এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়" (Page 2)

৪০ বিধায়ক যোগে মোদীর প্রার্থীপদ বাতিল হলে দল ভাঙানোয় মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত, দাবি বিজেপির

প্রিয় বন্ধু বাংলা এক্সক্লুসিভ - বাংলায় ক্রমশ জমে উঠছে ভোটযুদ্ধ - আর তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বাকযুদ্ধ। চতুর্থ দফার নির্বাচন সবে শেষ হয়েছে, এখনো বাকি তিন দফার ভোটগ্রহণ। আর এই সময়ে এই বাকযুদ্ধ যে ক্রমশ আরও বাড়বে - তার ইঙ্গিত স্পষ্ট করছে যুযুধান দুই প্রতিপক্ষ তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি

বঙ্গ বিজেপির নবাগতরা কি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে টিকিট পাবেন? পেলেও কে কোন আসন থেকে পেতে পারেন?

একদা রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অঘোষিত দুনম্বর নেতা মুকুল রায় দলত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করেন। আর গেরুয়া শিবিরে পদার্পন করেই তিনি হুঙ্কার ছেড়েছিলেন, তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠন আদতে নাকি উইয়ের বাসা! সময় এলেই দেখা যাবে তা ঝুরঝুর করে ভেঙে পড়ছে! যদিও মুকুল রায়ের সেই হুঙ্কারে কোনো রকম পাত্তা দেয় নি তৃণমূল

জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানানোর মিছিল নিয়েও সংঘর্ষ বিজেপি-তৃণমূলে, এই নিয়ে অন্তত রাজনীতি বন্ধ হোক দাবি সাধারণের

জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানানোর মিছিলেও বাধ মানলো না তৃণমূল-বিজেপি লড়াই। দুই যুযুধান গোষ্ঠী সংঘর্ষে দু'পক্ষেরই ৬ জন আহত হলেন। তৃণমূল-বিজেপি দুই দলই এই ঘটনার জেরে একে অপরকে দোষারোপ করছে। গোটা ঘটনায় রীতিমতো উত্তেজনা ছড়িয়েছে শ্রীরামপুরের পিয়ারাপুরে। পুলওয়ামায় সিআরপিএফের কনভয়ে আত্মঘাতী হামলায় জওয়ানদের মৃত্যুতে কার্যত বাকরুদ্ধ গোটা দেশ। সাম্প্রতিক কালের সবথেকে বড়

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশকে উপেক্ষা করেই মাধ্যমিকের মাঝেই হেভিওয়েট মন্ত্রীর সভায় তারস্বরে মাইক! তীব্র সমালোচনা বিরোধীদের

নিয়মের তোয়াক্কা না করে মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন ধুপগুড়িতে অডিটোরিয়ামের জমির শিলান্যাস অনুষ্ঠানে জোরে মাইক বাজানোর অভিযোগ উঠল ধুপগুড়ি পৌরসভার বিরুদ্ধে। ওদিকে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। গতকাল দুপুর দুটো নাগাদ ধুপগুড়ি ২ নম্বর ব্রিজ সংলগ্ন পৌরসভার জমি তথা অডিটোরিয়ামের প্রস্তাবিত জমির আনুষ্ঠানিকভাবে শিলান্যাসের পাশাপাশি ভূমিপুজোও করেন।

গভীর রাতে রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে এক ঝাঁক তৃণমূল সাংসদের গোপন বৈঠক ঘিরে তীব্র জল্পনা

রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের স্বপ্ন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে ৪২ টির মধ্যে ৪২ টি আসনেই জয়লাভ করবে তারা, আর তারফলে কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারকে সরিয়ে দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন আপামর তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের প্রাণের চেয়েও প্রিয় দিদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু, এরই পাশাপাশি গেরুয়া শিবিরের বক্তব্য রাজ্য জুড়ে

সরকারি কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ‘হিংস্র ও পাশবিক’ আচরণের বিস্ফোরক অভিযোগ উঠল মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিরোধী নেত্রী থাকার সময় থেকেই দাবি করে এসেছেন তিনি রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক। তিনি বারেবারেই বিভিন্ন জনসভায় দাবি করেছেন, বাম আমলের বিপুল পরিমান ঋণের বোঝা মাথায় নিয়েও তিনি রাজ্যের উন্নয়ন করে চলেছেন এবং একই সাথে যখন যেটুকু সম্ভব হয়েছে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের প্রাপ্য মেটানোর

তৃণমূল নেত্রীর চিন্তা বাড়িয়ে এবার প্রধানমন্ত্রীত্বের দৌড়ে ঢুকে পড়লেন এই হেভিওয়েট নেতাও

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারকে হঠাতে মরিয়া বিরোধীরা। আর সেই লক্ষ্যে গত ১৯ শে জানুয়ারি কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে ২৩ দলের ২৬ জন শীর্ষনেতা উপস্থিত থেকে এক বিশাল জনসমাবেশে অংশগ্রহণ করেন। কিন্তু, সেই জোটকে তীব্র কটাক্ষ করে গেরুয়া শিবির প্রশ্ন তোলে - এই জোটের নেতা

নরেন্দ্র মোদি-‌অমিত শাহর মাথা ঘুরিয়ে দিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি! বড় ‘সার্টিফিকেট’ বিজেপির জোটসঙ্গীর

কেন্দ্র থেকে 'জনবিরোধী' বিজেপি সরকারকে সরাতে এক ছাতার তলায় আসার প্রক্রিয়া শুরু করেছে সমস্ত বিরোধী দলগুলো। আর তারই প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসাবে কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে এক বিশাল জনসমাবেশের আয়োজন করেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে সমাবেশে যোগ দেন দেশের ২৩ টি আঞ্চলিক ও জাতীয় দলের ২৬ জন শীর্ষনেতারা। যদিও,

পিসি-ভাইপোর ‘চক্রান্তেই’ কি টুকরো টুকরো হয়ে যাবে ‘বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর’ স্বপ্ন?

প্রিয় বন্ধু বাংলা এক্সক্লুসিভ - আর মাস দুয়েকের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের লক্ষ্যে সাধারণ লোকসভা নির্বাচন। আর সেই নির্বাচনে বিজেপিকে কেন্দ্র থেকে হঠাতে দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে এক ছাতার তলায় আসার প্রক্রিয়া শুরু করেছে কংগ্রেস সহ বিভিন্ন আঞ্চলিক দলগুলো। আর তা দেখে, গেরুয়া শিবিরের একটাই প্রশ্ন -

চা-ওলাকে প্রধানমন্ত্রী করার পর এবার কাগজ কুড়ানিকে গুরুত্বপূর্ণ শহরের মেয়র করে চমকে দিল বিজেপি

লোকসভা নির্বাচনে বিরোধী দলগুলি বিজেপিকে পরাভূত করতে হাতে হাত মেলাচ্ছে, দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে এক ছাতার তলায় আসছে - একে অপরের বিরুদ্ধে লড়তে থাকা দলগুলি। বিরোধীদের অভিযোগ বিজেপির নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহ জুটি দেশে একনায়কতন্ত্র কায়েম করে গণতন্ত্রকে হত্যা করছে। এমনকি, আম আদমি পার্টির সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল এক ধাপ এগিয়ে দাবি করেছেন

Top
error: Content is protected !!