এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "কলকাতা পুরসভা"

মুকুল-শঙ্কুর হাত ধরে এবার খোদ কলকাতার বুকে তৃণমূলের যুব সংগঠনে বড়সড় ভাঙন ধরালো বিজেপি

লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে বিজেপি ১৮ টি আসন জেতার পরেই, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে শাসকদল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক লেগেছে। রাজনৈতিক গুরু মুকুল রায় যখন তৃণমূলের মাদার সংগঠনকে ভেঙে ছিন্নভিন্ন করে দিচ্ছেন, তখন প্রিয়তম শিষ্য শঙ্কুদেব পণ্ডা একই দায়িত্ব নিয়ে নিয়েছেন তৃণমূলের ছাত্র ও যুব সংগঠনে থাবা বসাতে। এতদিন, শঙ্কুদেব পণ্ডার

এক নারীচরিত্রের ‘আগমন’ ঘিরে শুরু বিতর্ক! কলকাতা পুরসভার গেরুয়াকরনে নয়া মোড়?

গতকালই এক প্রতিবেদনে আমরা জানিয়েছিলাম, আমাদের গোপন সূত্রের খবর অনুযায়ী এবার রাজনৈতিক মহলকে চমকে দিয়ে কলকাতা পুরসভার দখল নিতে চলেছে বিজেপি। কলকাতা পুরসভার ৬৬ জন কাউন্সিলর, এক বিধায়কের নেতৃত্বে এই সপ্তাহেই দিল্লি গিয়ে বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। ১৪৪ আসন বিশিষ্ট কলকাতা পুরসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে দরকার ৭৩ কাউন্সিলরের সমর্থন। গত পুর-নির্বাচনে

বিগ ব্রেকিং নিউজ – এই সপ্তাহের মধ্যেই কলকাতা পুরসভার দখল নিতে চলেছে বিজেপি?

লোকসভা নির্বাচনের পরেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখানোর ধুম পরে গেছে গোটা রাজ্য জুড়ে। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের একাধিক বিধায়ক তৃণমূল, বামফ্রন্ট বা কংগ্রেস ছেড়ে যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে। সেই বিধায়কদের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিচ্ছেন একাধিক কাউন্সিলরও - ফলে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু পুরসভার দখল নিয়েছে বিজেপি। আজ দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে প্রাক্তন তৃণমূল

সময়ের আগেই আছড়ে পড়তে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’, কি জানাচ্ছে মৌসম-ভবন?

সারা দেশে বিশেষ করে দেশের পূর্ব উপকূলের রাজ্যগুলোর বর্তমান আতঙ্কের নাম 'ফণী', ঘন্টায় সর্বোচ্চ ২০০ কিমি বেগে ওড়িশার পুরীর কাছে স্থলভাগে আছে পড়তে চলেছে এই ঘূর্ণিঝড় বলে আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছিল। প্রথমে ওড়িশার উপরে আছড়ে পড়লেও ধীরে ধীরে এই ঘূর্ণিঝড় পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বাংলাদেশে চলে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে

নজিরবিহীন! নতুন বছরে এখনো পেনশনের দেখা পেলেন না ৮ হাজার পেনশনভোগী প্রাক্তন কর্মী!

ব্যক্তিগত জীবনে বেশ কিছু ঝামেলার জন্য অবশেষে রাজ্যের মন্ত্রীত্ত্বের পাশাপাশি কলকাতা পুরসভার মেয়রপদে থেকে ইস্তফা দিতে বাধ্য হন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হবেন কে? এই প্রশ্নে যখন আকুল বঙ্গবাসী - তখন পুরনিয়মের তড়িঘড়ি বদল ঘটিয়ে রাজ্যের বেশ কিছু গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রকের দায়িত্ত্ব সামলানো ফিরহাদ হাকিমের হাতেই তুলে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা

নজিরবিহীন! নতুন বছরে এখনো পেনশনের দেখা পেলেন না ৮ হাজার পেনশনভোগী প্রাক্তন কর্মী!

