এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সংসদের ভিতর অসংসদীয় আচরণের জন্য বড়সড় শাস্তির মুখে দেশের ২৬ জন সাংসদ – জানুন বিস্তারিত

সংসদের ভিতর অসংসদীয় আচরণের জন্য বড়সড় শাস্তির মুখে দেশের ২৬ জন সাংসদ – জানুন বিস্তারিত

সংসদে শীতকালীন অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে থেকেই মনে করা হচ্ছিল – এবারের অধিবেশনে ঝড় তুলতে চলেছেন বিরোধীরা। যেহেতু লোকসভা নির্বাচনের আগে এটাই শেষ পূর্ণাঙ্গ অধিবেশন – তাই কেন্দ্রীয় সরকারের তাড়া থাকবে বেশ কিছু গুরুত্ত্বপূর্ন বিল পাশ করিয়ে নেওয়ার। কিন্তু, সম্মিলিত বিরোধীদের বাধার মুখে তা কতখানি বাস্তব হবে, সেদিকেই তাকিয়ে ছিলেন সবাই।

কিন্তু, সংসদের অধিবেশন শুরু হতেই – প্রত্যাশিত পথে বিরোধীরা বারবার সমস্বরে প্রতিবাদ জানিয়ে কার্যত রুদ্ধ করে দেন সংসদের কাজকর্ম। কিন্তু, সেই প্রতিবাদ এবার যেন মাত্রা ছাড়িয়ে গেল! আর ফলস্বরূপ কড়া ‘হেড মিস্ট্রেসের’ মত কঠিন পদক্ষেপ নিলেন লোকসভার অধ্যক্ষ সুমিত্রা মহাজন। সংসদে অসংসদীয় আচরণের জন্য এআইএডিএমকের ২৬ জন সাংসদকে বহিস্কার করলেন তিনি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

সূত্রের খবর, সংসদের কাজে বারবার বাধা দেওয়ায় এবং ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখানোয় – অধ্যক্ষের ক্ষোভের মুখে এই সাংসদরা। এমনকি, আগামী পাঁচদিন তাঁরা অধিবেশনে অংশও নিতে পারবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজন। কর্ণাটকের কাবেরী নদীর উপর মেকেডাটু বাঁধ নির্মাণ নিয়ে বিক্ষোভ দেখতে গিয়ে অধ্যক্ষের রোষের মুখে পড়লেন তাঁরা বলে জানা গেছে।

এআইএডিএমকের দাবি ছিল, এই বাঁধ তৈরি করা হলে রাজ্যের কৃষকরা চূড়ান্ত সমস্যায় পড়বেন – আর তাই সরকার বিরোধী স্লোগান দিতে দিতে বারবার ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। অধ্যক্ষ বারবার তাঁদের নিজের আসনে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ করলেও – পিছু হঠতে নারাজ ছিলেন সাংসদরা। আর তাতেই ধৈর্য্যের বাঁধ ভাঙে স্পিকারের এবং শেষপর্যন্ত তিনি কড়া পদক্ষেপের কথা জানিয়ে দেন।

Top
error: Content is protected !!