এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > কলকাতায় সুব্রত বক্সীর জরুরি তলব অজিত মাইতিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর নিয়ে বাড়ছে জল্পনা

কলকাতায় সুব্রত বক্সীর জরুরি তলব অজিত মাইতিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর নিয়ে বাড়ছে জল্পনা

পঞ্চায়েত নির্বাচনেই পশ্চিম মেদিনীপুরে নিজেদের শক্তিবৃদ্ধির স্পষ্ট প্রমান রেখেছে গেরুয়া শিবির। আর তাই নিয়ে তুমুল জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে – কেননা বাতাসে কান পাতলে গুঞ্জন, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মেদিনীপুর থেকে প্রার্থী হতে পারেন দিলীপ ঘোষ। আর তাঁর এই আসনে প্রার্থী হওয়ার দুই প্রধান কারণ হল – প্রথমত, ‘ভূমিপুত্র’ হিসাবে তাঁর তুমুল জনপ্রিয়তা। আর দ্বিতীয়ত, এই জেলায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নাকি প্রবলভাবে মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে। এহেন পরিস্থিতিতে পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলা সভাপতি অজিত মাইতিকে জেলার সভাধিপতি নির্বাচনের ঠিক আগে আপৎকালীন বৈঠকে ডেকে পাঠান অন্যতম শীর্ষনেতা সুব্রত বক্সী, যা নিয়ে জল্পনার অন্ত নেই স্থানীয় রাজনৈতিক মহলে।

অন্যদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলা পরিষদের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে জল্পনা তুঙ্গে জেলার রাজনৈতিকমহলে। জেলা পরিষদের সভাপতি পদে পুনরায় বহাল হতে চলেছেন উত্তরা সিংহ – বলে তীব্র জল্পনা ছড়িয়েছে। জেলা পরিষদের মহিলা সংরক্ষিত সভাধিপতির পদটি পাওয়ার সম্ভাব্য তালিকায় আরো তিনজনের নাম থাকলেও বিদায়ী সভাধিপতি উত্তরা সিংহই আবার ফিরতে চলেছেন পুরানো ফিল্ডে বলেই ধারণা জেলার তৃণমূল নেতৃত্ত্বের।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পঞ্চায়েত ভোটের ফলপ্রকাশের পর থেকে তাঁর জয়ে শংসাপত্র এতোদিন প্রশাসনের দপ্তরে পড়ে ছিল। এদিন তাকে শংসাপত্র নিয়ে যেতে দেখা গেল। এতোদিন ব্যাপারটা নিয়ে উদ্যোগ না নিলেও এদিন কেন তিনি তড়িঘড়ি করে জয়ের শংসাপত্র নিলেন – এটা নিয়েও রাজনৈতিকমহলে তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। তবে কি তিনিই আবার জেলাপরিষদের সভাধিপতির কুর্সিতে বসতে চলেছেন? জল্পনা তুঙ্গে।

জেলা পরিষদের বোর্ডগঠন নিয়ে এদিন মেদিনীপুরে জেলা তৃণমূলের একটি বৈঠক হয়। আগামী ১১ ই সেপ্টেম্বর সভাধিপতি নির্বাচনের দিন স্থির করা হয়েছে। ওদিন সকাল ৯ টা নাগাদ দলের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে। তবে কে সভাধিপতি হতে চলেছেন তা নিয়ে এখনই কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনটাই বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের জানালেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি অজিত মাইতি। এ ব্যাপারে দিন দুয়েক আগে কলকাতায় এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে গিয়েছেন অজিতবাবু বলে সূত্রের খবর।

তৃণমূলের অন্দরের খবর থেকে জানা গিয়েছে,মুখ্যমন্ত্রীই তাঁকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। তবে তার আগের দিন তৃণমূল রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সির সঙ্গে দেখা করেন অজিতবাবু। জরুরি বৈঠক হয় উভয়ের। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে কিছুই মিডিয়াকে জানাতে রাজি নন অজিত বাবু। “সাংগঠনিক ব্যাপারে কথা হয়েছ” – এটুকুই জানালেন শুধু। তবে আপাতত ১১ ই সেপ্টেম্বরের দিকে চোখ রয়েছে রাজনৈতিকমহলের। উত্তরাদেবীই ফের জেলা পরিষদের সভাধিপতি হন কিনা সেটাই দেখার! তবে যেহেতু কলকাতার বৈঠক নিয়ে কার্যত মুখে কুলুপ এঁটেছেন তৃণমূল নেতৃত্ত্ব – তাই তা জেলা সভাধিপতি নির্বাচন নাকি অন্য কোনো সাংগঠনিক রদবদল, তা নিয়ে তীব্র জল্পনা অব্যাহত।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!