এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "বিধানসভা"

৪১৪ কোটি দিয়েছে দাবি কেন্দ্রের! উড়িয়ে দিল রাজ্য! সত্য-মিথ্যা নিয়ে জারি চূড়ান্ত জল্পনা

2011 সালে রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিমাতৃসুলভ আচরণের অভিযোগ করে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইউপিএ হোক বা এনডিএ, কেন্দ্রের প্রত্যেক শাসকবর্গের বিরুদ্ধেই রাজ্যকে সাহায্য না করার অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। তবে 2014 সালে কেন্দ্রে বিজেপি সরকার আসার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই অভিযোগ আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। এমনি সময় অর্থ দিয়ে

বিধানসভায় ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে বিজেপি, দলীয় বিধায়কদের কড়া নির্দেশিকা তৃণমূলের

বেশ কিছুদিন আগেই তৃণমূলের কোর কমিটির বৈঠকে দলীয় বিধায়কদের বিধানসভায় হাজিরা দেওয়ার ব্যাপারে কড়া নির্দেশ দিতে দেখা যায় তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কিন্তু নেত্রীর সেই নির্দেশ যে দলীয় বিধায়কদের কানে এখনও পৌঁছায়নি তা ফের স্পষ্ট হয়ে গেল। লোকসভা নির্বাচনের পর যখন বাংলায় বিজেপির শক্তি দিনকে দিন বৃদ্ধি হচ্ছে,

আবার বাড়তে চলেছে পশ্চিমবঙ্গের বিধায়কদের বেতন, ক্ষোভ সরকারি কর্মী ও শিক্ষকমহলে

রাজ্যে যখন বাম শাসন ছিল, তখন প্রধান বিরোধী নেত্রী হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ডিএ নিয়ে সরকারি কর্মীদের আন্দোলনে গিয়ে বলেছিলেন, যে সরকার সরকারি কর্মীদের প্রাপ্য দিতে পারে না, তাদের অধিকার নেই এক মুহূর্তও ক্ষমতায় থাকার। রাজ্য সরকারি কর্মীরা ও শিক্ষকরা, এর পরে অনেক আশা নিয়ে দুহাত ভরে তাঁকে সমর্থন জানিয়েছিলেন ২০১১

৪০ বিধায়ক যোগে মোদীর প্রার্থীপদ বাতিল হলে দল ভাঙানোয় মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত, দাবি বিজেপির

প্রিয় বন্ধু বাংলা এক্সক্লুসিভ - বাংলায় ক্রমশ জমে উঠছে ভোটযুদ্ধ - আর তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বাকযুদ্ধ। চতুর্থ দফার নির্বাচন সবে শেষ হয়েছে, এখনো বাকি তিন দফার ভোটগ্রহণ। আর এই সময়ে এই বাকযুদ্ধ যে ক্রমশ আরও বাড়বে - তার ইঙ্গিত স্পষ্ট করছে যুযুধান দুই প্রতিপক্ষ তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি

হেভিওয়েট তৃণমূল সাংসদ ও মন্ত্রীর, জনপ্রিয় হিন্দি নায়িকার সঙ্গে খোলা মঞ্চে নাচ – ঝড় সোশ্যাল মিডিয়ায়

রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারেবারেই বিভিন্ন জনসভায় দাবি করে থাকেন তিনি বাংলার কৃষ্টি-সংস্কৃতি-ঐতিহ্যের নিজে যেমন গুণমুগ্ধ - তেমনই তা ভারতের গন্ডি ছাড়িয়ে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দিতে আন্তরিক। আর তাই - তাঁর হাত ধরে উঠে এসেছে 'বিশ্ববাংলা', যা বাংলার ঐতিহ্যপূর্ণ সংস্কৃতিকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরবে। স্বাভাবিকভাবেই দলনেত্রী তথা

বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর – কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে রাজ্যের প্রতি পরিবার পিছু একজনকে সরকারি চাকরি

গোটা দেশ জুড়েই কেন্দ্র সরকার ও বিভিন্ন রাজ্য সরকারের সবথেকে বড় মাথাব্যথার কারণ বেকারত্ব ও কর্মসংস্থান। কিন্তু, এবার সেই বিষয়ে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়ে চমকে দিলেন সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী পবন কুমার চামলিং। দীর্ঘদিন ধরেই সিকিমের মুখ্যমন্ত্রীত্ব সামলাচ্ছেন তিনি - ভেঙে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে সর্বকালীন সব রেকর্ড। কিন্তু, এবারে তিনি তাঁর রাজ্যবাসীর জন্য

মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নে বড় বাধা! কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয় আটকানো পথে বামেরা – জানুন বিস্তারিত

ক্ষমতায় আসার পর থেকে বিভিন্ন সময় রাজ্যের উন্নয়নে বিরোধীরা বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করতেন শাসকদলের নেতা মন্ত্রীরা। যদিও বা বিরোধীদের তরফ সেই অভিযোগকে বারবার নস্যাৎ করা হয়েছে। তবে এবার সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের ব্যাপারে প্রবল বিরোধিতায় নামল রাজ্যের একদা ক্ষমতাসীন দল হিসেবে পরিচিত বামফ্রন্টের বড় শরিক

প্রয়াত রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা, শোকের ছায়া রাজনৈতিক মহলে

মাত্র ৭৩ বছর বয়সে বার্ধক্যজনিত রোগে প্রয়াত হলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার হায়দার আজিজ সফি। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে রাজনৈতিক মহলে - ট্যুইটারে শোকবার্তা দিয়েছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর নশ্বর দেহ আজ বিধানসভায় নিয়ে আসা হয় - যেখানে তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়। আগামীকাল

সাড়ে ৭ ঘন্টার ভোটগণনার শেষের স্পষ্ট নয় মধ্যপ্রদেশের চিত্র – কোন পথে কে করতে পারে সরকার গঠন?

সকাল ৮ টা থেকে ভোটগণনা শুরু হলেও - এখনও পর্যন্ত মধ্যপ্রদেশের চিত্র পরিষ্কার নয়। কে আসতে চলেছে মধ্যপ্রদেশের কুর্সিতে - সেটাই এখন লক্ষ টাকার প্রশ্ন। ২৩০ আসন বিশিষ্ট এই রাজ্যের বিধানসভাতে স্পষ্ট সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে গেলে দরকার ১১৬ আসন। কিন্তু শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, মধ্যপ্রদেশে বিজেপি ও কংগ্রেস - উভয় দলের ঝুলিতেই

নির্বাচনের পর রাস্তায় গড়াগড়ি খাচ্ছে নির্বাচনের কাজে ব্যবহৃত ইভিএম – হুলুস্থুলু রাজস্থানে

লোকসভা নির্বাচনের আগে গতকালই শেষ হল পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। গতকাল শেষদিনে দেশের দুই প্রান্তে - রাজস্থানে ও তেলেঙ্গানায় ভোটগ্রহণ হয়। লোকসভা নির্বাচনের আগে যেহেতু দেশের বিভিন্নপ্রান্তে হওয়া এই বিধানসভা নির্বাচনগুলিই শেষ বড় নির্বাচন - তাই সকলেরই চোখ এর ফলাফলের দিলে। বিশেষ করে ৫ রাজ্যের মধ্যে ২ টি রাজ্য বেশ

Top
error: Content is protected !!