এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "রাজ্য সরকার"

ওপিনিয়ন পোল – বাকি থাকা পুরভোট – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হবে বালুরঘাট পুরসভার চিত্র?

ওপিনিয়ন ও এক্সিট পোল নিয়ে আমরা ২০১০ সাল থেকেই কাজ করছি। জনসমক্ষে আমাদের প্রথম আত্মপ্রকাশ ২০১৪ সালে। ২০১৪, ২০১৬, ২০১৯-এর তুমুল সাফল্যের পর পাঠক বন্ধুদের অনুরোধে আবার আমরা শুরু করলাম আমাদের পরবর্তী পর্যায়ের ওপিনিয়ন পোল। এবার আমাদের লক্ষ্য পুরভোট - রাজ্যের ১৭ টি পুরসভার নির্বাচন বাকি, কিন্তু রাজ্য সরকার সেখানে প্রশাসক

ওপিনিয়ন পোল – বাকি থাকা পুরভোট – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হবে ডালখোলা পুরসভার চিত্র?

ওপিনিয়ন ও এক্সিট পোল নিয়ে আমরা ২০১০ সাল থেকেই কাজ করছি। জনসমক্ষে আমাদের প্রথম আত্মপ্রকাশ ২০১৪ সালে। ২০১৪, ২০১৬, ২০১৯-এর তুমুল সাফল্যের পর পাঠক বন্ধুদের অনুরোধে আবার আমরা শুরু করলাম আমাদের পরবর্তী পর্যায়ের ওপিনিয়ন পোল। এবার আমাদের লক্ষ্য পুরভোট - রাজ্যের ১৭ টি পুরসভার নির্বাচন বাকি, কিন্তু রাজ্য সরকার সেখানে প্রশাসক

পুলিশ কর্মীদের জন্য সুখবর, বড়সড় নির্দেশিকা জারি নবান্ন থেকে – জেনে নিন বিস্তারিত

এবারের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পেছনে সরকারি কর্মীদের সমর্থন যে অনেকাংশেই কম ছিল, তা বুঝতে বাকি নেই কারোরই। কেননা দীর্ঘদিন ধরেই মহার্ঘ ভাতা না দেওয়ার ফলে রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারীদের মনে তীব্র ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল। আর সরকারি কর্মীদের সেই ক্ষোভ প্রশমিত না হলে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন যে

ওপিনিয়ন পোল – বাকি থাকা পুরভোট – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হবে আলিপুরদুয়ার পুরসভার চিত্র?

ওপিনিয়ন ও এক্সিট পোল নিয়ে আমরা ২০১০ সাল থেকেই কাজ করছি। জনসমক্ষে আমাদের প্রথম আত্মপ্রকাশ ২০১৪ সালে। ২০১৪, ২০১৬, ২০১৯-এর তুমুল সাফল্যের পর পাঠক বন্ধুদের অনুরোধে আবার আমরা শুরু করলাম আমাদের পরবর্তী পর্যায়ের ওপিনিয়ন পোল। এবার আমাদের লক্ষ্য পুরভোট - রাজ্যের ১৭ টি পুরসভার নির্বাচন বাকি, কিন্তু রাজ্য সরকার সেখানে প্রশাসক

ওপিনিয়ন পোল – বাকি থাকা পুরভোট – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হবে মেখলিগঞ্জ পুরসভার চিত্র?

