এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "anubrata mondal"

কাটমানি ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভের মুখে অনুব্রত মণ্ডল, পুরোটা জানলে চমকে যাবেন

লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে দলে দুর্নীতি বাসা বেধেছে তা আঁচ করতে পেরে কেউ যদি কাটমানি নেয়, তার টাকা তাকেই ফেরত দিতে হবে বলে দলের নেতাকর্মীদের হুশিয়ারি দিতে দেখা গিয়েছিল তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যার পরেই দিকে দিকে দুর্নীতিগ্রস্ত নেতা কর্মীদের বাড়ি ঘেরাও করে টাকা ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে

জল্পনা কাটিয়ে অবশেষে ফের প্রকাশ্যে এলেন বীরভূমের বেতাজ বাদশা,বিজেপিকে দিলেন হুঁশিয়ারি

বরাবরই খবরের শিরোনামে থাকতে পছন্দ করেন তিনি‌। কখনও চরম চরম ঢাক, কখনো গুড় বাতাসা, আবার কখনও বা নকুলদানা খাওয়ানোর দাওয়াই দিয়ে নির্বাচনের আগে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে পৌঁছে যেতে দেখা গিয়েছিল তাকে। তবে লোকসভা নির্বাচনের পর সেইভাবে আর তাকে দেখতে পাওয়া যায়নি। বীরভূমের দুটি লোকসভা কেন্দ্র তিনি নিজের দখলে রাখতে পারলেও বিধানসভা ভিত্তিক

অব্যাহত অনুব্রত ম্যাজিক, বীরভূমে বিজেপি ছেড়ে দলে দলে কর্মীরা যোগ দিলেন তৃণমূলে

দলবদলের পাল্টাহাওয়া বীরভূমে।শুক্রবার পুনর্দখল হয়েছিল সিউড়ির কোমা গ্রাম পঞ্চায়েত।শনিবার বোলপুরে বিজেপি থেকে প্রায় ৮০০ কর্মী যোগদান করলেন তৃণমূলে। নেপথ্যে সেই অনুব্রত মন্ডল। লোকসভা নির্বাচনের পরে রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছিল দলবদলের ঝড়। দলে দলে তৃণমূলের নেতা কর্মীরা যোগ দিচ্ছিলেন বিজেপিতে।ভাঙন ধরতে থাকে জোড়াফুলের সংগঠনে। রাজ্য জুড়ে একের পর এক পঞ্চায়েত, পুরসভার দখল

ফের অনুব্রত গড়ে বড়সড় ভাঙ্গন, চাপ বাড়ছে বীরভূমের কেষ্টার

লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান তুললেও তার সৈনিকেরা সেই দায়িত্ব পালন করতে পারেননি। নির্বাচনের মরসুমে বারবারই খবরের শিরোনামে উঠে আসা বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল দাপটের সঙ্গে নকুলদানা দিয়ে ভোট করানোর কথা বললেও তার জেলার দুটি লোকসভা আসনে তিনি দলকে জিতিয়েছেন ঠিকই, কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে ভোট

কাটমানির বস্তা দিদির খুব প্রিয়, বিস্ফোরক দাবি প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদের

মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পর থেকে রাজ্য রাজনীতিতে তীব্র উত্তেজনা বজায় রয়েছে কাটমানি ফেরত কে কেন্দ্র করে। জেলায় জেলায় সাধারণ মানুষের বিক্ষোভের মুখে পড়ছেন তৃণমূলের ছোটো ও মাঝারি নেতা কর্মীরা ।আবার বিজেপির পক্ষ থেকে কাটমানি প্রসঙ্গে বারবার তৃণমূলের শীর্ষনেতৃত্বের বিরুদ্ধে আঙ্গুল তোলা হয়েছে। এই বিতর্ক নতুন মোড় নিল অধুনা বিজেপি নেতা, প্রাক্তন তৃণমূল

big breaking, গুরুতর অসুস্থ নেত্রী ঘনিষ্ঠ তৃণমূলের দোর্দণ্ডপ্রতাপ হেভিওয়েট নেতা, ভর্তি হাসপাতালে

