এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "কর্মসংস্থান"

শিক্ষাক্ষেত্রে ‘ইন্টার্ন’ নিয়োগ নিয়ে রাজ্যপাল থেকে শিক্ষামন্ত্রী, WBPTTA-এর জোড়া বড়সড় উদ্যোগ

গত ১৪ ই জানুয়ারী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন যে রাজ্যের শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষকদের অপ্রতুল অবস্থা সামাল দিতে এবং রাজ্যের শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদের কথা ভেবে আগামীদিনে রাজ্যের প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত ইন্টার্ন নিয়োগ করা হবে। আর, রাজ্যের প্রাথমিক স্কুলগুলিতে ইন্টার্নদের মাসিক ২,০০০ টাকা এবং উচ্চ-প্রাথমিকের ক্ষেত্রে ২,৫০০ টাকা করে ইন্টার্নশিপ দেওয়া

বেকার যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে কেন্দ্রের দেখানো পথেই বড়সড় পদক্ষেপ ঘোষণা রাজ্য প্রশাসনের

বর্তমান সমাজে বোধহয় সবথেকে বড় ইস্যুর নাম - কর্মসংস্থান। পড়াশোনা শিখেও বাড়িতে বসে থাকতে হচ্ছে অনেক যুবক-যুবতীকেই। আর তাই শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদের স্বনির্ভরতার লক্ষ্যে বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে প্রশাসন। সূত্রের খবর, রাজ্য সরকারের উৎকর্ষ বাংলা প্রকল্পে বাংলার যুবক-যুবতীদের স্বনির্ভর করে তুলতে বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। বর্তমানে অনলাইনের যুগে ক্রমশ বাড়ছে 'টেকনোলজি'

বিদ্যালয়ে ইন্টার্নশিপের মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় ক্ষোভ বাড়ছে শিক্ষক সমাজের, বড়সড় আন্দোলনের ইঙ্গিত

গতকালই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন রাজ্যের শিক্ষক সমস্যার সমাধানে ও কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে রাজ্য সরকারের তরফে এক অভিনব পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এবার থেকে গ্র্যাজুয়েশন করলেই রাজ্যের ছাত্রছাত্রীদের কাছে খুলে যাবে স্কুলে স্কুলে ইন্টার্নশিপের দরজা। কিন্তু, এর পরিপ্রেক্ষিতে এবার রাজ্যের প্রাথমিক, উচ্চ প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলিতে স্থায়ী শিক্ষক

বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর – কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে রাজ্যের প্রতি পরিবার পিছু একজনকে সরকারি চাকরি

গোটা দেশ জুড়েই কেন্দ্র সরকার ও বিভিন্ন রাজ্য সরকারের সবথেকে বড় মাথাব্যথার কারণ বেকারত্ব ও কর্মসংস্থান। কিন্তু, এবার সেই বিষয়ে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়ে চমকে দিলেন সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী পবন কুমার চামলিং। দীর্ঘদিন ধরেই সিকিমের মুখ্যমন্ত্রীত্ব সামলাচ্ছেন তিনি - ভেঙে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে সর্বকালীন সব রেকর্ড। কিন্তু, এবারে তিনি তাঁর রাজ্যবাসীর জন্য

পুরসভায় 26 টি পদের জন্য পরীক্ষার্থী 4 হাজার, বিরোধীদের অভিযোগ অস্বচ্ছতার, সংযত থাকার আবেদন শাসকের

রাজ্যের কর্মসংস্থানের বেহাল দশা নিয়ে বিভিন্ন সময়েই সরকারকে কটাক্ষ করে বিরোধীরা। কিন্তু এবারে শাসকদল পরিচালিত কান্দি পুরসভা সেই কর্মসংস্থানের জন্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হলেও বিরোধীদের সমালোচনার মুখ থেকে কিছুতেই ফিরে আসতে পারছে না শাসকদল। কিন্তু যেখানে বিরোধীদের দাবি অনুযায়ী কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করছে শাসকদল পরিচালিত পৌরসভা, সেইখানে কেন হইচই শুরু করছে বিরোধীরা?

Top
error: Content is protected !!