এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি"

ভারতের নির্বাচনে ইভিএম ‘হ্যাক’ হয় – এবার বিদেশের মাটিতে করা হবে প্রমান?

দীর্ঘদিন ধরেই ভারতের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির দাবি, ভারতের সাধারণ নির্বাচনে যে ইভিএম ব্যবহার করা হয় তা হ্যাক করা হয় এবং বিজেপি নাকি নির্বাচনের ফল নিজেদের মত করে নেয়। এই নিয়ে সব থেকে বেশি সরব হয় আম আদমি পার্টি ও কংগ্রেস, আর পরবর্তীকালে সেই একই সুরে সুর মেলায় তৃণমূল কংগ্রেস, বহুজন

ব্রিগেডে হাসিমুখে পাশে বসে থাকলেও, এবার কি বড় ধাক্কা দিতে চলেছেন দিদির এই বিশেষ বন্ধু?

২১ শে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন ২০১৯ এর ১৯ শে জানুয়ারী ব্রিগেডে বিজেপি বিরোধী দেশের সকল রাজনৈতিক দলকে নিয়ে এক বৃহত্তর সমাবেশ করবেন। আর সেই লক্ষ্যে দুর্গাপুজো শেষ হতেই কার্যত নাওয়া-খাওয়া ভুলে গেছেন শাসকদলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা। আর সেই অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে - ব্রিগেড

বাংলাই পথ দেখায় – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্ব কার্যত মেনে নিলেন রাহুল গান্ধী

কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারকে উৎখাত করে দেশে নতুন সরকার প্রতিষ্ঠার স্বপ্নকে সামনে রেখে আজ কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের মহা জনসমাবেশ। রাজ্যের কংগ্রেস নেতারা যতই তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দাগুন বা তৃণমূল রাজ্যের গণতন্ত্রকে ধ্বংস করছেন বলে অভিযোগ জানান - কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল

রথযাত্রা নিয়ে কি বলল সুপ্রিম কোর্ট? শেষ হাসি কার? জানুন বিস্তারিত

রাজ্য জুড়ে গেরুয়া ঝড় তোলার জন্য বিজেপি আস্থা রেখেছিল রথযাত্রার উপর। কিন্তু, রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে এই যুক্তিতে কিছুতেই রাজি হয় নি রাজ্য প্রশাসন। ফলে, বিষয়টি গড়ায় আদালত পর্যন্ত - কিন্তু কলকাতা হাইকোর্টেও তার সুষ্ঠু সমাধান না হওয়ায়, মামলা গড়িয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। বিজেপির রথযাত্রা নিয়ে আজ সুপ্রিম কোর্টের শুনানিতে বড়সড়

পুলিশ আর রাজ্য সরকারকে তীব্র ভর্ৎসনা প্রধান বিচারপতির, তবুও রথযাত্রা নিয়ে ব্যাকফুটে বিজেপি – জানুন বিস্তারিত

গতকাল দীর্ঘ টালবাহানার পর কলকাতা হাইকোর্টে বিচারপতি তপোব্রত চক্রোবর্তীর সিঙ্গল বেঞ্চ রায় দেয় যে বিজেপির প্রস্তাবিত রথযাত্রা হতে পারে শর্তসাপেক্ষে। কিন্তু, সেই রায়দানের সাথেসাথেই কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য সরকার। সেখানে শুনানির শুরুতেই রাজ্য সরকারের পক্ষে বলতে ওঠেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত। অন্যদিকে রাজ্য পুলিশের

Top
error: Content is protected !!