এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > তৃণমূল বিধায়ককে তাঁরই বিধানসভা এলাকায় যেতে মানা করল শাসকদল, জল্পনা চরমে

তৃণমূল বিধায়ককে তাঁরই বিধানসভা এলাকায় যেতে মানা করল শাসকদল, জল্পনা চরমে

” ভোট পর্যন্ত তাঁর আর এলাকায় যাওয়ার দরকার নেই। দলের সর্বোচ্চস্তরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” এদিন পশ্চিম মেদিনীপুরে দলীয় বিধায়কদের বৈঠকে কেশপুরের বিধায়ক শিউলি সাহাকে এমনই নিষেধাজ্ঞা করলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সম্পাদক সুব্রত বক্সী।জানা গেছে তৃণমূলের তরফ থেকে আশঙ্কা করা হচ্ছে যে শিউলিদেবী যদি কেশপুর যান তবে সেখানে অশান্তি হতে পারে আর তাই এমন নির্দেশ। যদিও গত বিধানসভা নির্বাচনে শিউলি কেশপুরে লক্ষাধিক ভোটে জিতেছিলেন। কী কারণে তিনি এলাকায় ঢুকতে পারবেন না জানতে চেয়ে রাজ্য সভাপতির কাছে ভর্ত্‍সিত হন শিউলিদেবী।এই নিয়ে আবার শিউলিদেবীও মুখ খুলতে চাননি। তিনি জানান যে, ”আমার কিছু বলার নেই।” এদিন শিউলিদেবীকে এই সিদ্ধান্ত জানানোর পর তিনি সুব্রতবাবুর কাছে বিধায়ক কোটার টাকা কীভাবে খরচ হবে, এলাকার মানুষের সমস্যা নিয়ে কীভাবে তিনি দরবার করবেন জানতে চাইলে তেমন ভাবে জবাব দেননি সুব্রতবাবু। কি কারণে এত দূরত্ব বেড়ে গেলো তা নিয়ে কিন্তু নানা প্রশ্ন উঠেছে। এর আগে তিনি ছিলেন হলদিয়ার বিধায়ক। ২০১৬ সালে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণে তাঁকে সরানো হয় কেশপুরে। প্রথম থেকেই এলাকার স্থানীয় নেতাদের সাথে তাঁর সম্পর্ক খুব একটা ভালো ছিল না বলে জানা গেছে। বর্তমানে সঞ্জয় পান কেশপুর এলাকার দেখাশোনা করছে এবং আগামী পঞ্চায়েত ভোট তাকে দিয়েই করতে চায় তৃণমূল এমনটাই সূত্রের খবর।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!