এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > জল্পনা বাড়িয়ে রাজ্য সরকারের পাশে দাঁড়ালেন সুজন চক্রবর্তী – জানুন বিস্তারিত

জল্পনা বাড়িয়ে রাজ্য সরকারের পাশে দাঁড়ালেন সুজন চক্রবর্তী – জানুন বিস্তারিত

রাজ্যে গত কয়েকদিন ধরেই চলছে মিড ডে মিল সমস্যা। মিড ডে মিল থেকে বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীদের বঞ্চনার কথা উঠে আসছে। সম্প্রতি বিজেপি সাংসদ লকেট চ্যাটার্জ্জী চুচুঁড়া বাণীমন্দির স্কুলে গিয়ে সেখানে দেখেন বাচ্চাদের নুন ভাত খাওয়ানো চলছে। শুরু হয় রাজনৈতিক চাপানউতোর।

এবার এই ব্যাপারে মুখ খুললেন সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনি রীতিমত কটাক্ষ করে বলেন, এ রাজ্যে কোনোদিনই প্রশাসন নেই। তবে কেন্দ্রের সাথে যদি রাজ্য সরকার অর্থসংক্রান্ত কোনো আলোচনা চায় তাহলে সি পি এম তাদের পাশে থাকবে বলে সুজন চক্রবর্তী জানান।

প্রশাসনহীন রাজ্যে আজ ডিমভাত থাকছে তো কাল আর থাকছে না। এভাবে কতদিন চলবে, শুধু জ্ঞান না দিয়ে কাজ করাটাও প্রয়োজন বলে তীব্র কটাক্ষ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সুজন চক্রবর্তী। তিনি রাজ্য সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, মিড ডে মিল প্রকল্পে রাজ্য সরকারের উচিত আরও একটু বিনিয়োগ করা। যদি আর্থিক সমস্যা হয় তাহলে তারা কেন্দ্রীয় সরকারের সাথে এ নিয়ে কথা বলতে চাইলে সিপিএম তাদের সাথে থাকবে বলে জানিয়েছেন সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সোমবার পূর্ব বর্ধমান জেলায় প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মিড ডে মিলের পরিস্থিতি তুলে ধরেন। জানান, রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছ থেকে প্রতি ছাত্র ছাত্রী হিসাবে ৪ টাকা ৩১ পয়সা পান। তার সাথে বাকি রাজ্য সরকার দেয়। কেন্দ্রের ঐ সামান্য টাকায় প্রতিদিন ডিমভাত কিকরে হবে বলে মুখ্যমন্ত্রী উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তবে তিনি চটজলদি সমাধানও বার করেন। তার মতে, ডিমভাত না হলেও ভাত, ডাল, তরকারী যাতে সমস্ত ছাত্রছাত্রীরা পায় সে বিষয়ে বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে।

মিড ডে মিল নিয়ে গত কয়েকদিনে যে তথ্য উঠে এসেছে তা যে বর্তমান সরকারকে যথেষ্ট চাপে ফেলেছে তা বোঝাই যাচ্ছে। এখন দেখার, এ বিষয়ে তিনি কি ব্যবস্থা নেন। ছাত্র ছাত্রীরা কিভাবে সম্পূর্ণ খাবার পাবে সেদিকে রাজ্য সরকারের নজর থাকবে কিনা সেটাই দেখার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!