এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > এই কাজটি করতে না পারলেই রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার মহা চ্যালেঞ্জ নিলেন শুভেন্দু অধিকারী

এই কাজটি করতে না পারলেই রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার মহা চ্যালেঞ্জ নিলেন শুভেন্দু অধিকারী

বিজেপি যেখানে সভা করবে সেই জায়গাতেই পাল্টা সভা করবে তৃণমূল কংগ্রেস বলে গত 19 শে জানুয়ারি দলের ব্রিগেড সমাবেশের মঞ্চ থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের সেই বার্তা দিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর দলনেত্রীর সেই কথাকে মান্যতা দিয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্যে যে সমস্ত জায়গায় বিজেপি সভা করছে তারই পাল্টা সভা হিসেবে সেই জায়গাকেই বেছে নিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 29 শে জানুয়ারি কাঁথির পদ্মপুকুরিয়ার রেলস্টেশন মাঠে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ সভা করে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে জোর কটাক্ষ করেছিলেন। আর রবিবার সেই একই জায়গাতেই পাল্টা সভা করে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে তোপ দাগল তৃণমূল কংগ্রেস।

জানা গেছে, এদিনের এই সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পরিবেশ ও পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা কাঁথির তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী, তমলুকের তৃণমূল সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী, বিধায়ক বনশ্রী মাইতি, রনজিত মন্ডল, অর্ধেন্দু মাইতি, জেলা পরিষদের সভাধিপতি দেবব্রত দাস সহ অন্যান্যরা।

আর এই সভাতে উপস্থিত হয়েই গেরুয়া শিবিরের উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে দেখা যায় রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে। এদিন তিনি বলেন, “এবারের লোকসভা নির্বাচনে 2014 সালের থেকেও আমরা বেশি মার্জিনে জিতব। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যাকে প্রার্থী করবেন তাঁকে যদি নুন্যতম আড়াই লক্ষ্যের ভোটের বেশি জেতাতে না পারি তাহলে আমি রাজনীতি ছেড়ে দেব।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে গত 29 শে জানুয়ারি এই কাঁথির সভা থেকে “অধিকারী ব্রাদার্স এন্ড সন্স কোম্পানি” কে উৎখাত করার ডাক দিয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন তৃণমূলের পাল্টা সভা থেকে সেই দীলিপবাবুর উদ্দেশ্যে কটাক্ষ ছুড়ে দেন শুভেন্দু অধিকারী। নাম না করে বিজেপির রাজ্য সভাপতির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “তোমার জন্ম হওয়ার আগে থেকে অধিকারী পরিবার রাজনীতি করে এসেছে। এখানে সিপিএমের জ্যোতি বসু দু দুবার ও কংগ্রেসের প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী অনেক সভা করেছেন। কিন্তু তাতেও কোনো লাভ হয়নি। আপনি তো কোন ছাড়! একজন দেউলিয়া রাজনীতিবিদ হয়ে সে কিনা তৃণমূলকে ভয় দেখাচ্ছে!”

অন্যদিকে বিজেপি নেতাদের উদ্দেশ্যে শুভেন্দু অধিকারীর মন্তব্য, “মধ্যপ্রদেশ, ছত্রিশগড়ের নির্বাচনে কি হয়েছে সেটা আগে বিজেপি ভাবুক। আসলে বিজেপি হল নতুন বোতলে পুরনো মদ। ওরা যদি শান্তিপ্রিয় কাথিতে অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করে তাহলে আমরা স্যার আইজাক নিউটনের তৃতীয় গতিসূত্র মেনেই পাল্টা রিয়াকশন দেব।”

পাশাপাশি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপিকে পরাস্ত করে 42 টির মধ্যে 42 টি আসনেই তৃনমূল জিতবে বলে আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা যায় শুভেন্দু অধিকারীর গলায়। অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির এই বিভাজনের রাজনীতির বিরুদ্ধে এদিনের দলীয় সভা মঞ্চ থেকে সরব হন রাজ্য মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী তথা রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। সব মিলিয়ে এবার কাঁথিতে বিজেপির পাল্টা সভা করে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে অলআউট অ্যাটাকে অবতীর্ণ হলেন রাজ্যের শাসকদলের হেভিওয়েট নেতা-নেত্রীরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!