এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "bjp leader"

তৃণমূলের প্রতিবাদ মিছিলে পা মেলাচ্ছেন বিজেপি নেতারা! তীব্র চাঞ্চল্য রাজ্য-রাজনীতিতে

আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও তিনি দলে যোগদান করেননি। কিন্তু সোমবার সন্ধ্যায় খানাকুলে শাসক দলের প্রতিবাদ মিছিলে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিতে দেখা গেল তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়া বেশ কয়েকজন নেতাকে। যা নিয়ে খানাকুলে এখন তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, যে সমস্ত নেতারা এদিন মিছিলে হেঁটেছেন, তারা তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন। আর তাঁদের দলে ফেরানোর

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মুকুল রায় – জেনে নিন বিস্তারিত

লোকসভা ভোটের পর থেকেই বিজেপির নানা অভিযোগের ভিত্তিতে তৃণমূল দল ক্রমাগত কোণঠাসা হয়ে পড়েছে। চিটফান্ড থেকে কাটমানি, নানান আর্থিক দুর্নীতির সাথে এবার যুক্ত হলো দেহ পাচারের অভিযোগ। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই অভিযোগে অভিযুক্ত করেছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। নানুরে গত শুক্রবার বোমাবাজি ও দুষ্কৃতীদের গুলির আঘাতে আহত হন স্বরূপ গড়াই

প্রাক্তন নেত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ হেভিওয়েট বিজেপি নেতার, জোর চাঞ্চল্য

তৃণমূল কংগ্রেস ত্যাগ করে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যাওয়ার পরে যে নেতা রাজ্যের শাসক দলকে সবথেকে বেশি অস্বস্তিতে ফেলেছেন তার নাম মুকুল রায়। তৃণমূল সেকেন্ড-ইন-কমান্ড মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একসময়কার প্রথম আস্থাভাজন একের পর এক প্রশ্নবানে বিধ্বস্ত করে ফেলেছে ঘাসফুল শিবিরকে। আর এবার দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চরম পরিমাণে কটাক্ষ করলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

সাংসদ হতেই কোটি টাকার গণেশ পুজোর বাজেট অনেকটাই কমিয়ে দিলেন বিজেপি নেতা

সাংসদ হতেই এবার বিতর্ক কমাতে তৎপর বিজেপি সাংসদ। জানা গেছে, গণেশপুজোর জৌলুস গত বছরের তুলনায় এবার অনেকটাই কমিয়ে দিলেন কোচবিহারের বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক। এমনকি তার পুজোর খরচ নিয়ে যাতে তাকে দলের প্রশ্নের মুখে পড়তে না হয়, সেই কারণে ভেটাগুড়িতে নিশীথবাবুর গণেশপুজোর জৌলুস এবছর অনেকটাই কম। সূত্রের খবর, গত বছর এই

বিধানসভায় গিয়ে মমতা ব্যানার্জিকে বিজেপিতে স্বাগত জানিয়ে শোরগোল ফেলে দিলেন মুকুল রায়

অনেকদিন পর বিধানসভায় উপস্থিত ছিলেন এককালের তৃণমূলের দুই নম্বর আজকের বিজেপি নেতা মুকুল রায়। আর বিধানসভায় দাঁড়িয়ে এদিন তিনি তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে বিজেপিতে যোগদানের স্বাগত জানিয়ে শোরগোল ফেলে দিলেন। এদিন তিনি বলেন বিজেপিতে স্বাগত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেত্রী যদি বিজেপিতে যোগদান করতে চান তবে তাকে স্বাগত। প্রসঙ্গত আজ বিধানসভায়

ধুন্ধুমার কান্ড কলকাতায়, বিজেপির ‘চায়ে পে চর্চা’ তে দিলীপ ঘোষকে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান, বিজেপি বনাম তৃণমূলের হাতাহাতি

তৃণমূলের 'দিদিকে বলো' র পাল্টা নিয়ে এসেছে বিজেপির 'চায় পে চর্চা' কর্মসূচি। দুজনেরই লক্ষ্য জনসাধারণের কাছাকাছি পৌঁছানো এবং জনসংযোগ বাড়ানো। তৃণমূল নিজেদের মতন 'দিদিকে বলো ' কর্মসূচিতে তৃণমূল নেতা বিধায়করা গ্রামে গ্রামে গিয়ে সাধারণ মানুষের কাছাকাছি পৌঁছেছেন এবং সেখানে খানিকটা বিজেপির আদলে আদিবাসীদের বাড়িতে থাকা থেকে খাওয়া-দাওয়া সমস্তটাই করছেন। কেউ কেউ

রাজ্য বিজেপির বড়সড় পদ থেকে সরতে পারেন হেভিওয়েট নেতা, জেনে নিন

  "পার্টি উইথ দা ডিফারেন্স" ভারতীয় জনতা পার্টিতে রদবদল কোনো বড় ব্যাপার নয়। অতীতে বহুবার বহু কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সফলতার পরেও তাদের দলের দায়িত্ব পরিবর্তন হয়েছে। সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে গোটা দেশজুড়ে ঐতিহাসিক জনসমর্থন প্রাপ্ত করে ভারতীয় জনতা পার্টি। তা সত্ত্বেও পার্টি রুলস মেনে বিজেপি সভাপতির জায়গায় জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন জে পি নাড্ডা।

পুলিশের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ বিজেপি নেতৃত্বের, সরাসরি রিপোর্ট পাঠানোর ভাবনা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে

কিছুদিন আগেই কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করে সংসদে বিল পাস করেছে কেন্দ্র। আর এই 370 ধারা অবলুপ্তির পরই তার আনন্দে বিভিন্ন জায়গায় বিজেপির পক্ষ থেকে মিছিল করা হয়েছিল। আর এবার সেই মিছিল পুলিশ রুখে দেওয়ায় পুলিসের ভূমিকায় যারপরনাই ক্ষুব্ধ বিজেপি নেতৃত্ব। তবে বিষয়টিকে হালকা করে দেখতে নারাজ জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। ইতিমধ্যেই

চিদাম্বরম কান্ডের পরই তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ, জোর চাঞ্চল্য

অতীতে বিভিন্ন সময়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়ে কেউ বিরোধিতা করলেই তাদের উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে দিয়ে ফাঁসানো হত বলে অভিযোগ করতে দেখা যেত দেশের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে। যদিও বা বিরোধীদের সেই অভিযোগকে বারেবারেই নস্যাৎ করে দিয়েছে দেশের শাসক দল। তবে সদ্য লোকসভা নির্বাচনের পর ফের বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে দ্বিতীয়বারের জন্য কেন্দ্রে

তিন সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ, বড়সড় অস্বস্তিতে মুকুল রায়

কিছুদিন আগেই তার বিরুদ্ধে করা রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে প্রতারণামূলক মামলায় কিছুটা হলেও রেহাই পেয়েছেন তিনি। কিন্তু এবার ফের তীব্র অস্বস্তিতে পড়তে হলেও বঙ্গ বিজেপির চাণক্য মুকুল রায়কে। জানা গেছে, কয়েকজন পুলিশকর্মীকে মারধরের অভিযোগ সংক্রান্ত একটি মামলায় বঙ্গ বিজেপির এই নেতাকে তিন সপ্তাহের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা

Top
error: Content is protected !!