এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে চলেছেন তৃণমূল প্রার্থী ,কারণ জেনে নিন

এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে চলেছেন তৃণমূল প্রার্থী ,কারণ জেনে নিন

গত বুধবারই সাংবাদিক সম্মেলন করে রাজ্যের সপ্তম তথা শেষ দফার লোকসভা নির্বাচনের 24 ঘন্টা প্রচারের সময়সীমা কমিয়ে দেয় নির্বাচন কমিশন। আর সেই খবর পেয়েই কমিশনের বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ উগরে দেয় তৃনমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে শুধু লোকসভা কেন্দ্রগুলির ক্ষেত্রেই নয়, রাজ্যের যে বেশ কয়েকটা বিধানসভা উপনির্বাচন আছে, যার নির্বাচন সেই আগামী উনিশে মে, তাদেরও প্রচারের সময়সীমা একইভাবে কমিয়ে দেওয়া হয়। আর এতেই চরম ক্ষুব্ধ হয়ে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার কথা জানালেন ভাটপাড়া বিধানসভা উপনির্বাচনের তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিন থাকলেও নির্বাচন কমিশনের নতুন নির্দেশ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার রাত 10 টা পর্যন্ত শেষ প্রচার করতে পারবেন এই উনিশে মে যে সমস্ত কেন্দ্রের নির্বাচন হচ্ছে তার প্রার্থীরা। আর এতেই হাতে অনেক কম সময় পাওয়ায় এদিন নিজের ক্ষোভ উগরে দেয় ভাটপাড়ার তৃণমূল প্রার্থী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, এদিন নির্বাচন কমিশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে একটি প্রতিবাদ মিছিল সংঘটিত করে তৃণমূল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ভাটপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র, অভিনেতা সোহম, ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদী এবং ভাটপাড়া পৌরসভা তৃণমূল কাউন্সিলররা। আর সেই মিছিলে হাঁটতে হাঁটতেই মদন মিত্র বলেন, “নির্বাচন কমিশন আমার থেকে টাকা নেওয়া সত্ত্বেও আমাকে ঠিক করে প্রচার করতে দিল না। বলা হয়েছিল শুক্রবার পর্যন্ত প্রচার করার সুযোগ পাব। কিন্তু কার স্বার্থে এই প্রচারের সময় কুড়ি ঘন্টা কমিয়ে দেওয়া হল, একজন প্রার্থী হিসেবে তার জবাব চাই। রাজ্যের বিরোধী পক্ষ নিজেদের হেরে যেতে দেখে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতাকে ব্যবহার করে এই নিয়ম চালু করেছে। আমি এর জবাব চেয়ে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হব।”

অন্যদিকে এদিন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংহের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন মদন মিত্র। তিনি বলেন, “অর্জুন সিং ভাটপাড়ার তৃণমূল কাউন্সিলর সত্যেন রায় এবং আমাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করছে।” পাল্টা মদন মিত্রের এই অভিযোগকে অস্বীকার করে অর্জুন সিংহ বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেস আর প্রার্থী পেল না, মদ মাতাল মদন মিত্রকে প্রার্থী করেছে। যে মানুষ নিজের হুশেই থাকে না তার আনা অভিযোগের কি উত্তর দেব! যার কিডনি লিভার খারাপ হয়ে গেছে তাকে কেউ কেন মারতে যাবে! আমরা রাজনীতি করি। এই সব কথা উস্কানিমূলক কথা ছাড়া আর কিছুই নয়।”

সব মিলিয়ে ভোট প্রচারের সময় কমিয়ে দেওয়ায় নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে শীর্ষ আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন ভাটপাড়া বিধানসভা উপনির্বাচনের তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!