এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "কংগ্রেস বিধায়ক"

মুর্শিদাবাদে অধীর-ম্যাজিক অব্যাহত, এবার তাঁর হাত ধরে কংগ্রেসে যোগ দিলেন প্রাক্তন হেভিওয়েট বিধায়ক

মুর্শিদাবাদ জেলা ও অধীর রঞ্জন চৌধুরী যেন একে অপরের সমার্থক হয়ে গিয়েছিল। নিজের 'গরীবের রবিনহুড' ভাবমূর্তি নিয়ে মুর্শিদাবাদ জেলাকে কার্যত 'কংগ্রেসের-গড়' করে ফেলেছিলেন তিনি। কিন্তু বিগত বিধানসভা নির্বাচনে তিনি বামফ্রন্টের সঙ্গে জোট করে তৃণমূল কংগ্রেসকে হারানোর পরিকল্পনা করতেই যেন - তাঁকে রাজনৈতিকভাবে শেষ করে দেওয়ায় মূল লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় শাসকদলের। মুর্শিদাবাদ

ব্রিগেডের আগেই বড় চমক, তৃণমূলে যোগ দিলেন হেভিওয়েট বাম বিধায়ক

এই মুহূর্তে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকদের নয়নের মনি শুভেন্দু অধিকারী কিছুদিন আগেই হুঙ্কার ছেড়েছিলেন মুর্শিদাবাদে ১০ দিনের মধ্যে বড় উইকেট ফেলবেন। আর এবার নিজের দাবির স্বপক্ষে বাস্তবিকই তা করে দেখালেন তিনি। ব্রিগেডের প্রস্তুতি সভায় মুর্শিদাবাদে গিয়ে জলঙ্গির সিপিএম বিধায়ক আব্দুল রজ্জাককে তৃণমূলে নিলেন তিনি। প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের নির্বাচনে গোটা বাংলা জুড়ে ঘাসফুলের

কর্ণাটক এখনই গেরুয়া হচ্ছে না? বিধায়ক কান্ডে নতুন পদক্ষেপে নতুন মোড় দক্ষিণের রাজনীতিতে

স্বস্তি ফিরল কর্নাটকের কংগ্রেস শিবিরে। ঘোড়া কেনাবেচার আশঙ্কাকে মিথ্যা প্রমাণ করে হদিশ না পাওয়া ৫ কংগ্রেস বিধায়কের মধ্যে ৩ জনের খোঁজ পাওয়া গিয়েছিল আগেই। তবে বাকি দুজনের কোনো খোঁজ খবর না পেয়ে বেশ উদ্বিগ্নই হয়ে পড়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী। তাঁর সেই উদ্বেগের ইতি ঘটিয়ে বুধবার বিকালেই রাজ্যে ফিরে এলেন

মুকুল রায়ের থেকেও বড় চ্যালেঞ্জ মমতা ব্যানার্জির দিকে ছুঁড়ে দিলেন অধীর চৌধুরী

লোকসভা নির্বাচনের যত দিন এগিয়ে আসছে ততই জমে উঠছে রাজ্য রাজনীতি। বাংলায় এক দিকে যখন ৪২ এ ৪২ করে তৃণমূল কংগ্রেস প্রথম বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন উস্কে দিচ্ছে - তখন গেরুয়া শিবির বাংলা থেকে অন্তত ২৩ টি আসন জিতে রাজ্যে তৃণমূলী শাসনের পতনের হুঙ্কার ছাড়ছে। আর এর মাঝেই যেন কোথাও গিয়ে

শীর্ষ নেতৃত্ব চাইলে এক মুহূর্তেই রাজ্য সরকার বদলে দিতে পারেন বলে বড়সড় দাবি কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র

সম্প্রতি হয়ে যাওয়া পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে - গো-বলয়ের তিন রাজ্য থেকে ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের কাছে ছত্তিশগড়ের ফলাফল হতাশাজনক হলেও, গো-বলয়ের বাকি দুই রাজ্য মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে কংগ্রেসের সঙ্গে সমানে সমানে টক্কর দিয়েছে বিজেপি। কিন্তু, কড়া টক্কর দিলেও গেরুয়া শিবিরকে বসতে হয়েছে বিরোধী আসনেই। রাজস্থানে অশোক গেহলতের পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী

শুভেন্দু অধিকারীর বিরোধী-মুক্ত জেলার ‘অঙ্গীকারে’ সাড়া দিয়ে বিজেপি জেলা সভাপতিও কি ঘাসফুল শিবিরে? বাড়ছে জল্পনা

দিন কয়েক আগেই নবগ্রামের রসুলপুরে বিগ্রেডের প্রস্তুতি সভামঞ্চ থেকেই বিরোধীশূন্য রাজ্য গড়ার ডাক দিয়েছিলেন পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। ওই সংশ্লিষ্ট সভা থেকেই দু'বারের সিপিএম বিধায়ক কানাই মন্ডল তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। তবে শুধু সিপিএমই নয়, সেদিন বিজেপি কংগ্রেসের সংগঠনেও ফাটল ধরানোর কড়া বার্তা দিয়েছিলেন তৃণমূলের এই হেভিওয়েট নেতা। শুভেন্দুবাবুর এই হুঁশিয়ারির পর

প্রাথমিক শিক্ষকদের পিআরটি স্কেলের দাবিতে এখনও পর্যন্ত নেওয়া পদক্ষেপ সমূহ – এরপরেও সরকার নিশ্চল!

দীর্ঘদিন ধরেই ক্ষোভ-বিক্ষোভ চলছিল - কিন্তু এবারে একেবারে মরিয়া হয়ে উঠেছেন রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকরা। দলমত নির্বিশেষে শিক্ষকদের মধ্যে আওয়াজ উঠে গেছে - অনেক হয়েছে, এবার যেকোন মূল্যে পিআরটি স্কেল চাই। আর সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে কেন্দ্রীয়ভাবে আন্দোলন করে কলকাতার শহীদ মিনারের পাদদেশে গত ২৯ ও ৩০ শে অক্টোবর ঝড় তুলে

Top
error: Content is protected !!