এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "বহরমপুর"

মুর্শিদাবাদে অধীর-ম্যাজিক অব্যাহত, এবার তাঁর হাত ধরে কংগ্রেসে যোগ দিলেন প্রাক্তন হেভিওয়েট বিধায়ক

মুর্শিদাবাদ জেলা ও অধীর রঞ্জন চৌধুরী যেন একে অপরের সমার্থক হয়ে গিয়েছিল। নিজের 'গরীবের রবিনহুড' ভাবমূর্তি নিয়ে মুর্শিদাবাদ জেলাকে কার্যত 'কংগ্রেসের-গড়' করে ফেলেছিলেন তিনি। কিন্তু বিগত বিধানসভা নির্বাচনে তিনি বামফ্রন্টের সঙ্গে জোট করে তৃণমূল কংগ্রেসকে হারানোর পরিকল্পনা করতেই যেন - তাঁকে রাজনৈতিকভাবে শেষ করে দেওয়ায় মূল লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় শাসকদলের। মুর্শিদাবাদ

তৃণমূল ভাঙিয়ে কংগ্রেসের বড় শক্তি বৃদ্ধি করেই অধীর চৌধুরীর হুঙ্কার – তিনে তিন, তৃনমূলকে কবর দিন!

মুর্শিদাবাদ জেলা ও অধীর রঞ্জন চৌধুরী যেন একে অপরের সমার্থক হয়ে গিয়েছিল। নিজের 'গরীবের রবিনহুড' ভাবমূর্তি নিয়ে মুর্শিদাবাদ জেলাকে কার্যত 'কংগ্রেসের-গড়' করে ফেলেছিলেন তিনি। কিন্তু বিগত বিধানসভা নির্বাচনে তিনি বামফ্রন্টের সঙ্গে জোট করে তৃণমূল কংগ্রেসকে হারানোর পরিকল্পনা করতেই যেন - তাঁকে রাজনৈতিকভাবে শেষ করে দেওয়ায় মূল লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় শাসকদলের। মুর্শিদাবাদ

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে লড়াইটা তৃণমূল বনাম বিজেপি – স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে - এ যেন ভূতের মুখে রাম নাম! যেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য শীর্ষনেতারা প্রতিটা জনসভায় রীতিমত দাবি করে বলছেন, বাংলায় বিজেপির কোনো অস্তিত্ব নেই, ২০১৪-এর জেতা দুটো আসনও নাকি বিজেপি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ধরে রাখতে পারব না! সেখানে, সম্পূর্ণ উল্টো পথে হেঁটে তৃণমূল

মুর্শিদাবাদের ৩ লোকসভা আসনে তৃণমূলের টিকিট প্রার্থী ৬ হেভিওয়েট – তুমুল জল্পনা শাসকদলের অন্দরেই

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে মুর্শিদাবাদ জেলার ৩ লোকসভা আসনের জন্য তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিট পেতে আগ্রহী ছয়-ছয়জন হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা বলে তীব্র জল্পনা ছড়িয়েছে শাসকদলের অন্দরেই। একদা, কংগ্রেসের গড় বলে পরিচিত ছিল এই মুর্শিদাবাদ জেলা - ২০১৪-এর লোকসভা নির্বাচনে গোটা রাজ্যে প্রবল ঘাসফুল ঝড় চললেও, এই জেলার তিনটির মধ্যে দুটি আসনেই তৃতীয়

মুর্শিদাবাদে শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চরমে – জেলা কার্যালয়েই জেলা সহ-সভাপতিকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে গ্রেপ্তার কাউন্সিলার

দলে গোষ্ঠী কোন্দল কমাতে এবং সঠিক কর্মীদের গুরুত্ব দিতে যখন বিভিন্ন জেলার নেতাদের কড়া বার্তা দিচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঠিক তখনই সেই বিভিন্ন জেলার শাসকদলের বিভিন্ন সক্রিয় নেতারাই দলীয় গোষ্ঠী কোন্দলের শিকারে আহত হচ্ছেন। এবার বহরমপুরে তৃণমূলের জেলা কার্যালয়েই আক্রান্ত হলেন মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের সহ সভাপতি অশোক

মুর্শিদাবাদে তৃণমূলকে ‘কেক ওয়াক’ নয়, তিন আসন নিয়ে বড়সড় দাবি কংগ্রেসের ‘রবিনহুডের’, নাহলে রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস?

এককালে কংগ্রেস গড় বলে পরিচিত মুর্শিদাবাদ জেলায় এখন ধীরে ধীরে ফুটতে শুরু করেছে ঘাসফুল শিবিরের দাপট। জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক হিসেবে শুভেন্দু অধিকারী দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই ভেঙে পড়েছে কংগ্রেসের অধীর চৌধুরীর গড় বলে দাবি শাসকদলের। কিন্তু নিজের গড় হাতছাড়া হয়েছে একথা এখনো মানতে রাজি নন রাজ্য প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি

প্রথম সম্মুখ সমরেই প্রাক্তন প্রদেশ সভাপতির কাছে গোহারা হারলেন সোমেন মিত্র – জানুন বিস্তারিত

প্রদেশ সভাপতি পদ খোয়ালেও এবার ফের রাজ্য যুব কংগ্রেসের সভাপতি পদে জয় হল সেই প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর গোষ্ঠী বলে পরিচিত শাদাব খানের। প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগেই রাজ্য প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি পদ থেকে অধীর চৌধুরীকে সরিয়ে সেখানে বসানো হয় সোমেন মিত্রকে। আর এরপর থেকেই বর্তমান বনাম প্রাক্তন

‘হার্মাদ মুক্তি দিবসে’ লক্ষণ শেঠকে নিয়ে ‘ইঙ্গিতবাহী’ মন্তব্য শুভেন্দু অধিকারীর

শুভেন্দু-লক্ষ্মণ দ্বন্দ্ব আজকের নয়। সেই বাম জামানায় এই দ্বন্দ্বের অভিষেক হয়েছিলো। তারপর বাম জামানার অবসানে লক্ষ্মণ শেঠের প্রতাপ কমলেও শুভেন্দু অধিকারী এখন তৃণমূলের একজন হেভিওয়েট নেতা তথা পরিবহণ এবং পরিবেশ দপ্তরের মন্ত্রীও। বিজেপিতে কোনঠাসা হওয়ার পর তৃণমূলে যোগদান করতে চাইলেও লক্ষ্মণ শেঠকে বরাবরই লাল সিগন্যাল দেখিয়েছেন শুভেন্দু। এদিন খেজুরির কামারদায় তৃণমূলের

Top
error: Content is protected !!