এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "arjun sing"

মধ্যমগ্রাম কাণ্ডে বিজেপিকেই কাঠগড়ায় তুললেন তৃণমূলের মন্ত্রী, জোর গুঞ্জন

লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে উত্তর 24 পরগনার বিভিন্ন এলাকা শাসক-বিরোধী সংঘর্ষে উত্তপ্ত হতে শুরু করে। সম্প্রতি মধ্যমগ্রামে শুটআউট কান্ডে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে আহত হন তৃণমূলের যুব নেতা। আহত নেতার নাম বিনোদ সিং। আর এই ঘটনা নিয়েই এবার বিজেপিকে কাঠগড়ায় তুলে দিলেন উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা

এবার সরাসরি সিপির বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার মামলা করলেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং

নির্বাচনের পরবর্তী সময় থেকেই বিভিন্ন রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হতে দেখা গিয়েছিল ভাটপাড়াকে। তবে সম্প্রতি পার্টি অফিস দখল, পাল্টা দখলের রাজনীতিতে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ সেখানে উপস্থিত হলে পুলিশের পক্ষ থেকে মেরে তার মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওঠে। যার পড়ি এই গোটা ঘটনায় শাসক দল তৃণমূল

পার্টি অফিস দখল-পুনর্দখল নিয়ে কি ব্যারাকপুরে অশান্তি আরও বাড়বে? ক্রমশ বাড়ছে দুশ্চিন্তা

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে বিজেপির উত্থান ঘটার পরে দিকে দিকে রাজনৈতিক সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এতদিন ক্ষমতার স্বাদ গ্রাস করা তৃণমূল বিজেপিকে এক ইঞ্চি জায়গা ছাড়বে না বলে নিজেদের প্রভাব বাড়াতে শুরু করে। অন্যদিকে ময়দান ছাড়তে নারাজ গেরুয়া শিবিরও। এই পরিস্থিতিতে পার্টি অফিস দখল পাল্টা দখলের রাজনীতিতে বিভিন্ন সময় উত্তপ্ত হতে দেখা

মুখমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন অর্জুন সিং, জেনে নিন

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর থেকেই একেবারে স্বমহিমায় শাসকদলের বিরুদ্ধে গর্জন করেছেন ভাটপাড়া স্বনামধন্য বিজেপি নেতা ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংহ। শ্যামবাজারের ধর্না মঞ্চ থেকে অর্জুন বাবু অভিযোগ করেন মনোজ ভার্মা একজন সুপারি কিলার। তাকে নিয়োগ করা হয়েছে খুন করার জন্য। এই ষড়যন্ত্রে যুক্ত রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে ভয়াবহ অভিযোগ

হাসপাতাল থেকে বাড়ি এসেই রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অর্জুন সিং

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই নানা সময় উত্তপ্ত হয়ে উঠতে দেখা গেছে ভাটপাড়াকে। তবে রবিবারের ঘটনা অতীতের সমস্ত ঘটনাকে ম্লান করে দিয়েছে। যেখানে পার্টি অফিস দখল, পাল্টা দখল কাণ্ডে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে মাথা ফেটেছে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের। যার জন্য গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন সেই বিজেপি

রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে নতুন রাজ্যপালের সঙ্গেও তীব্র বাদানুবাদে জড়িয়ে গেল শাসকদল

অতীতে কেশরীনাথ ত্রিপাঠী রাজ্যের রাজ্যপাল থাকার সময় রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে মাঝেমধ্যেই রাজভবনের সঙ্গে সংঘর্ষ রাতে দেখা গিয়েছিল নবান্নকে। কিন্তু সেই কেশরীনাথ ত্রিপাঠী বিদায় নেওয়ার পর নতুন রাজ্যপাল হিসেবে জগদীপ ধনকার যোগদান করলে তার সঙ্গে প্রথম দিনেই রাজ্যের শাসক দলের প্রতিনিধিদের সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক অন্য মাত্রা পেয়েছিল। অনেকেই ভেবেছিলেন,

অর্জুন-গড়ে ঝামেলার সব দায় বিজেপি সাংসদের ঘাড়েই তুলে দিল পুলিশ!

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই ভাটপাড়ায় রাজনৈতিক সন্ত্রাস সৃষ্টি হয়। তৃণমূল ছেড়ে লোকসভায় বিজেপির টিকিটে দাঁড়ানো এবং সাংসদ হওয়া অর্জুন সিং বনাম তৃণমূলের লড়াই যেন অন্য আকার ধারণ করেছিল। সম্প্রতি সেই গন্ডগোল রণক্ষেত্রের আকার ধারণ করে। যার ফলে মাথা ফেটে যায় ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের। বিজেপির অভিযোগ, এই

তৃনমূলকে চাপে রাখতে অভিনব কৌশল অর্জুন সিংয়ের, জেনে নিন বিস্তারিত

ভাটপাড়ার প্রাক্তন বিধায়ক, একসময় তৃণমূলের দোর্দণ্ডপ্রতাপ নেতা অর্জুন সিংহ তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে সাংসদ পদপ্রার্থী নিয়ে মতানৈক্যের কারণে 2019 সালের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের আগেই তৃণমূল ছেড়ে ভারতীয় জনতা পার্টির উত্তরীয় গলায় পড়ে নেন। এরপরে গেরুয়া শিবিরের হয়ে বিজেপি প্রার্থী হিসাবে ব্যারাকপুর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন তিনি। নির্বাচনে জয়যুক্তও হন এই তৃণমূলত্যাগী বিধায়ক। শুধু

রাজ্যের এই মন্ত্রী বিজেপিতে যোগ দিতে যোগাযোগ রাখছেন গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে, বিস্ফোরক দাবি বিজেপি সাংসদের

লোকসভা ভোটের আগে থেকেই তৃণমূলের ঘর ভাঙতে শুরু করেছে বিজেপি। আর লোকসভা ভোটের পর জলের তোড়ে ভেঙেছে তৃণমূল। আজ সে ধারা অব্যাহত ,তৃণমূলের অন্দরে চলছে সন্দেহের বাতাবরণ। কে যে রয়েছেন সঙ্গে কে বনের জল তা কেউই বুঝতে পারছে না। আর এই আবহেই রাজ্যের মন্ত্রীকে নিয়ে অনেকগুন অস্বস্তি বাড়িয়ে দিলেন এককালের

শোভনের বিজেপিতে যাওয়া নিয়ে কি বললেন মুকুল-অর্জুন, জেনে নিন

অনেকদিন আগেই তারা তৃণমূলের মায়া ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তবে এবার নিজেদেরই বন্ধুকে পেয়ে রীতিমত উজ্জীবিত বিজেপি নেতা মুকুল রায় এবং অর্জুন সিংহ। প্রায় দু বছরের মতো সময় আগে প্রথম তৃণমূলের ঘর ভেঙে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সর্বক্ষণের সঙ্গী মুকুল রায়। তারপর সেই মুকুলবাবুর হাত ধরেই একের পর

Top
error: Content is protected !!