেয়ে

নিয়মনীতি মেনে ভোট না হলে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি কমিশনের

লোকসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ এখনও ঘোষণা না হলেও দেশের নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ বঙ্গে এসে যেন সেই নির্বাচনের দামামা বাজিয়ে দিলেন। সূত্রের খবর, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সাথে বৈঠকের পর বৃহস্পতিবার রাজ্যের সমস্ত জেলার জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের নিয়ে একটি বৈঠকে বসেন দেশের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল আরোরা। সকাল সাড়ে 11 টা

Top
error: Content is protected !!