ওপিনিয়ন ও এক্সিট পোল নিয়ে আমরা ২০১০ সাল থেকেই কাজ করছি। জনসমক্ষে আমাদের প্রথম আত্মপ্রকাশ ২০১৪ সালে। ২০১৪, ২০১৬, ২০১৯-এর তুমুল সাফল্যের পর পাঠক বন্ধুদের অনুরোধে আবার আমরা শুরু করলাম আমাদের পরবর্তী পর্যায়ের ওপিনিয়ন পোল। এবার আমাদের লক্ষ্য পুরভোট - রাজ্যের ১৭ টি পুরসভার নির্বাচন বাকি, কিন্তু রাজ্য সরকার সেখানে প্রশাসক

আবার বাড়তে চলেছে পশ্চিমবঙ্গের বিধায়কদের বেতন, ক্ষোভ সরকারি কর্মী ও শিক্ষকমহলে

রাজ্যে যখন বাম শাসন ছিল, তখন প্রধান বিরোধী নেত্রী হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ডিএ নিয়ে সরকারি কর্মীদের আন্দোলনে গিয়ে বলেছিলেন, যে সরকার সরকারি কর্মীদের প্রাপ্য দিতে পারে না, তাদের অধিকার নেই এক মুহূর্তও ক্ষমতায় থাকার। রাজ্য সরকারি কর্মীরা ও শিক্ষকরা, এর পরে অনেক আশা নিয়ে দুহাত ভরে তাঁকে সমর্থন জানিয়েছিলেন ২০১১

সরকারি কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ‘হিংস্র ও পাশবিক’ আচরণের বিস্ফোরক অভিযোগ উঠল মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিরোধী নেত্রী থাকার সময় থেকেই দাবি করে এসেছেন তিনি রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক। তিনি বারেবারেই বিভিন্ন জনসভায় দাবি করেছেন, বাম আমলের বিপুল পরিমান ঋণের বোঝা মাথায় নিয়েও তিনি রাজ্যের উন্নয়ন করে চলেছেন এবং একই সাথে যখন যেটুকু সম্ভব হয়েছে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের প্রাপ্য মেটানোর

আজকের পর বাংলার সরকারি কর্মচারী ও শিক্ষক ভোটের রঙটা কি গেরুয়া হয়েই গেল? বাড়ছে জল্পনা

বর্তমান রাজ্য সরকারের উপর এই মুহূর্তে বোধহয় সবথেকে বেশি ক্ষিপ্ত রাজ্যের লক্ষ লক্ষ সরকারি কর্মচারী, শিক্ষক ও সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত কর্মচারীরা। একের পর এক আন্দোলন ও রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে মামলা সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে। আর রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের এই আন্দোলনের সঙ্গে দীর্ঘদিন যুক্ত থাকা নেতা তথা সরকারি কর্মচারী পরিষদের রাজ্য আহ্বায়ক দেবাশীষ

কলকাতা হাইকোর্টে ডিএ মামলার রিভিউ পিটিশনের শুনানি – কি দাঁড়াল আজকের শুনানির পর? জানুন বিস্তারিত

গত ৩১ শে আগস্ট কলকাতা হাইকোর্টে রাজ্য সরকার ডিএ মামলা নিয়ে প্রথম ধাক্কা খায় - যখন এক ঐতিহাসিক রায়ে আদালত জানিয়ে দেয় - ডিএ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সাংবিধানিক অধিকার। রাজ্য সরকার এতদিন যে প্রচার করত ডিএ আদতে রাজ্য সরকারের দয়ার দান, তা এককথায় নস্যাৎ করে দেয় কলকাতা হাইকোর্ট। আর আদালতে

বেকার যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে কেন্দ্রের দেখানো পথেই বড়সড় পদক্ষেপ ঘোষণা রাজ্য প্রশাসনের

বর্তমান সমাজে বোধহয় সবথেকে বড় ইস্যুর নাম - কর্মসংস্থান। পড়াশোনা শিখেও বাড়িতে বসে থাকতে হচ্ছে অনেক যুবক-যুবতীকেই। আর তাই শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদের স্বনির্ভরতার লক্ষ্যে বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে প্রশাসন। সূত্রের খবর, রাজ্য সরকারের উৎকর্ষ বাংলা প্রকল্পে বাংলার যুবক-যুবতীদের স্বনির্ভর করে তুলতে বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। বর্তমানে অনলাইনের যুগে ক্রমশ বাড়ছে 'টেকনোলজি'

Top
error: Content is protected !!