এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > নাম না করে ভারতী ঘোষ ‘রহস্য’ অনেকটাই উন্মোচিত করে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

নাম না করে ভারতী ঘোষ ‘রহস্য’ অনেকটাই উন্মোচিত করে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত ছিলেন। এমনকি প্রকাশ্য সভামঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে ‘জঙ্গলমহলের মা’ বলে ভূষিত করে বিতর্কও বাড়িয়েছিলেন। কিন্তু সেই ভারতী ঘোষকেই সবং উপনির্বাচনের পর হঠাৎ করে কম গুরুত্ত্বপূর্ন পদে বদলি ও তারফলে তাঁর ইস্তফার ঘটনায় সরগরম হয়ে ওঠে রাজ্য-রাজনীতি, ছড়াতে থাকে একের পর এক জল্পনা। সবং উপনির্বাচনে জয় উপলক্ষে বিজয় সমাবেশ থেকে নাম না করে সেই বিষয়ে মুখ খোলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী তথা শাসকদলের দাপুটে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। আর তারফলে অনেক রহস্য উন্মোচিত হল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সবংয়ের সভা থেকে শুভেন্দুবাবু বলেন –

১. সবংয়ে তৃণমূলকে হারানোর নীল নকশা তৈরি হয়েছিল
২. কয়েকজন সরকারি আধিকারিকও এই চক্রান্তের সঙ্গে জড়িত ছিলেন
৩. সময়মত বুঝতে পেরে পশ্চিম মেদিনীপুর থেকে তাঁকে তাড়িয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
৪. সবংয়ে বুথ ও অঞ্চল সভাপতিদের মোবাইল নম্বর নিয়ে আমাদের দল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া এক ব্যক্তিকে দেওয়া হয়েছিল
৫. এতে জড়িত ছিলেন এখানকার এক সরকারি আধিকারিক
৬. এরপর সেইসব বুথ অঞ্চলের সভাপতিদের ফোন করে বলা হয়েছিল, পুরোনো তৃনমূল নেতা হয়ে নতুন তৃণমূলকে ভোট না দিতে
৭. এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সক্রিয় ভাবে যুক্ত
৮. পরিকল্পনা করে গুজরাত, হিমাচল প্রদেশ ভোটের পর সবং উপনির্বাচনের দিন ঠিক করা হয়েছিল
৯. মুখ্যমন্ত্রী আগে ভাগেই সেই চক্রান্ত বুঝতে পেরে সেই সরকারি অধিকারীককে পশ্চিম মেদনীপুর থেকে তাড়িয়ে দিয়েছেন
১০. এতো কিছুর পরেও সব চক্রান্ত ব্যর্থ করে তৃণমূলের উন্নয়নের পাশে থাকার জন্য সবংয়ের মানুষকে ধন্যবাদ

আপনার মতামত জানান -
Top