এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > জঙ্গলমহলের বুকে দাঁড়িয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে একরাশ বিস্ফোরক অভিযোগ শুভেন্দু অধিকারীর

জঙ্গলমহলের বুকে দাঁড়িয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে একরাশ বিস্ফোরক অভিযোগ শুভেন্দু অধিকারীর

আসন্ন ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচার কার্যে জঙ্গলমহলে দলীয় সভা করলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী তথা শাসকদলের দাপুটে নেতা শুভেন্দু অধিকারী। দলীয় প্রচার মঞ্চ থেকে তিনি নোট বাতিল, কালো টাকা উদ্ধারের প্রতিশ্রুতি, পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি, ঝাড়খন্ড থেকে দুষ্কৃতি আমদানি করে সন্ত্রাস চালানো প্রভৃতি বিষয়ের উল্লেখ করে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে একের পর এক বিস্ফোরক তোপ দাগলেন। এলাকার সাধারণ মানুষকে সতর্ক করে এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার বার্তাও দিলেন তিনি। শিলদার জনসভা থেকে এলাকার সাধারণ মানুষ সহ, দলীয় কর্মী সমর্থকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস সবদিকে নজর রেখে চলেছে, কোথায় কে নির্দল প্রার্থীদের প্ররোচনা দিচ্ছে। আমরা জানি, কারা পদ্ম ফুলের পতাকা টাঙাচ্ছে, কারা নির্দলদেরকে উস্কানি দিচ্ছে! কংগ্রেস, ঝাড়খন্ড, সিপিএম সব মুছে গেছে। কাস্তে হাতুড়ি নিয়ে বেরোলে মানুষ আজ ধামসা মাদল নিয়ে তাড়া করছে। তাই তারা আজ নির্দলে ছদ্মবেশে আম, জাম,কাঁঠাল নিয়ে দাঁড়িয়েছে সাথে রয়েছে শুকনো পদ্মফুল।

এরপরেই অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসী ভঙ্গিতে দাবি করেন, এই রাজ্যে বিজেপির জয়লাভ করে ক্ষমতায় আসা, শুধু আজ বলে নয় – অদূর ভবিষ্যতেও কোনো সম্ভবনা নেই। উন্নয়ন প্রসঙ্গে বিজেপি জেলা সভাপতিকে রীতিমত কটাক্ষ করে বলেন, কেন্দ্রের চার বছরের উন্নয়নের সাথে রাজ্যের সাত বছরের উন্নয়নকে তুলনা করে উন্নয়নের দশটি প্রশ্ন তিনি করবেন, উত্তর দিতে না পারলে হার মেনে চলে যাবেন। সেনা বাহিনী সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি বলেন, বিজেপির আমলে ১,৫০০ জওয়ান শহিদ হয়েছেন আর বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পাকিস্থানে জন্মদিনে গিয়ে কেক কেটে এসেছেন। পাশাপাশি শুভেন্দু অধিকারী এদিন জঙ্গলমহল শান্ত করার পিছনে রাজ্যের তথাত মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকার কথা তুলে ধরার সাথে সাথে ঢালাও উন্নয়নের প্রসঙ্গ টেনে রাজ্য সরকারের সাথে থাকার আর্জি জানান। তিনি প্রত্যয়ের সাথে দাবি করেন, যে যাই করুক এখানে শুকনো পদ্ম ফুল ফুটবে না!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!