এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "রথযাত্রা"

রথযাত্রা নিয়ে কি বলল সুপ্রিম কোর্ট? শেষ হাসি কার? জানুন বিস্তারিত

রাজ্য জুড়ে গেরুয়া ঝড় তোলার জন্য বিজেপি আস্থা রেখেছিল রথযাত্রার উপর। কিন্তু, রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে এই যুক্তিতে কিছুতেই রাজি হয় নি রাজ্য প্রশাসন। ফলে, বিষয়টি গড়ায় আদালত পর্যন্ত - কিন্তু কলকাতা হাইকোর্টেও তার সুষ্ঠু সমাধান না হওয়ায়, মামলা গড়িয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। বিজেপির রথযাত্রা নিয়ে আজ সুপ্রিম কোর্টের শুনানিতে বড়সড়

দিলীপ-রাহুল-সুব্রতদের অমিত শাহের দিল্লিতে জরুরি তলব – জল্পনা বাড়ছে গেরুয়া শিবিরের অন্দরে

পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে, বিশেষ করে গো-বলয়ে কংগ্রেসের কাছে ধরাশায়ী হতে হয়েছে গেরুয়া শিবিরকে। ফলে, সম্মিলিত বিরোধী শক্তি আরও বলীয়ান হয়ে ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে ঝাঁপাবেই। এই পরিস্থিতিতে, কেন্দ্র দ্বিতীয়বারের জন্য নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্ত্বাধীন সরকার গড়া বেশ কঠিন - মেনে নিচ্ছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। আর তাই, পশ্চিম ও মধ্যে ভারতের যে আসন সংখ্যা গেরুয়া

দিনভর অপেক্ষার পর অবশেষে এল রথযাত্রা নিয়ে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত – কি হল, জানুন বিস্তারিত

বিজেপির 'গণতন্ত্র বাঁচাও' যাত্রার নামে রথযাত্রায় অনুমতি দেয় নি রাজ্য প্রশাসন - আর তার পরিপ্রেক্ষিতে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করে রাজ্য বিজেপি। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আদালতের নির্দেশ - রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে বসে বিজেপি নেতাদের বৈঠকের ভিত্তিতে এই নিয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সেই বৈঠক নিয়েও একপ্রস্থ টালবাহানা শেষে লালবাজারে হয় বৈঠক। এরপর,

রথযাত্রা নিয়ে প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকের আগে ‘সুপার চমক’ গেরুয়া শিবিরের – জানুন বিস্তারিত

গেরুয়া শিবিরের রথযাত্রা নিয়ে জমজমাট রাজ্য রাজনীতি। রাজনৈতিক লড়াই এখন রাজনীতির ময়দান ছেড়ে আদালতের দোরগোড়ায়। আর আদালতের নির্দেশে আপাতত স্থগিত সেই রাথযাত্রা। কিন্তু, একইসঙ্গে আদালতের নির্দেশ - প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরের নেতাদের বসে আলোচনা করে এর ফয়সালা করতে হবে। কিন্তু, সেই আলোচনার প্রাক্কালেও রাজ্য সরকার আবার ছুটেছিল আদালতের দরবারে।

লোকসভা নির্বাচনেও ‘রাস্তায় বিরোধীদের উন্নয়ন’ দেখতে অনুব্রত মণ্ডলের হাতে রুপো ও বাসের পাচন অনুগামীদের

এতদিন নিজের বক্তব্যে পাচনের কথা বলে বাজিমাত করেছিলেন তিনি। কিন্তু বাস্তবে সেই পাচন জিনিসটা কি তা দেখিনি কেউই। তবে এবারে সেই বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের হাতেই প্রতীকী রুপোর পাচন ও বাসের আসল পাচন তুলে দিলেন তাঁরই দলের অন্যতম কর্মী তথা মুরারই 2 ব্লকের তৃণমূল সভাপতি আফতাবউদ্দিন মল্লিক। সূত্রের খবর,

সুপ্রিম কোর্টে ক্যাভিয়েট থেকে নবান্নের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক – রথ নিয়ে একের পর এক সদর্থক পদক্ষেপ গেরুয়া শিবিরের

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে এই বাংলাকে পাখির চোখ করা বিজেপি নেতৃত্ব প্রথম থেকেই রথযাত্রার মধ্যে দিয়ে এই বাংলার শাসক দল তৃণমূলকে চাপে রাখতে চেয়েছিল। কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে সেই বিজেপির রথযাত্রা এখন প্রায় বিশবাঁও জলে। তবে সিঙ্গল বেঞ্চ বিজেপির এই রথযাত্রা নিয়ে অনিশ্চয়তার রায় দিলেও, গত শুক্রবার এই রথ যাত্রার ব্যাপারে বিজেপি

আদালতের রায়ে এখনই হচ্ছে না রথযাত্রা – তাই রথ বাঁচাতে আপাতত বাংলার বাইরে পাঠিয়ে ও থামিয়ে দেওয়া হল রথকে

স্বপ্ন ছিল, আশাও ছিল প্রচুর। কিন্তু আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে এই বাংলায় গেরুয়া ঝড় তুলতে উদ্যোগী বিজেপির রথযাত্রা কর্মসূচি অবশেষে একপ্রকার ভেস্তেই গেল কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে। সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ বিজেপির এই রথযাত্রা নিয়ে রাজ্য সরকারের সঙ্গে বিজেপি নেতৃত্বকে একটি আলোচনায় বসার নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু আলোচনা চললেও বাংলায় এই রথযাত্রার সম্ভাবনা

ভাঙচুর আটকাতে “রথ” থাকবে গোপনেই, দলীয় কর্মীদের ভাবাবেগ সামাল দিতে দিলীপ ঘোষের “ধন্যবাদ” দাওয়াই

স্বপ্ন ছিল অনেক। কিন্তু অবশেষে সেই স্বপ্নকে ভঙ্গুর করে না রথ দেখা না কলা বেচা - কিছুই হল না বাংলায় গেরুয়া নেতাদের। বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের রায়ের পর থেকেই বিজেপির কেন্দ্রও রাজ্য নেতাদের মনে প্রবলভাবে এই প্রশ্নই ঘোরাফেরা করছিল যে, আদৌ কি বাংলায় তাদের প্রস্তাবিত রথের চাকা ঘুরবে? আর এই

গেরুয়া শিবির আতঙ্কিত অন্তর্ঘাতের প্রশ্নে? খোদ রাজ্য সভাপতির গলায় যে বেসুরো!

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে এই রাজ্যে গেরুয়া ঝড় তুলতে ইতিমধ্যেই রাজ্য নেতৃত্বকে রথযাত্রার কর্মসূচির নির্দেশ দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। আর সেই রথযাত্রার প্রস্তুতি ঘিরে এখন রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় প্রচার সমাবেশ করে বেড়াচ্ছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সূত্রের খবর, গতকাল মাহেশ্বরী ভবনে দলের জেলা সভাপতি, জেলা পর্যবেক্ষক এবং ওই রথ

Top
error: Content is protected !!