এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "চন্দ্রবাবু নাইডু"

পিসি-ভাইপোর ‘চক্রান্তেই’ কি টুকরো টুকরো হয়ে যাবে ‘বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর’ স্বপ্ন?

প্রিয় বন্ধু বাংলা এক্সক্লুসিভ - আর মাস দুয়েকের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের লক্ষ্যে সাধারণ লোকসভা নির্বাচন। আর সেই নির্বাচনে বিজেপিকে কেন্দ্র থেকে হঠাতে দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে এক ছাতার তলায় আসার প্রক্রিয়া শুরু করেছে কংগ্রেস সহ বিভিন্ন আঞ্চলিক দলগুলো। আর তা দেখে, গেরুয়া শিবিরের একটাই প্রশ্ন -

ব্রিগেডে হাসিমুখে পাশে বসে থাকলেও, এবার কি বড় ধাক্কা দিতে চলেছেন দিদির এই বিশেষ বন্ধু?

২১ শে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন ২০১৯ এর ১৯ শে জানুয়ারী ব্রিগেডে বিজেপি বিরোধী দেশের সকল রাজনৈতিক দলকে নিয়ে এক বৃহত্তর সমাবেশ করবেন। আর সেই লক্ষ্যে দুর্গাপুজো শেষ হতেই কার্যত নাওয়া-খাওয়া ভুলে গেছেন শাসকদলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা। আর সেই অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে - ব্রিগেড

আজ তৃণমূলের ঐতিহাসিক ব্রিগেড সমাবেশ – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্ব মেনে নেন কিনা বিরোধী নেতারা নজর সেদিকেই

২০১৪ সালে দেশজুড়ে প্রবল মোদী হাওয়ার মধ্যেও বাংলায় প্রবলভাবে ছিল দিদি-হাওয়া। আর সেই হাওয়াতে ভর করেই রাজ্য থেকে নিজেদের সর্বকালীন রেকর্ড সংখ্যক ৩৪ টি আসন দখলে এনেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। লোকসভাতে যদিও বিজেপির নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার সামনে কাজে লাগে নি সেই সংখ্যা - কিন্তু দেশের চতুর্থ বৃহত্তম দল হয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল

কবে হতে পারে লোকসভা নির্বাচন? মোট কত দফায় ভোট? স্পষ্ট করে দিল নির্বাচন কমিশন

একদিকে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারের অভিমত তারা দেশের সাধারণ মানুষের জন্য যা কাজ করেছে তাতে নরেন্দ্র মোদির টানা দ্বিতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসা শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা। অন্যদিকে রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বাধীন জাতীয় কংগ্রেস মনে করছে মানুষ মোটেই বিজেপির দেখানো সপ্নমত 'আচ্ছে দিন' পায় নি, আর তাই রাজনীতির চাকা ঘুরবে -

নির্বাচনী ক্রিকেটের ময়দানে মোদিজির আরও ছক্কা আসতে চলেছে’ – জল্পনা বাড়ালেন হেভিওয়েট মন্ত্রী

সংসদের বাজেট অধিবেশন নিয়ে প্রথম থেকেই কৌতূহল ছিল দেশবাসীর মধ্যে। এই অধিবেশন নিয়ে একইরকম চর্চা চলেছে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যেও। এই বাজেট অধিবেশন আর নতুন কী কী চমক দেবেন মোদী? এ প্রশ্নের উত্তর জানতে রুদ্ধশ্বাসে অপেক্ষার প্রহর গুনছে রাজনৈতিকমহল। কারণ এটা মোদী সরকারের পঞ্চম বছর। ১৯'এর লোকসভা ভোটের আগে

রাজ্য-রাজনীতিতে আবার প্রবল রাজনৈতিক অসহিষ্ণুতা! মুখ্যমন্ত্রীকে ‘কুবাক্যে’ আক্রমন হেভিওয়েট গেরুয়া নেতার

বঙ্গ রাজনীতিতে বিভিন্ন সময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়েছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীরা। আর বিরোধী নেত্রী থাকার সময়, এই অশ্লীল মন্তব্য ও কুবাক্য সব থেকে বেশি সহ্য করতে হয়েছে বঙ্গের বর্তমান শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং তার সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। অতীতে বিরোধী নেত্রী থাকার সময় এই মমতা

পুরোনো শরিকের পুনরায় তীব্র আক্রমন প্রধানমন্ত্রীকে, লোকসভার আগে ক্রমশ অস্বস্তি বাড়ছে নরেন্দ্র মোদীর

২০১৯ সালে কেন্দ্রের মসনদ থেকে বিজেপিকে সরাতে অত্যন্ত দৃঢ়প্রতিজ্ঞ অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। ২০১৪ সালে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকার স্থাপনের সময় চন্দ্রবাবু নাইডুর সঙ্গে বিজেপির সুসম্পর্ক থাকলেও এখন তাঁর সাথে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের আদায় কাঁচকলায় সম্পর্ক। প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের পর থেকেই নরেন্দ্র মোদীর বিরোধিতায় সর্বাগ্রে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সবগুন আছে মমতার – মহাজোটের মহাবৈঠকের আগের দিন জল্পনা বাড়ালেন বাজপেয়ীর মহামন্ত্রী

বিজেপি বিরোধী জোটের অন্যতম প্রধান মুখ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় - এতে সন্দেহ নেই কোনো। ১৯'এর লোকসভা ভোটে কে হবেন দেশের প্রধানমন্ত্রী?এই প্রশ্নকে ঘিরে যখন চর্চা শুরু হয়েছে, তখন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই আগামী প্রধানমন্ত্রী পদে দেখার ইচ্ছার কথা প্রকাশ করেছেন বহু অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদরা। তৃণমূল নেত্রী নিজে যদিও প্রকাশ্যে বারেবারেই বলেছেন,

Top
error: Content is protected !!