এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "বহুজন সমাজবাদী পার্টি"

ফেডারেল ফ্রন্ট ভাঙতে ‘অতীতের কথা’ তুলে হেভিওয়েট নেত্রীকে ‘বড় অফার’ বিজেপি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

আর মাস দুয়েকের মধ্যেই দেশের লোকসভা নির্বাচন - যেখানে ঠিক হয়ে যাবে পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্য দেশের শাসনভার থাকবে কার বা কাদের হাতে। একদিকে, যখন সেই নির্বাচনে জিতে পুনরায় ক্ষমতায় ফিরে আসতে আত্মবিশ্বাসী বর্তমান শাসকদল বিজেপি - অন্যদিকে, তখন বিজেপির ঘুম উড়িয়ে দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে গাঁটছড়া বাঁধার প্রক্রিয়া শুরু করে

ভারতের নির্বাচনে ইভিএম ‘হ্যাক’ হয় – এবার বিদেশের মাটিতে করা হবে প্রমান?

দীর্ঘদিন ধরেই ভারতের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির দাবি, ভারতের সাধারণ নির্বাচনে যে ইভিএম ব্যবহার করা হয় তা হ্যাক করা হয় এবং বিজেপি নাকি নির্বাচনের ফল নিজেদের মত করে নেয়। এই নিয়ে সব থেকে বেশি সরব হয় আম আদমি পার্টি ও কংগ্রেস, আর পরবর্তীকালে সেই একই সুরে সুর মেলায় তৃণমূল কংগ্রেস, বহুজন

‘পিসি-ভাইপোর’ জোট সত্ত্বেও বিজেপির সম্ভাবনা নিয়ে যা জানালেন রাজনাথ সিং – জানলে চমকে যাবেন

ভারতীয় রাজনীতিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হল উত্তরপ্রদেশ। কথাতেই আছে, উত্তরপ্রদেশ যার - দিল্লির কুর্শি তার। আর হবে নাই বা কেন? ভারতের বৃহত্তম এই রাজ্যে আছে সব থেকে বেশি ৮০ টি লোকসভা আসন। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনেও সেই ৮০ টি আসনের মধ্যে জোটসঙ্গীর ১ টি আসন ধরে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট জিতেছিল

‘পিসি-ভাইপোর’ অস্বস্তি বাড়িয়ে ‘কাকা’ চললেন কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মেলাতে – জানুন বিস্তারিত

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহের ঘুম ওড়াতে দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে হাতে হাত মিলিয়ে জোট বেঁধেছেন উত্তরপ্রদেশের 'পিসি' মায়াবতী ও 'ভাইপো' অখিলেশ যাদব। এই 'বুয়া-ভাতিজার' জোট এখন জাতীয় রাজনীতিতে চর্চার বিষয়। বিরোধীরা একত্রিত হয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে একের বিরুদ্ধে এক ফর্মুলায় প্রার্থী দিলে - গেরুয়া শিবিরের কপালে যে ভালোই দুঃখ আছে

‘পিসি-ভাইপোর’ জোটে শেষ কথা ‘পিসিই’, কংগ্রেসের কপালে শুধুই দয়া!

শনিবারের বারবেলায় এসে অবশেষে ঘোষিত হল বহু প্রতীক্ষিত 'বুয়া-ভাতিজা' বা 'পিসি-ভাইপোর' জোট। উত্তরপ্রদেশে বিজেপিকে হারাতে ও নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার্থে দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে প্রায় আড়াই দশক বাদে জোট করল মায়াবতীর বহুজন সমাজবাদী পার্টি ও অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টি। ২০১৪ এর লোকসভা নির্বাচন উত্তরপ্রদেশের এই দুই দলের কাছে রীতিমত দুঃস্বপ্ন ছিল। প্রবল মোদী

এনডিএ, ইউপিএ নাকি ফেডারেল ফ্রন্ট – ইন্ডিয়া টিভির সর্বশেষ সমীক্ষা অনুযায়ী কে করবে বাজিমাত? রাজ্যওয়ারি ফলাফল