গুরুতর অসুস্থ মমতা বান্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় ভাই 'কেষ্টা'। জানা যাচ্ছে যে,হাইপারটেনশনে ভুগছেন অনুব্রত মণ্ডল।সুগার রয়েছে তাঁর। এদিকে আবার দেখা দিয়েছে কার্বোঙ্কল ,ফলে সব মিলিয়ে বেশ কাবু তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা। লোকসভা ভোটের পর থেকেই শরীর ভালো যাচ্ছিলো না বলে সূত্রের খবর। উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।এই নিয়ে রাজনৈতিকমহলের ধারণা তাঁর কারণ অবশ্যই তৃণমূলের

big breaking-ফের বোমা বিস্ফোরণ অনুব্রত গড়ে, উতপ্ত এলাকা

ফের বোমা বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল বীরভূম।গত ৩০শে জুন বীরভূমের মল্লারপুরে একটি বিস্ফোরণ ঘটে।তারই পুনরাবৃত্তি গতকাল মাঝরাতে লাভপুরের একটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পরিত্যক্ত ঘরে।পুলিশক্যাম্প থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে এক পুরানো স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পরিত্যক্ত দুটি ঘর ধূলিস্যাত হয়ে যায়। স্বাভাবিক ভাবেই প্রচন্ড উত্তেজনা ও আতঙ্ক ছড়িয়েছে গ্রামবাসীদের মধ্যে। কিভাবে পুলিশ ক্যাম্প এর এত কাছে বোমা

অনুব্রতর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে দল ছাড়ার পোস্ট, হেভিওয়েট নেত্রীর, পরে ডিলিট, জোর জল্পনা

একটি ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ালো বর্ধমানের গুসকরায়।এই পোস্টটি করেন গুসকরা পৌরসভার প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর মল্লিকা চোঙদার।ফেসবুকে করা সেই পোস্টের সঙ্গে তিনি জড়িয়ে দিলেন বীরভূমের বিতর্কিত তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলের নাম। সরাসরি অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় দল ছাড়ার বার্তা দিয়ে মল্লিকা চোঙদার লেখেন- "অনুব্রত মণ্ডলের দুর্ব্যবহারে

দিদির অন্যতম সেরা সৈনিক যে তিনিই বিজেপির ঘরে ভাঙ্গন ধরিয়ে ফের প্রমান অনুব্রতর

লোকসভা ভোটের পর থেকে 'ঘর ভাঙা'র পর্ব ক্রমশ দীর্ঘ হচ্ছে তৃণমূল শিবিরে। প্রায় প্রতিদিনই জোড়াফুল ছেড়ে পদ্মে যোগাদান করছেন দলের নেতা কর্মীরা। এই ধারাবাহিক ভাঙনের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে উলটপুরান ঘটালেন বীরভূম তৃণমূল কংগ্রেসের অবিসংবাদিত নেতা অনুব্রত মণ্ডল। অনুব্রত ম‍্যাজিকের জোরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন সহস্রাধিক নেতা-কর্মী। গতকাল বর্ধমানের আউশগ্রামে তৃণমূলের একটি কর্মীসভার

ক্লাবে বিস্ফোরণ, বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন তৃণমূলের কেষ্ট, জেনে নিন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি এবং বিজেপির উত্থান ঘটার পরই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা ঘটতে শুরু করে। যে ঘটনাগুলিতে কখনও শাসক দল বিজেপির বিরুদ্ধে, আবার কখনও বা বিজেপি শাসকদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে থাকে। আর এবার বীরভূমের মল্লারপুরের মেঘদূত ক্লাবে ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে দেখা গেল বীরভূম

Top
error: Content is protected !!