ব্যক্তিগত জীবনে বেশ কিছু ঝামেলার জন্য অবশেষে রাজ্যের মন্ত্রীত্ত্বের পাশাপাশি কলকাতা পুরসভার মেয়রপদে থেকে ইস্তফা দিতে বাধ্য হন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হবেন কে? এই প্রশ্নে যখন আকুল বঙ্গবাসী - তখন পুরনিয়মের তড়িঘড়ি বদল ঘটিয়ে রাজ্যের বেশ কিছু গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রকের দায়িত্ত্ব সামলানো ফিরহাদ হাকিমের হাতেই তুলে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা

কলকাতা পুরসভায় ফিরহাদ হাকিম ‘ম্যাজিক’ – তাঁর হস্তক্ষেপেই অন্য দলের সঙ্গে বিবাদ মিটিয়ে নিচ্ছেন হেভিওয়েট দলীয় নেতা

বিরোধী দলের কাউন্সিলরকে অপমান করার অভিযোগে উঠেছিল পুর কমিশনার খলিল আহমেদের বিরুদ্ধে। পরে মেয়রের হস্তক্ষেপে সমস্যা মেটে।১২৮ নম্বর ওয়ার্ডের সিপিএম কাউন্সিলর বামফ্রন্টের পুর-পরিষদীয় নেত্রী রত্না রায় মজুমদার কমিশনারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন যে, বৈঠকে আমন্ত্রণ পেয়ে যোগদান করতে এসে তিনি অপমানিত হয়েছেন। তিনি আরও জানান, মেয়র পরিষদ সদস্য বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়ের ডাকা বৈঠকে

প্রশাসনিক স্বচ্ছতা – নতুন চেয়ারে বসেই টেন্ডার প্রক্রিয়া নিয়ে বড়সড় ঘোষণা ফিরহাদ হাকিমের

এবার টেন্ডার প্রক্রিয়া নিয়ে বড়সড় ঘোষণা করলেন কলকাতা পৌরসভার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম। সূত্রের খবর, গতকাল কলকাতার পুরভবনে কলকাতা পরিবেশ উন্নয়ন প্রকল্পের কর্তা ব্যক্তিদের নিয়ে একটি বৈঠকে বসেন মেয়র। আর সেইখানেই তিনি কেইআইপি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে প্রবল অসন্তোষ প্রকাশ করেন। জানা গেছে, রাজ্য সরকারের অর্থ দপ্তরের নিয়ম বিধি অনুযায়ী টেন্ডার না হওয়াতেই এদিন

সমস্ত জল্পনা কল্পনা অবসান – মেয়র হিসাবে পদত্যাগ শোভনের, নতুন দায়িত্ত্বে ফিরহাদ-অতীন

রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অভ্যন্তরে শোভন চট্টোপাধ্যায় নামক পর্বের শেষ অঙ্ক অভিনীত হল অবশেষে। একে একে তিন মন্ত্রক, দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা সভাপতির পদের পর - হাতে থাকা পেন্সিলের মত ছিল শুধু কলকাতা মেয়রের পদ। আর এবার দলের নির্দেশে সেখানেও পদত্যাগ করতে বাধ্য হলে দিদির একদা আদরের কানন। প্রথমে শোনা গিয়েছিল

মেয়রের চেয়ারে কি এবার কোন হেভিওয়েট মন্ত্রী? তৃণমূল নেত্রীর পদক্ষেপে বাড়ল জল্পনা

মঙ্গলবার শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মন্ত্রীপদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পরই মেয়র পদেও তাঁর ইস্তফা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। ব্যক্তিগত সম্পর্কের টানাপোড়েনের জেরে মন্ত্রীপদ খোয়াতে হল তাঁর। রাজনীতির ময়দানে তাঁর ইনিংস কি চিরতরে শেষ হয়ে গেল? তাঁর যায়গায় নতুন কোন হেভিওয়েট নেতাকে আনতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? এই দুটি প্রশ্নকে ঘিরে ব্যাপক চর্চা শুরু হয়েছে

Top
error: Content is protected !!