গতকাল আসন্ন লোকসভা নির্বাচন উপলক্ষে ইন্ডিয়া টিভি ও সিএনএক্সের যৌথ জনমত সমীক্ষা প্রকাশিত হয়েছে। সেই সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে ২০১৪ সালের তুলনায় ক্ষমতাসীন এনডিএর আসন-সংখ্যা অনেকটাই কমছে - এমনকি সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকছে না এনডিএ জোটেরও! যদিও ইউপিএর আসন সংখ্যা অনেকটাই বাড়তে চলেছে নতুন জোটসঙ্গীদের দৌলতে। তবুও, সরকার গড়ার চাবিকাঠি থাকছে আঞ্চলিক দলগুলির

বেআইনি বালি খাদান মামলায় এবার ‘ভাইপোর’ ঘুম ওড়াতে চলেছে সিবিআই – জানুন বিস্তারিত

ভারতীয় রাজনীতিতে একটি কথা প্রচলিত আছে - উত্তরপ্রদেশ যাঁর, দিল্লির কুর্শি তাঁর! আর এই কথাকে পুনরায় সত্যি করে ২০১৪ এর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ও জোটসঙ্গী মিলে উত্তরপ্রদেশের ৮০ টি লোকসভা আসনের মধ্যে ৭৩ টিই নিজেদের দখলে রাখে। কংগ্রেস বা সমাজবাদী পার্টি কোনোরকমে মুখরক্ষা করলেও খাতা খুলতে পারে না বহুজন সমাজবাদী

অপমানিত ‘ভাইপোর’ জেদে ‘পিসি-ভাইপোর’ মহাজোটে ঠাঁই নেই কংগ্রেসের, জুটতে পারে মাত্র দুটি আসন!

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে অ-বিজেপি মহাজোটের আসন সমঝোতা প্রায় চূড়ান্ত হয়েই গিয়েছে। এই মহাজোটে অখিলেশ যাদবের সপা বা মায়াবতীর বসপা কেউই কংগ্রেসের সঙ্গ চায় না বলে সূত্রের খবর। কার্যত রাহুল গান্ধীকে দূরে রেখেই লোকসভা ভোট যুদ্ধে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের 'বুয়া-ভাতিজা' বা 'পিসি-ভাইপো' বলে খ্যাত মায়াবতী ও অখিলেশ যাদব।

বারাণসীতে নরেন্দ্র মোদী পুনরায় প্রার্থী হলে তাঁর বিরুদ্ধে লড়তে পারেন এই হেভিওয়েট তরুণ তুর্কি

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদী একসাথে দুটি লোকসভা আসন থেকে লড়ার সিদ্ধান্ত নেন। তার মধ্যে অন্যতম ছিল উত্তরপ্রদেশের বারাণসী। দুটি আসন থেকেই তিনি জয়ী হওয়ার পর - শেষপর্যন্ত এই বারাণসী আসনটিই নিজের জন্য তিনি রেখে দেন। ২০১৪ সালে তাঁর বিরুদ্ধে আম আদমি পার্টির সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল এই

রাজ্যসভাতে আটকাতেই হবে “তিন তালাক বিল”, বিরোধীদের সঙ্গে আলোচনা করে হুইপ জারি তৃণমূলের

কেন্দ্রের পক্ষ থেকে মুসলিম মহিলাদের সুবিচারের জন্য "তিন তালাক বিল" আনা হলেও প্রথম থেকেই এর প্রবল বিরোধী তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু তীব্র বিরোধিতা করেও লোকসভায় সেই বিলকে আটকাতে পারেনি তারা। লোকসভায় এই বিলের সংশোধনীর ব্যাপারে কংগ্রেসের অধীর রঞ্জন চৌধুরী, কেরলের এম কে প্রেমচন্দনরা সরব হলেও সংখ্যাগরিষ্ঠের ভিত্তিতে তা পাস করাতে সক্ষম

Top
error: Content is protected !!